বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে কৃষকবন্ধু প্রকল্পে
৩ হাজার আবেদন জমা, চলছে নথি যাচাই

সংবাদদাতা, ময়নাগুড়ি: তৃতীয় পর্যায়ের দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে ময়নাগুড়ি ব্লকে কৃষকবন্ধু প্রকল্পে তিনহাজার আবেদন জমা পড়েছে। ব্লক কৃষিদপ্তর থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ব্লকের ২২ হাজার কৃষককে এর আগে সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। এবার যাঁরা আবেদন করেছেন তাঁদের নথিপত্র যাচাই করে তাঁদেরও শীঘ্রই কৃষকবন্ধু প্রকল্পে নিয়ে আসা হবে। কৃষকবন্ধু প্রকল্পের সুবিধা পেয়ে খুশি চাষিরা। অন্যদিকে, মৃত কৃষকের পরিবারকেও এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্য সরকার আর্থিক সহযোগিতা করছে। তাই ওই পরিবারগুলিও সরকারি সাহায্য পেয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানাচ্ছেন। 
১৬ আগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তৃতীয় পর্যায়ের দুয়ারে সরকার ক্যাম্প জলপাইগুড়ি জেলার ময়নাগুড়ি ব্লকেও হয়। একমাসব্যাপী ক্যাম্পে হাজার তিনেক আবেদন জমা পড়ে। ময়নাগুড়ি কৃষিদপ্তর থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী কৃষকবন্ধু প্রকল্পের নথিভুক্ত সকল কৃষক ও ভাগচাষির বছরে সর্বাধিক আর্থিক সহায়তার পরিমাণ দ্বিগুণ করে ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। সর্বনিম্ন সহায়তার পরিমাণও দ্বিগুণ করে চারহাজার টাকা করেছে রাজ্য সরকার। খরিফ ও রবিশস্য চাষ দুই মরশুমেই বছরে দু’টি সমান কিস্তিতে কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পৌঁছে যাচ্ছে। কৃষকবন্ধু প্রকল্পে ১৮-৬০ বছর বয়সি কোনও কৃষকের মৃত্যু হলে ওই কৃষকের পরিবার সহায়তা হিসেবে এককালীন দু’লক্ষ টাকা পাচ্ছেন। 
ময়নাগুড়ি ব্লক কৃষি আধিকারিক কৃষ্ণা রায় বলেন, সারাবছর কৃষকবন্ধু প্রকল্পে নথিভুক্ত হওয়ার জন্য দপ্তরে আবেদন জমা নেওয়া হয়। গতবছর জলপাইগুড়ি জেলার মধ্যে ময়নাগুড়ি ব্লকেই সর্বাধিক কৃষকবন্ধু প্রকল্পের আবেদন জমা পড়েছিল। এবার দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে নতুন করে তিনহাজার আবেদন জমা পড়েছে। কৃষকবন্ধু প্রকল্পের সহায়ক মূল্য রাজ্য সরকার দ্বিগুণ করে দিয়েছে। এতে কৃষকরা খুব খুশি। আমরা চাই প্রতিটি কৃষক এই প্রকল্পের আওতায় আসুক ও তাঁরা সরকারি সহযোগিতা গ্রহণ করুক। 
কৃষকবন্ধু প্রকল্পে খরিফ ও রবিশস্যের চাষ শুরুর আগে চাষের উপকরণ কেনার জন্য একএকর বা তার বেশি চাষযোগ্য জমির জন্য বছরে দু’টি কিস্তিতে সর্বাধিক ১০ হাজার টাকা অনুদান দেওয়া হয়। জমি একএকরের কম হলে দু’টি কিস্তিতে চারহাজার টাকা দেওয়া হয়। কৃষকদের নামে চাষযোগ্য জমির পরচা, পাট্টা কিংবা বন বিভাগের পাট্টা থাকলে অথবা বর্গা নথিভুক্ত থাকলে কৃষকবন্ধু প্রকল্পে চাষিরা আবেদন করতে পারেন। নিজের নামে জমি না থাকলে দলিল বা জমির দানপত্র বা প্রধান, পঞ্চায়েত সদস্যের দেওয়া সার্টিফিকেট দেখিয়ে প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য আবেদন করা যাবে। 

28th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021