বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিদেশ
 

বিশ্বে প্রথম! শূকরের হৃৎপিণ্ড
মানুষের দেহে প্রতিস্থাপন

বাল্টিমোর (আমেরিকা): চিকিৎসা বিজ্ঞানে বিরলতম অস্ত্রোপচার। শূকরের হৃৎপিণ্ড প্রতিস্থাপন করা হল মানব দেহে। যদি তা শেষ পর্যন্ত সফল হয়, অঙ্গ প্রতিস্থাপনের নতুন দিগন্ত খুলে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকরা। আমেরিকার মেরিল্যান্ড হাসপাতালে শুক্রবার বিরল এই অস্ত্রোপচারটি হয়। প্রায় সাত ঘণ্টা চলে অস্ত্রোপচার। সোমবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তিন দিন পরে কিছুটা সুস্থ হয়েছেন রোগী। তবে চূড়ান্ত কিছু এখনই বলা সম্ভব নয়। রোগীকে পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে। গোটা অস্ত্রোপচারটিকে মানব সভ্যতার সাফল্য বলেই দাবি করেছেন বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ দেবী শেঠি। তিনি বলেন, ‘যদি এক্ষেত্রে আদর্শ পদ্ধতি মেনে ইতিবাচক ফল পাওয়া যায়, সেক্ষেত্রে আমরা সত্যি সত্যি এই প্রজন্মের অন্যতম বড় সমস্যাকে জয় করতে পারব। এই অস্ত্রোপচারটি আগামী দিনে আদর্শ পদ্ধতি হিসেবে বিবেচিত হবে বলে আমি আশাবাদী। ভারত সরকারের উচিত এই প্রযুক্তি নিয়ে চর্চা করা।’
ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ড মেডিক্যাল সেন্টারের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, জিনগত বদল ঘটানো কোনও প্রাণীর দেহ থেকে অঙ্গ প্রতিস্থাপন করলে তা বেশ কিছু দিন কার্যকর থাকে মানব দেহে। এক্ষেত্রেও তাই করা হয়েছিল। জিনগত বদল ঘটানো একটি শূকরের হৃৎপিণ্ড ব্যবহার করা হয়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ৫৭ বছরের ডেভিড বেনেটের বাঁচার আশা প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলেন তাঁরা। কারণ তাঁর দেহে মানুষের হৃৎপিণ্ড প্রতিস্থাপন করা যাচ্ছিল না। বাধ্য হয়ে চিকিৎসকরা শূকরের হৃৎপিণ্ড প্রতিস্থাপনের সিদ্ধান্ত নেন। বেনেট নিজেও জানেন, পরীক্ষামূলক এই অস্ত্রোপচার সফল না হলে তিনি মারা যাবেন। কিন্তু ঝুঁকি নেওয়া ছাড়া কোনও উপায় ছিল না বলে জানিয়েছেন বেনেটের ছেলে। অস্ত্রোপচারের একদিন আগে হাসপাতালের বেডে শুয়ে বেনেট বলেন, ‘হয় মরতে হবে নয় শূকরের হৃৎপিণ্ড বসাতে হবে। এছাড়া বিকল্প ছিল না। আমি বাঁচতে চাই। আমি জানি এটা অন্ধকারে গুলি ছোড়া। কিন্তু কোনও উপায় নেই।’
চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, সোমবার থেকে নিজেই শ্বাস নিচ্ছেন রোগী। তবে নতুন হৃৎপিণ্ডকে সাপোর্ট দেওয়ার জন্য একটা যন্ত্র লাগানো রয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহ বেনেটের জন্য খুবই ঝুঁকির। কারণ হৃৎপিণ্ডটি কতদিন কার্যকর থাকবে তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন চিকিৎসকরা। তাই বেনেটকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। যদি এই এক্সপেরিমেন্ট সফল হয়, সেটা হবে ঐতিহাসিক ঘটনা। কারণ মানব দেহে প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনের তুলনায় অঙ্গের জোগান খুবই কম। এই পরীক্ষা সফল হলে তা চিকিৎসা বিজ্ঞানের অন্যতম বড় সাফল্য। 

12th     January,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ