বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিদেশ
 

বিধি-নিষেধের গেরোয় পড়ে ব্রিটেন থেকে
কলকাতা ফিরতে পারছেন না বহু ভারতীয়

রূপাঞ্জনা দত্ত, লন্ডন: ওমিক্রন সংক্রমণে লাগাম টানতে সফর-নীতিতে বদল আনা হয়েছে। বাতিল সরাসরি আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা। অন্তর্দেশীয় উড়ান পরিষেবাও অনিয়মিত। এই পরিস্থিতিতে কলকাতায় ফিরতে না পেরে সমস্যায় পড়েছেন ব্রিটেনে বসবাসকারী বহু ভারতীয়। টিকিট বাতিল ও রিসেডিউলের জন্য ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন তাঁরা। সেইসঙ্গে দীর্ঘদিন দেশের বাড়ি ফিরতে না পেরে চরম মানসিক দুশ্চিন্তায় রমিতা, অরিজিৎরা।
ব্রিটেন-কলকাতা সরাসরি ফ্লাইট বাতিল করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। পাশাপাশি, দেশের বড় শহর থেকে আসা বিমানের সংখ্যাও কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার জেরেই ভারত ও ব্রিটেনের বহু যাত্রী সমস্যায় পড়েছেন। তেমনই একজন হলেন, চিগওয়েলের বাসিন্দা পূর্বা ওয়াদেদার। তাঁর বৃদ্ধ ও রোগাক্রান্ত বাবা-মাকে দেখতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু, নয়া ট্রাভেল-নীতিতে বাতিল হয়েছে পূর্বার টিকিট। তাঁর কথায়, ‘গত নভেম্বরে আমি ওসিআই কার্ড পেয়েছি। কাজের চাপের জন্য ডিসেম্বরে যেতে পারিনি। আমার বাবা-মা অশীতিপর। তাঁরা সল্টলেকে থাকেন। তাঁদের দেখভালের কেয়ারটেকার দুর্ঘটনায় অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। সেইমতো আমি ১৫ জানুয়ারি রওনা হওয়ার জন্য নভেম্বরেই টিকিট কেটে রাখি। কিন্তু, কলকাতায় করোনা সংক্রমণ বাড়তেই এয়ার ইন্ডিয়ার ডিরেক্ট ফ্লাইট বাতিল হয়ে যায়। ভায়া দিল্লি বা মুম্বই টিকিট বিমানের টিকিট পাইনি। ২০১৭ সালে আমার বাবা ক্যান্সার অপারেশন হয়। মা’র স্ট্রোক। এই অবস্থায় আমার সেখানে যাওয়া খুব জরুরি ছিল।
ওইম্বলির রমিতা ঘোষেরও একই অবস্থা। বাবা-মা অসুস্থ। সঙ্গে ফেব্রুয়ারিতে বোনের বিয়ে। তাই তাঁর কলকাতা যাওয়া দরকার ছিল। কিন্তু, করোনা পরিস্থিতিতে তিনি ফেঁসে গিয়েছেন। রমিতার কথায়, এয়ার ইন্ডিয়ার সরাসরি ফ্লাইট বাতিল হওয়ার পর বহু কষ্টে সেই টিকিট ভায়া দিল্লি রিসেডিউল করি। কিন্তু, কলকাতায় অন্তর্দেশীয় বিমান ওঠানামায় বিধি-নিষেধ জারি হতেই সেটাও বাতিল হয়ে গিয়েছে। এই সফরের জন্য আমাদের তিনবার করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। সেইসঙ্গে নেগেটিভ হলেও কমপক্ষে এক সপ্তাহ আইসোলেশনে থাকতে হবে। এর থেকে সরকার আন্তর্জাতিক যাত্রীদের জন্য বুস্টার ডোজ আবশ্যিক করে দিতে পারত। এখন সমস্ত উড়ান বাতিল হতেই আমরা আতান্তরে পড়েছি। যাতায়াতে বিধি-নিষেধ জারি হলেও বিভিন্ন জমায়েতে ভিড় নিয়ে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন রমিতা। তিনি বলেন, ভারতীয়রা যখন গোয়া, উদয়পুরে ছুটি কাটাতে যাচ্ছেন, সেখানে কোনও নিয়ম নেই। অথচ, আমরা পরিবারের সদস্যদের দেখতে যেতে পারছি না। এটা অত্যন্ত লজ্জাজনক।
এই পরিস্থিতিতে পরিবারের সঙ্গে কলকাতা যেতে প্রায় ২০০০ পাউন্ড খরচ করে ফেলেছেন অরিজিৎ দত্ত। কিন্তু, ফ্লাইটের সূচি বদল এবং বিধি-নিষেধের গেরোয় টিকিট বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন। গত বছর যখন তিনি কলকাতা যাওয়ার জন্য ভায়া দিল্লি টিকিট কেটেছিলেন, তখন করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন ছিল না। আর এখন দিল্লিতে টেস্ট আবশ্যিক হওয়ায় ফ্লাইট রিসেডিউল করতে হয়েছে। কিন্তু, পশ্চিমবঙ্গ সরকার দিল্লি-কলকাতা বিমান পরিষেবায় বিধি-নিষেধ আরোপ করতেই আমার সফর অনিশ্চিত হয়ে যায়। করোনা পরীক্ষা ও তার রিপোর্টের জন্য আমার বহু সময় নষ্ট হবে। সফরের অর্ধেক সময় কোয়ারেন্টাইনেই চলে যাবে। তাই একরাশ হতাশা নিয়ে টিকিট বাতিল করতে বাধ্য হই।

14th     January,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ