বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

জুলাইয়ের মধ্যেই যাত্রা শুরু করছে নয়া বিমান সংস্থা আকাশ এয়ার। সেজন্য আমেরিকার পোর্টল্যান্ড থেকে আসছে বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স বিমান। -পিটিআই

সাধারণতন্ত্র দিবসে নাশকতা
রুখতে কড়া নজরে ‘গাইড’রা 
কাশ্মীর সীমান্তে ১৩৫ জঙ্গি

বিশেষ সংবাদদাতা, শ্রীনগর: রাত পোহালেই সাধারণতন্ত্র দিবস। কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী—প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে। তার ঠিক আগেই দেশবাসীর উৎকণ্ঠা বাড়িয়ে জঙ্গি নাশকতার সতর্কবার্তা গোয়েন্দাদের! জম্মু ও কাশ্মীর সীমান্তের নাকের ডগায় ওঁত পেতে রয়েছে প্রায় ১৩৫ জন পাক জঙ্গি। একাধিক দলে ভাগ হয়ে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায়। উপত্যকায় বিক্ষিপ্ত হামলা চালিয়ে সাধারণতন্ত্র দিবসের যাবতীয় অনুষ্ঠান বানচাল করাই তাদের মূল লক্ষ্য। এমন গোয়েন্দা রিপোর্ট পেয়েই ঘুম ছুটেছে কেন্দ্রের। সীমান্তে সজাগ বিএসএফও। সোমবার শ্রীনগরে বিএসএফের বার্ষিক সম্মেলনে আইজি (কাশ্মীর ফ্রন্টিয়ার) রাজা বাবু সিং বলেছেন, ‘সব ধরনের প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুত।’  সূত্রের খবর, দেশের একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা জঙ্গি নাশকতা নিয়ে সতর্ক করেছে। তাদের মধ্যে আইবি রিপোর্টকে উল্লেখ করে এদিন জম্মু ও কাশ্মীর পুলিসের আইজি (জম্মু রেঞ্জ) ডি কে বোরাও জানিয়েছেন, উপত্যকায় অশান্তি পাকানোর ছক করছে জঙ্গিরা। তাদের সঙ্গে জোট বেঁধেছে স্থানীয় কিছু দেশবিরোধী শক্তি। যাদের একটা বড় অংশের ঘাড়ে জঙ্গিদের ‘গাইড’ করার দায়িত্ব পড়েছে। সীমান্ত টপকে তারা পৌঁছে গিয়েছে ওপারে। জঙ্গিদের পথ চিনিয়ে নিয়ে আসার পরই তাদের কাজ হাসিল। বোরা বলেছেন, ‘সেনা, বিএসএফ এবং পুলিস সমন্বয় রেখে সীমান্তের নিরাপত্তা তদারকি করছে। নাশকতা রুখতে আমরা বদ্ধপরিকর।’ 
উপত্যকায় বেশ কিছুদিন ধরেই জঙ্গিরা তৎপর। বিশেষত, আফগানিস্তানে তালিবানি শাসন কায়েম হতেই পাক জঙ্গি সংগঠনগুলি ভারতবিরোধী কার্যকলাপে তেড়েফুঁড়ে ওঠে। মাস দু’য়েক আগে গোয়েন্দারা জানিয়েছিলেন, আফগানিস্তান থেকে জঙ্গিদের একটি দল পাক অধিকৃত কাশ্মীরে প্রবেশ করেছে। বিভিন্ন শিবিরে প্রশিক্ষণ চলছে তাদের। প্রশিক্ষণ শেষে পাঠানো হবে ভারতে। শনিবার আবার সাম্বা সেক্টরে পাকিস্তানের জাতীয় পতাকা ঝোলানো থাকতে দেখেন বাসিন্দারা। তাতে চারটি হোয়াটসঅ্যাপ নম্বর লেখা ছিল। সেগুলি পাকিস্তানের। এর ঠিক পরেই কেন্দ্রের হাতে আসে গোয়েন্দাদের উদ্বেগজনক রিপোর্ট। 
মূলত, ওই রিপোর্টকে সামনে রেখেই উপত্যকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা ঢেলে সাজিয়েছে সেনা, বিএসএফ এবং জম্মু ও কাশ্মীর পুলিস। বিএসএফের আইজি জানিয়েছেন, জঙ্গি অনুপ্রবেশ রুখতে এই মুহূর্তে বাহিনীর মূল টার্গেট ‘গাইড’রা। সেই মতো তাদের গতিবিধি ট্র্যাক করা হচ্ছে। এমনকী ‘গাইড’দের পরিবারও রয়েছে নজরে। নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর বাড়ানো হয়েছে জওয়ানদের টহলদারি। প্রতিটি সুড়ঙ্গে মোতায়েন করা হয়েছে বাড়তি সশস্ত্র বাহিনী। আকাশ পথে ড্রোন-হামলার মোকাবিলায়ও তৈরি সেনা। আইজি বলেছেন, ‘আমাদের ড্রোন ঠেকানোর প্রযুক্তি যথেষ্ট শক্তিশালী। সেই প্রযুক্তি ব্যবহারে ধারাবাহিক অনুশীলনও চলে। ফলে সন্দেহজনক ড্রোন ধ্বংস করতে আমরা সক্ষম।’ জম্মু ও কাশ্মীর পুলিসের আইজি (কাশ্মীর রেঞ্জ) বিজয় কুমারের কথায়, ‘সাধারণতন্ত্র দিবসে অশান্তি পাকানোর সব চক্রান্ত ভেস্তে দিতে আমরা তৈরি।’ 

25th     January,   2022
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ