বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
উত্তরবঙ্গ
 

অবহেলিত শিলিগুড়ি টাউন
রেলস্টেশন, সোচ্চার গৌতম

সংবাদদাতা, শিলিগুড়ি: বিশ্ব পর্যটন দিবসে ঐতিহাসিক স্মৃতি সমৃদ্ধ শিলিগুড়ি টাউন স্টেশনের গরিমা ফেরানোর দাবি উঠল। দীর্ঘ অবহেলায় শিলিগুড়ি টাউন স্টেশন আজ ধ্বংসের মুখে। অথচ শতাব্দী প্রাচীন এই স্টেশন থেকেই  চালু হয়েছিল হেরিটেজ টয় ট্রেন। শুরু হয়েছিল শিয়ালদহ-শিলিগুড়ি সরাসরি রেল যোগাযোগ। সেই সুবাদে এই স্টেশন সমৃদ্ধ হয়েছে গান্ধীজি, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, বাঘাযতীন, মার্ক টোয়েনের মতো বরেণ্য ব্যক্তিদের পদধূলিতে। এহেন একটি গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক স্টেশন ক্রমশ ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। এখন টয় ট্রেনও এই স্টেশনে দাঁড়ায় না। টাউন স্টেশনের প্রতি এই অবহেলার জন্য নাম না করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন শিলিগুড়ি পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান গৌতম দেব। এদিন তিনি বলেন,  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী থাকাকালীন এই হেরিটেজ শিলিগুড়ি টাউন স্টেশনে গরিমা ফেরানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন। এনজেপি স্টেশনে এসকেলেটর বসানোর উদ্যোগ তিনিই নিয়েছিলেন। এনজেপির সঙ্গে শিলিগুড়ি জংশনকে বাণিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গিতে আকর্ষণীয়ভাবে সাজিয়ে তোলা, উত্তরবঙ্গের ট্রেনের সংখ্যা বৃদ্ধি, রেলের অব্যবহৃত জমিকে বাণিজ্যিকস্বার্থে ব্যবহার করে কর্মসংস্থানের উদ্যোগও নিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু, তৃণমূল রেলমন্ত্রক থেকে সরে আসার পর রেলকে ভিত্তি করে উত্তরবঙ্গের উন্নয়ন স্তব্ধ হয়ে গিয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গৃহীত প্রকল্পগুলি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার আর কোনও উদ্যোগ নেয়নি। শিলিগুড়ি টাউন স্টেশনের ঐতিহাসিক স্মৃতি ও গুরুত্ব ধরে রেখে সুন্দর করে সাজিয়ে পর্যটকদের কাছে দ্রষ্টব্য স্থান করে তোলার উদ্যোগ রেলমন্ত্রী হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিয়েছিলেন। কিন্তু, গত ১০ বছরে সব চাপা পড়ে গিয়েছে। 
সোমবার বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে টাউন স্টেশনে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল অ্যাসোসিয়েশন অব কনজারভেশন অ্যান্ড ট্যুরিজম। অবহেলিত, পরিত্যক্ত শিলিগুড়ি টাউন স্টেশন চত্বর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজনে প্রাণ ফিরে পেয়েছিল। আয়োজকদের  বিশেষ অনুরোধে এনজেপি থেকে  দার্জিলিংগামী টয় ট্রেন এক মিনিটের জন্য স্টপ দেওয়া হয়। টয় ট্রেনের যাত্রীদের সংগঠনের পক্ষ থেকে খাদা পরিয়ে স্বাগত জানানো হয়। 
অনুষ্ঠানে শিলিগুড়ি পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান টাউন স্টেশনকে উপেক্ষা করা নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেন। তিনি তাঁর যৌবনের সঙ্গে টাউন স্টেশনে স্মৃতি রোমন্থন করেন। তিনি বলেন, শিলিগুড়ির এই সম্পদ কোনওভাবেই নষ্ট হতে দেওয়া যাবে না। এই সম্পদ বাঁচানোর জন্য যদি সংস্কার এবং এর সামনের রাস্তা সুন্দর করে সাজিয়ে তোলার কাজে রেল সহযোগিতা চায় তাহলে আমি এসজেডিএ’র মাধ্যমে এই কাজ করার উদ্যোগ নেব। গৌতমবাবুর প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছে রেল। এদিন বিকেলে এনজেপিতে এডিআরএম সঞ্জয় চিলওয়ারওয়ার বলেন, গৌতম দেবের প্রস্তাবকে আমরা স্বাগত জানাচ্ছি। এ ব্যাপারে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে। 

28th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021