বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিদেশ
 

‘ভারতীয় মেধায় উপকৃত হচ্ছে আমেরিকা’
পরাগকে স্বাগত জানালেন মাস্ক

নয়াদিল্লি: টুইটারের সিইও পদে এসেছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত পরাগ আগরওয়াল। সহকর্মীকে আগেই যোগ্য উত্তরসূরি বলে সিলমোহর দিয়েছেন টুইটারের প্রাক্তন চিফ এগজিকিউটিভ প্রধান জ্যাক ডরসে। এবার বম্বে আইআইটির এই প্রাক্তনীর হয়ে জোর সওয়াল করলেন স্পেসএক্সের কর্ণধার এলন মাস্ক। মাইক্রোব্লগিং সাইটে টেসলা প্রধানের খোলামেলা মন্তব্য, ‘ভারতীয় মেধা থেকে আমেরিকা ব্যাপকভাবে উপকৃত হচ্ছে।’ বাল্যবন্ধু পরাগকে অভিনন্দন জানিয়েছেন গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল। তাঁর টুইট, ‘ভীষণ গর্ব হচ্ছে তোর জন্য।’
মেয়াদ ফুরনোর আগে সিইও পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর উত্তরসূরি হিসেবে পরাগের নাম ঘোষণা করেছিলেন জ্যাক। তারপরেই গুগলের মূল সংস্থা অ্যালফাবেট সিইও সুন্দর পিচাই, মাইক্রোসফট সিইও সত্য নাদেলাদের সঙ্গে এক সারিতে চলে আসেন ৩৭ বছর বয়সি পরাগ। এ প্রসঙ্গে আন্তর্জাতিক আর্থিক পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা ‘স্ট্রাইপ’-এর সিইও প্যাট্রিক কলিসন টুইটারে লেখেন, মাইক্রোসফট, গুগল, আইবিএমের মতো প্রথম সারির সংস্থাগুলির সিইও পদে রাজ করছেন ভারতীয়রা। তথ্যপ্রযুক্তি জগতে ভারতীয়দের এই সাফল্য দেখে বিস্মিত। সেইসঙ্গে এটাও মনে করিয়ে দিচ্ছে, আমেরিকা অভিভাসীদের কত সুযোগই না দিচ্ছে। এই টুইটের সঙ্গে সহমত নয় জানিয়ে এলন মাস্ক লেখেন, ‘ভারতীয় মেধার থেকে আমেরিকা প্রভূত উপকৃত হচ্ছে!’
এদিকে, টুইটারের সিইও পদে বসতে না বসতে পুরনো একটি টুইটের জেরে ট্রোলের শিকার হয়েছেন পরাগ। জড়িয়েছেন বিতর্কে। ২০১০ সালের ২৬ অক্টোবর পরাগ ওই টুইটি করেন। ১১ বছর বাদে নেটিজেনরা সেই টুইট খুঁজে বের করে তাঁকে টার্গেট করেন। তাঁদের দাবি, ওই টুইটে পরাগের বর্ণবিদ্বেষী মনোভাব ফুটে উঠেছে। ঠিক কী লিখেছিলেন তিনি? পরাগ লেখেন, ওরা মুসলমান ও সন্ত্রাসবাদীদের মধ্যে বিভাজন না করলে আমিই বা কেন শ্বেতাঙ্গ লোকজন ও বর্ণবিদ্বেষীদের আলাদা করে দেখব? যদিও, এই টুইটটি করার সময় তিনি টুইটারের কর্মী ছিলেন না। পরাগ তখন স্ট্যানফোর্ডের ছাত্র।    
এরপরেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, এমন মনোভাব নিয়ে ভারতীয় পরাগ বিভিন্ন দেশের মানুষকে নিয়ে তৈরি আন্তর্জাতিক সংস্থার নেতৃত্ব দেবেন কী করে? এমনকী, অনেকে পরাগের ইস্তফাও চেয়েছেন। তবে উত্তরসূরির প্রতি অগাধ আস্থা প্রাক্তন টুইটার সিইও জ্যাকের। তিনি লিখেছেন, ‘বেশ কিছু দিন ধরেই পরাগ আমার অন্যতম পছন্দের সহকর্মী। সাম্প্রতিককালে তিনি এমন বহু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, যা সংস্থাকে ঘুরে দাঁড়াতে সাহায্য করেছে।’ যোগ্য জবাব দিয়েছেন পরাগও। তাঁর কথায়, ‘একজন গুরু হিসেবে যে দায়িত্ব তুমি পালন করে চলেছ, তার জন্য কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।’ পরাগের এই উত্থানে খুশি বম্বে আইআইটির শিক্ষক, গবেষকরা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর সুপ্রতীম বিশ্বাস বলেন, ২০০১ সালে এখানে ভর্তি হন পরাগ এবং ২০০৫ সালে ডিগ্রি পান। আইআইটি বম্বেতে সেরা পড়ুয়ারাই আসেন। আর তাঁদের মধ্যে থেকে সেরা হতে প্রয়োজন বিশেষ মেধার। পরাগ ছিল সেই মেধার অধিকারী।’ 

1st     December,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021