বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

বিজেপি প্রার্থী ‘মহারানি’ সত্যিই কৃতী! 

রাহুল চক্রবর্তী, আমবাসা : বিজেপির ফটিক রায় মণ্ডলের উদ্যোগে এক সাংগঠনিক বৈঠক চলছিল। সাদা সালোয়ার কামিজ, পায়ে কালো স্নিকার, গলায় গেরুয়া উত্তরীয় ঝুলিয়ে হাজির হলেন বছর ৫২’র এক গৃহবধূ। থোকা থোকা গাঁদা ফুলের পাপড়ি তখন দু পাশ থেকে ছুটে আসছে তাঁর দিকে। বৈঠকের জন্য তৈরি মঞ্চের মধ্যস্থানে বসলেন তিনি। মাথার উপর লেখা ব্যানারে জ্বলজ্বল করছে, ‘মহারানি কৃতীদেবী দেববর্মন’। তিনিই এবার ত্রিপুরা পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী। সাত সকালে প্রার্থীর সমর্থনে প্রচারে ত্রিপুরা সরকারের তফসিলি উন্নয়ন বিভাগের মন্ত্রী বিকাশ দেববর্মা বলেই ফেললেন, এই কেন্দ্রে আদতে প্রার্থী কিন্তু তিপ্রামথা’র। প্রতীক শুধু বিজেপির। বিজেপির সঙ্গে এই ‘গাঁটছড়া’ কিছুদিন আগেই বেঁধেছে তিপ্রামথা। সেই সূত্রেই তফসিলি জাতিভুক্ত ত্রিপুরা পূর্ব আসনে এমন অঙ্ক কষেই প্রার্থী দিয়েছে দু’পক্ষ। রিয়াং, দেববর্মা, জামাতিয়া, চাকমা, তিপ্রা সহ একাধিক জনজাতি গোষ্ঠীর বসবাস ত্রিপুরা পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রের অধীন ৩০টি বিধানসভায়। জনজাতির ভোট বাক্সে আসবে, এইরকম একটা অঙ্ক কষেই প্রার্থী বাছাই। আগামী ২৬ এপ্রিল এই কেন্দ্রে ভোট। 
তিপ্রামথা ও বিজেপির তরফে এই ধারণা তৈরি করা হয়েছে, প্রার্থী রাজ পরিবারের সদস্য তাই ‘মহারানি’। কৃতীদেবীর জন্ম শিলংয়ে। তাঁর বাবা মহারাজা বিক্রম কিশোর মানিক্য দেববর্মা। ভাই তিপ্রামথার প্রতিষ্ঠাতা প্রদ্যোত কিশোর মানিক্য দেববর্মা। কৃতীর বিয়ে হয়েছে ছত্তিশগড়ের কাওয়ার্ধা রাজ পরিবারের। তাঁর স্বামী যোগেশ্বর রাজ সিং, প্রাক্তন কংগ্রেস বিধায়ক। ১৯৯৮ এবং ২০০৩ সালে যোগেশ্বর রাজ সিং কংগ্রেসের টিকিটে কাওয়ার্ধা বিধানসভা কেন্দ্র থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন। হারিয়েছিলেন বিজেপি প্রার্থী রমন সিংকে। সেই যোগেশ্বর রাজ সিং’এর স্ত্রী কৃতী এবার বিজেপির প্রতীকে লড়ছেন।
কংগ্রেস অভিযোগ করেছে, বিজেপি প্রার্থীর পদবি নিয়ে বিভ্রাট রয়েছে। বিয়ের পর ছত্রিশগড়ের রাজ পরিবারে গিয়ে তাঁর পদবি এখন সিং। সেখানকার কাওয়ার্ধা বিধানসভা আসনের ভোটার তালিকাতেও কৃতীদেবীর পদবি সিং’ই রয়েছে। তাহলে ত্রিপুরায় প্রার্থী হয়ে কী করে সেই সিং পদবী দেব বর্মন হয়ে গেল? কংগ্রেস নেতা সুদীপ রায় বর্মন বলেছেন, আমরা তো প্রার্থীর নাম ও পদবি দেখে অভিযোগ করেছিলাম। নির্বাচন কমিশন এখন বিজেপির অঙ্গুলিহিলনে চলছে। তাই কিছু হয়নি।
অভিযোগটা শুনে রেগে গেলেন কৃতিদেবীর ভাই প্রদ্যোত কিশোর মানিক্য দেববর্মা। খোঁচা দিতে ছাড়েননি সোনিয়া-রাহুলের নাম টেনে। বললেন, জওহরলাল নেহরুর পরিবারের সদস্য সোনিয়া গান্ধী। আসলে কংগ্রেস নেতারা জানেন না, ভারতীয় সংস্কৃতিতে স্ত্রীর বিবাহের পর স্বামীর পদবী থেকেই তাঁর পরিচয় হয়। সঙ্গে থাকে বাবার‌ বাড়ির পরিচয়। তবে উপাধি নিয়ে বিভ্রান্তি কিন্তু থেকেই গিয়েছে। কৃতীদেবী নির্বাচন কমিশনে যে হলফনামা জমা দিয়েছেন, তাতে কোথাও নামের সঙ্গে সিং পদবি নেই। সেখানে তাঁর নাম কৃতীদেবী দেববর্মণ। দিদির হয়ে ভোট প্রচারে নেমেছেন ভাই প্রদ্যোত। এমনকী ছত্তিশগড় থেকে উড়ে এসেছেন স্বামী যোগেশ্বর সিংও। এমনটাও শোনা যাচ্ছে, ত্রিপুরার জনজাতির ভাষা ককবরক’টাই জানেন না কৃতী। হিন্দি আর ইংরেজিতে কথা বলেন। এহেন কৃতীর বিরুদ্ধে কংগ্রেস সমর্থিত সিপিএম প্রার্থী রাজেন্দ্র রিয়াং। তফসিলি আদিবাসী উন্নয়ন তাঁর মূল লক্ষ্য। তিপ্রামথার সঙ্গে বিজেপির এই গাঁটছড়াকে অনেকেই ভালোভাবে নিচ্ছেন না। পাহাড়ি এলাকার একাধিক জায়গা জুড়ে আলোচনা এখন একটাই! ভোটের পর ‘মহারানি’ থাকবেন কোথায়? ছত্তিশগড় নাকি আগরতলা! 

14th     April,   2024
 
 
অক্ষয় তৃতীয়া ১৪৩১
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ