বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

কেদারনাথ মন্দিরে ভক্তদের ভিড়। বৃহস্পতিবার পিটিআইয়ের তোলা ছবি। 

মোদির ভাষণের সময় বিদ্যুৎ কেন্দ্রে
নাশকতার ছক খলিস্তানি জঙ্গিদের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: স্বাধীনতার ৭৫ বর্ষ পূর্তি উৎসবকে বানচাল করতে মরিয়া খলিস্তানী জঙ্গি সংগঠন শিখ ফর জাস্টিস (এসএফজে)। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভাষণ চলাকালীন তারা গোটা দেশকে অন্ধকারে ডুবিয়ে দিতে চাইছে। সূত্রের খবর, বিদ্যুৎ কেন্দ্রে হামলার ছক কষেছে এই সংগঠন। পাশাপাশি বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলিতে যাতে কয়লা পৌঁছতে না পারে, সেকারণে রেললাইনে নাশকতার পরিকল্পনাও রয়েছে তাদের। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের কাছে এই বার্তা আসার পর দেশজুড়ে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।
এই জঙ্গি সংগঠন অনেকদিন ধরেই নাশকতার ছক কষছে। কানাডায় বসে গোটা অপারেশনের পরিকল্পনা চলছে। একইসঙ্গে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট মারফত সদস্য জোগাড় করা হচ্ছে। তাদের মূল লক্ষ্য, পাঞ্জাব সহ দেশজুড়ে নাশকতা ঘটানো। এসএফজে’কে মদত দিচ্ছে লস্কর ই তৈবার মতো জঙ্গি সংগঠন। জানা গিয়েছে, তাদের শীর্ষনেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছে এসএফজে’র শীর্ষ নেতৃত্ব। লস্করের সদস্যরাই তাদের অস্ত্র ও বিস্ফোরক সরবরাহ করছে। খলিস্তানপন্থী এই জঙ্গি সংগঠনকে নিয়ে উদ্বিগ্ন এনআইএ সহ বিভিন্ন এজেন্সি। কয়েকদিন আগে লুধিয়ানা আদালতে বিস্ফোরণের ঘটনায় এসএফজে’র অন্যতম মাথা ধরা পড়ে জার্মানিতে।
জানা যায়, এই সংগঠনের শীর্ষ নেতারা পাঞ্জাব, হরিয়ানায় অনেকের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলছে। তাদের ফোন নম্বর হাতে আসে তদন্তকারীদের। সেইসব ফোনে আড়ি পেতে তদন্তকারীরা জানতে পারেন, স্বাধীনতার ৭৫ বছরের উৎসবকে বানচাল করতে তারা মরিয়া। আসলে সংবাদ শিরোনামে আসার জন্যই এই পরিকল্পনা তাদের।
গোয়েন্দারা এসএফজে’র বিভিন্ন কোড ল্যাঙ্গুয়েজ ডিকোড করে জেনেছেন, নতুন পদ্ধতিতে তারা নাশকতার ছক কষছে। অপারেশনের নাম দিয়েছে ‘ব্লক কোল সাপ্লাই’। তাদের মূল লক্ষ্য বিদ্যুৎ কেন্দ্র। বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে গোটা দেশকে অন্ধকারে ডুবিয়ে দিতে চায় তারা। তাদের তালিকায় রয়েছে এ রাজ্যের সাগরদিঘি পাওয়ার প্লান্টও। এছাড়াও গুজরাতের তিনটি, মহারাষ্ট্র ও মুম্বইয়ের দু’টি, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, ঝাড়খণ্ড, হরিয়ানা ও ছত্তিশগড়ের একটি করে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র রয়েছে। তারা দু’ভাবে হামলার ছক কষছে। এক, এসএফজে’র সদস্যরা গোটা কেন্দ্র উড়িয়ে দিতে পারে। অন্যটি হল, তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের সার্ভারে ঢুকে গোটা সিস্টেমকে হ্যাক করা। পাশাপাশি যে সব রুট দিয়ে বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লা আসে, সেই রুটগুলিকে ব্লক করা বা রেললাইন উড়িয়ে দেওয়া।
এই পরিকল্পনা জানার পর নড়েচড়ে বসেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। সব তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভিতরে ও বাইরে নিরাপত্তা দ্বিগুণ করা হয়েছে। পাশাপাশি রেললাইন সুরক্ষায় বাড়তি আরপিএফ মোতায়েন করা হয়েছে।

15th     August,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ