বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
বিদেশ
 

অস্ত্র মাস্ক, বিশ্বে ‘উধাও’
দুই ফ্লু স্ট্রেইন

অভিজিৎ চৌধুরী, চুঁচুড়া: এ যেন ভাইরাস জগতে মাৎস্যন্যায়! বড় ও শক্তিশালী ভাইরাস নিষ্ক্রিয় করে ফেলছে ছোট ও দুর্বল ভাইরাসকে। করোনা ভাইরাসের প্রবল দাপটের পর্বে দেশ তো বটেই, বিশ্ব থেকে আচমকা ‘উধাও’ হয়ে গিয়েছে দু’টি হিউম্যান ফ্লু ভাইরাস স্ট্রেইন। গবেষকদের একাংশের দাবি, ২০২০ সালের মার্চ মাস থেকে এযাবৎ ওই দু’টি ভাইরাসের সংক্রমণ দেখা যায়নি। এমনই তথ্যে নড়েচড়ে বসেছে চিকিৎসক সহ বিশেষজ্ঞ মহল। খুব অপরিচিত ভাইরাস অবশ্য ওই দু’টি নয়। বরং তাদের ‘স্বজাতীয়’ ভাইরাসগুলি নানা সময়ে আমজনতার চোখের জলে, নাকের জলে একাকার হাল করেছে। আকার নিয়েছে মহামারীও। এহেন মৃত্যুদূতেরও ‘যম’ রয়েছে। তার নাম—মাস্ক। বিশেষজ্ঞদের দাবি, করোনা রুখতে মাস্কের ব্যবহারই ওই দুই ভাইরাস স্ট্রেইনকে ‘বাণপ্রস্থে’ পাঠিয়েছে।
‘নিখোঁজ’ ওই ভাইরাস স্ট্রেইন দু’টির ভালো নাম ‘৩সি৩.এ’ এবং ‘বি-ইয়ামাগাতা’। চেনা গেল না বুঝি? স্বাভাবিক! আমবাঙালি তো বটেই, বিশ্ববাসীকে তাদের চেনে ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস স্ট্রেইন নামেই। মরশুমি ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস নানারকমের। সেই রকমারি তালিকা থেকেই দু’টির খোঁজ মিলছে না। সম্প্রতি বিষয়টি প্রকাশ্যে এনেছে আমেরিকার স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবপত্রিকা এসটিএটি। ওই পত্রিকার দাবি, ২০২১ সালের মে মাস পর্যন্ত ওই দু’টি ভাইরাসে কোনও সংক্রমণ নেই পৃথিবীজুড়ে। এমনকী, ইনফ্লুয়েঞ্জা সংক্রমণও অনেক অনেক কম। কেবল কম্বোডিয়া, চীন, বাংলাদেশ ও পশ্চিম আফ্রিকায় কিছু সংক্রমণ দেখা গিয়েছে। এই দাবির স্বপক্ষে তারা হাজির করেছেন বিশ্বজুড়ে ভাইরাস সংক্রমণ, সেগুলির প্রবণতা, মহামারীর উপরে নজরদারি চালানো আর্ন্তজাতিক সংস্থা জাইসেড (জিআইএসএআইডি)-কে। তাদেরই ভাইরাস সংক্রমণ তালিকা দেখাচ্ছে, ‘৩সি৩.এ’ এবং ‘বি-ইয়ামাগাতা’ সংক্রমণ ২০২১ সালের জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহেও নেই! তবে কি ওই দু’টি ভাইরাস বিলুপ্ত হয়ে গেল? এসটিএটি-কে দেওয়া সাক্ষাতকারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ফ্লু বিশেষজ্ঞ রিচার্ড উইবে বলছেন, স্ট্রেইন দু’টি বিলুপ্ত হয়েছে এখনই বলা যাবে না। তবে ফ্লু ভাইরাসের বিশাল ভাণ্ডার কমছে।
কেন সংক্রমণ ঘটাচ্ছে না ওই দুই ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস স্ট্রেইন? সেখানেই মজা—করোনা ভাইরাসের জন্য। আসলে করোনা সংক্রমণের জন্য আমজনতার মধ্যে মাস্ক ব্যবহারের প্রবণতা অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। সেই সঙ্গে সামাজিক দূরত্ব, লকডাউনও ওই ভাইরাসদের ছড়াতে দেয়নি। ওই দু’টি স্ট্রেইনে পড়ুয়াদের আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা সবচেয়ে বেশি। দীর্ঘদিন ধরে স্কুল বন্ধ থাকায় তারাও ওই ভাইরাসের কবলের বাইরে। এস এস কে এম হাসপাতালের ফার্মাকোলজি বিভাগের অধ্যাপক চিকিৎসক সুবীর সরকার বলেন, ওই ভাইরাসও হাঁচি, কাশি থেকেই ছড়ায়। সে সম্ভাবনা বন্ধ করে দিয়েছে মাস্ক। আর আমবাঙালিকে মাস্ক পড়ালো কে? এক ও অদ্বিতীয় করোনা। দুই পরিচিত ভাইরাস স্ট্রেইন বিলুপ্ত হয়ে আরও একটি শিক্ষা বোধহয় দিয়ে গেল—ভবিষ্যতেও ‘মাস্ক হ্যায় জরুরি’। 

12th     June,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
দেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021