বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

পুজোর মুখে ১৩৭ টি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর
জন্য ৫ কোটি টাকা ঋণ অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: পুজোর মুখে মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীদের ঋণ প্রদানে ‘রেকর্ড’ গড়ল শিলিগুড়ি। একদিনে মাটিগাড়ায় মেগা ক্রেডিট ক্যাম্প করে শতাধিক গোষ্ঠীকে ঋণ বাবদ প্রদান করা হল পাঁচ কোটিরও বেশি টাকা। সোমবার একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের সঙ্গে এই ক্যাম্প করে পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন সেল। এতে দেড়হাজার মহিলা রীতিমতো উচ্ছ্বসিত। তাঁরা টেলারিং, পোশাক, মশলা, সব্জি প্রভৃতির ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। তাঁদের বক্তব্য, কোভিডে বিপর্যস্ত ব্যবসা এবার পুজোয় কিছুটা হলেও চাঙ্গা হবে। 
শিলিগুড়ির গ্রামীণ এলাকায় মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলির ঋণের দাবি অনেকদিনের। বিভিন্ন ব্যাঙ্কের সহায়তায় মাঝেমধ্যে ঋণ প্রদান করেও মহিলাদের চাহিদা পূরণ করতে পারছিল না পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন সেল। তাই তারা এবার গ্রামে গ্রামে মেগা ক্রেডিট ক্যাম্প করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সেইমতো এদিন মাটিগাড়া-২ গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে একটি ক্যাম্প করা হয়। ক্যাম্পে পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন সেলের প্রজেক্ট ডিরেক্টার অরবিন্দ ঘোষ, সংশ্লিষ্ট দপ্তরের ডেপুটি প্রজেক্ট ডিরেক্টার প্রদীপ রায়, মাটিগাড়ার বিডিও শ্রীবাস বিশ্বাস সহ ব্যাঙ্কের আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিনের ক্যাম্প থেকে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৩৭টি স্বনির্ভর গোষ্ঠীকে ঋণ হিসেবে প্রদান করা হয় ৫ কোটি ৫ লক্ষ টাকা। এরমধ্যে সর্বনিম্ন ঋণের পরিমাণ দেড়লক্ষ টাকা। সর্বোচ্চ ঋণের পরিমাণ ১০ লক্ষ টাকা। এর বাইরে আড়াই লক্ষ, সাড়ে তিনলক্ষ, পাঁচলক্ষ টাকা করেও অনেক গোষ্ঠী ঋণ পেয়েছে। এই ঋণ প্রদান করেছে একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের প্রধাননগর শাখা। এদিন ক্যাম্পের পর প্রশাসনের আধিকারিকরা বলেন, একদিনে একটি ব্যাঙ্কের শাখা থেকে এতগুলি গোষ্ঠীকে পাঁচকোটিরও বেশি টাকার ঋণ ইদানিংকালে প্রদান করা হয়নি। কাজেই শিলিগুড়িতে ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে এটা ‘রেকর্ড’। আজ, মঙ্গলবার মহকুমার আরও ছ’টি জায়গায় মেগা ঋণ প্রদান ক্যাম্প করা হবে বলে জানা গিয়েছে। কোভিড মহামারীর জেরে ব্যবসা-বাণিজ্য বিপর্যস্ত। যার প্রভাব গ্রামীণ অর্থনীতি ও গ্রামবাসীদের জীবন জীবিকা নির্বাহের উপরও পড়েছে। কাজেই পুজোর দু’সপ্তাহ আগে এই ঋণ পেয়ে মহিলারা রীতিমতো উচ্ছ্বসিত। প্রশাসন সূত্রের খবর, সংশ্লিষ্ট ১৩৭টি গোষ্ঠীতে মহিলার সংখ্যা প্রায় ১৫০০ জন। তাদের মধ্যে তুম্বাজোতের দামিনী গোষ্ঠীর কোষাধ্যক্ষ পিঙ্কি দাস, ক্ষুদিরামপল্লির ভোলেবাবা গোষ্ঠীর শিখা দে, রামকৃষ্ণপল্লির একটি গোষ্ঠীর সদস্যা রিনা দেবরা বলেন, কাপড়, টেলারিং, মশলা, পান-সুপারি, হোটেল, সব্জি প্রভৃতির ব্যবসা করেন গোষ্ঠীর মহিলারা। তাই এই মুহূর্তে ঋণ মেলায় ব্যাপক উপকার হয়েছে। কোভিডের ধাক্কায় বিপর্যস্ত ব্যবসা এবার কিছুটা ঘুরে দাঁড়াবে। চলতি আর্থিক বছরে এ নিয়ে হাজারেরও বেশি গোষ্ঠীকে ঋণ প্রদান করা হয়েছে। প্রশাসন সূত্রের খবর, এবার এখনও পর্যন্ত প্রায় ১৪২১টি গোষ্ঠীকে ঋণ প্রদানের পরিমাণ প্রায় ৬৮ কোটি ৪৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।  

28th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021