বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

বাহুবলিদের টিকিট ‘না’ দেওয়ার সিদ্ধান্ত
উত্তরপ্রদেশের ভোটে সব দলেরই এক সিদ্ধান্ত

লখনউ: উত্তরপ্রদেশের রাজনীতিতেও নতুন মোড়। দুষ্কৃতীদের দূরে রেখেই ২০২২ সালের বিধানসভা নির্বাচনের ঘুঁটি সাজাচ্ছে সমস্ত রাজনৈতিক দল। দুষ্কৃতীরাজ খতম করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশের ক্ষমতা দখল করে গেরুয়া শিবির। তারপর থেকে দুষ্কৃতীদের খতম করতে একাধিক একাউন্টারের ঘটনা সামনে এসেছে। যা গেরুয়া শাসনের অন্যতম সাফল্য বলে বারবার দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। যদিও তা নিয়ে তুমুল সমালোচনা করেছে বিরোধীরা। অধিকাংশ এনকাউন্টার ফেক বলে দাবি করেছে তারা। সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। জাতপাতের রাজনীতি উত্তরপ্রদেশের রন্ধ্রে রন্ধ্রে। সেইসঙ্গে দুষ্কৃতী রাজও পুরনো ‘পলিটিক্যাল কালচার’। কিন্তু আগামী নির্বাচনে কেউই ‘দাগি’ নেতাদের প্রার্থী করতে চাইছে না। যতই সে প্রভাবশালী হোক। বিজেপি থেকে সপা, বসপা থকে কংগ্রেস—সব শিবিরেরই এক রা। অখিলেশ থেকে মায়াবতী, বাহুবলিদের তালিকায় রেখে লড়াইয়ের ময়দানে নামতে চাইছেন না কেউই। গত সপ্তাহে মহারাজগঞ্জে জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ‘রাজ্যের উন্নয়নের স্বার্থে প্রয়োজন আইনশৃঙ্খলার উন্নতি। সেই কাজ সফলভাবে করেছে প্রশাসন। দুষ্কৃতীরা ঘুমের মধ্যেও যোগীর নাম শুনলে কাঁপতে শুরু করে।’ দুর্বৃত্ত সাফাইয়ে সরকারের ঢালাও সার্টিফিকেট দেন রাজনাথ। 
দুষ্কৃতীদের থেকে নিরাপদ দূরত্ব রেখে চলতে চাইছেন বহুজন সমাজপার্টির নেত্রী মায়াবতীও। কিছু দিন আগেই তিনি জানিয়ে দেন, তাঁর দল জেলবন্দি বিধায়ক মুখতার আনসারিকে আগামী নির্বাচনে টিকিট দেবে না। ট্যুইটারে তাঁর সাফ ঘোষণা, আগামী নির্বাচনে বিএসপি কোনও বাহুবলি বা মাফিয়াকে প্রার্থী করবে না। উল্লেখ্য, পাঁচবারের বিধায়ক মুখতার আনসারির বিরুদ্ধে তোলাবাজি, খুন সহ একাধিক বড়সড় দুষ্কর্মের অভিযোগ রয়েছে। তার বিরুদ্ধে গাজিপুরা মহম্মদাবাদের বিধায়ক কৃষ্ণানন্দ রাইকে খুনের অভিযোগ রয়েছে। ঘটনাটি ২০০৫ সালের। বর্তমানে বান্দা জেলে রয়েছে মুখতার। উত্তরপ্রদেশের রাজনীতিতে আনসারি ভাইদের প্রভাব রয়েছে বরাবরই। বিশেষ করে পূর্ব উত্তরপ্রদেশে মুসলিম ভোটারদের উপর তাঁদের যথেষ্ট প্রভাব রয়েছে। সম্প্রতি জল্পনা উস্কে দিয়ে মুখতার আনসারির দাদা গাজিপুরা মহম্মদাবাদের দু’বারের বিধায়ক শিবগাতুল্লা আনসারি বিএসপি ছেড়ে অখিলেশের দলে যোগ দেন। তবে কি শিবির বদলে ফের লড়াইয়ের ময়দানে নামছে আনসারি ব্রাদার্স? সেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। তবে সমাজবাদী পার্টির মুখপাত্র রাজেন্দ্র চৌধুরী বলেন, ‘সপা কখনও দুষ্কৃতীদের টিকিট দেয় না। আমাদের বিশ্বাস, দুষ্কৃতীরা রাজনীতিতে এলে গণতন্ত্রের ক্ষতি।’ বিজেপি মুখপাত্র হর্ষবর্ধন শ্রীবাস্তব বলেন, কারও নামে মামলা থাকা মানেই তিনি দুষ্কৃতী নন। অনেক সময় রাজনৈতিক কারণে নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। যদিও এবিষয়ে দল সচেতন রয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। তাঁর সাফ কথা, বিজেপি সবসময় রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়নের বিরুদ্ধে। তিনি মনে করিয়ে দেন ২০১৭ সালে বিজেপির স্লোগান ছিল দুষ্কৃতীমুক্ত উত্তরপ্রদেশ।

28th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021