বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

‘কে এই এসপি’, গেহলটের গোপন নোট
উল্লেখ করে কংগ্রেসকে খোঁচা বিজেপির
বিরোধী দলনেতার পদ ছাড়লেন খাড়্গে

নয়াদিল্লি: ‘এসপি দল ছেড়ে দেবে’। গোপন নথিতে ছোট্ট একটি নোট। শনিবার রাজনৈতিক মহলে ঝড় তুলেছে চার শব্দের এই বাক্যই। বিজেপি প্রশ্ন তুলেছে, কে এই ‘এসপি’? হঠাত্ই শুরু হওয়া এই বিতর্কের সূত্রপাত রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট ও কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর বৈঠকের পর। সেই বৈঠকে একটি কাগজ নিয়ে ঢুকেছিলেন গেহলট। তাতেই  ইংরেজিতে ওই বাক্যটি লেখা ছিল। এক চিত্রসাংবাদিকের ক্যামেরায় ধরা পড়েছে গোপন নোটের কিছু অংশ। তারপরই শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। 
ঠিক কী লেখা ছিল সেখানে? দেখা যাচ্ছে, পয়েন্ট করে কয়েকটি বিষয় কাগজে লিখে এনেছেন গেহলট। একটিতে রয়েছে, এসপি দল ছেড়ে দেবে। পর্যবেক্ষকরা আগে এই নিয়ে রিপোর্ট দিলে ভালো হতো। আর একটিতে লেখা রয়েছে, প্রথম রাজ্য সভাপতি যিনি সরকার ফেলে দেওয়ার সমস্ত রকম চেষ্টা করেছিলেন। তৃতীয় নোটটিতে লেখা, ১০২ বনাম এসপি  ১৮। ফাঁস হওয়া এই গোপন নোটকে হাতিয়ার করে কংগ্রেসকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছে বিজেপি। দলের মুখপাত্র শেহজাদ পুনাওয়ালা টুইটারে এক স্ক্রিনশট শেয়ার করেছেন। সেইসঙ্গে তাঁর প্রশ্ন, গেহলটের গোপন নোটে উল্লেখ করা ‘এসপি’ কে? 
উল্লেখ্য, গেহলট শিবির বরাবরই দাবি করে রাজস্থানে নিজেদের সরকার ফেলে দেওয়ার চেষ্টার জন্য বিপক্ষ শিবিরের নেতা শচীন পাইলটের দিকে আঙুল তোলে।  ২০২০ সালে পাইলট যখন গেহলটের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিলেন, তখন তাঁর পক্ষে ছিল ১৮ বিধায়কের সমর্থন। গেহলট শিবিরের ছিল ১০২ জনের সমর্থন। গেহলটের গোপন নোট তুলে ধরে বিজেপি রাজস্থান কংগ্রেসের সেই গোষ্ঠী দ্বন্দ্বকে খোঁচা দিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। গোপন নোটে ‘এসপি’ বলতে পাইলটকেই বোঝানো হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।
এদিকে, কংগ্রেস সভাপতির লড়াই থেকে গেহলট সরে যাওয়ায় লড়াই এখন দ্বিমুখী। একদিকে, গান্ধী পরিবারের আস্থাভাজন মল্লিকার্জুন খাড়্গে। অন্যদিকে, সাংসদ শশী থারুর। এআইসিসি পক্ষ থেকে তা স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে। তারপরই টুইট করে থারুর জানিয়েছেন, এই গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া ফলে দল ও আমাদের সহকর্মীরা উপকৃত হবেন বলে আশাবাদী। খাড়্গেকে ‘কংগ্রেসের ভীষ্ম পিতামহ’ সম্বোধন করেছেন তিরুবনন্তপুরমের সাংসদ। তাঁর কথায়, আমরা একে অন্যের শত্রু নই। সহকর্মী। এদিন সভাপতি পদে মনোনয়ন জমা দেওয়ার পরই রাজ্যসভার বিরোধী দলনেতার পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন খাড়্গে। দলীয় সূত্রে খবর, উদয়পুরের চিন্তন শিবিরে ‘এক ব্যক্তি, এক পদে’ সিলমোহর দিয়েছিল কংগ্রেস নেতৃত্ব। সেই সিদ্ধান্ত মতো পদক্ষেপ নিয়েছেন এই বর্ষীয়ান নেতা।
 

2nd     October,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ