বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

চীনকে চাপে রাখতে ২৪ সেপ্টেম্বর ওয়াশিংটনে
বৈঠকে ভারত, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া ও জাপান

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: চীনের আগ্রাসন প্রতিরোধে চার রাষ্ট্রের নয়া অক্ষ বৈঠকে বসার উদ্যোগ নিল। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর আমেরিকায় ওই বৈঠকেই রণকৌশল চূড়ান্ত হতে পারে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এই বৈঠক ডেকেছেন আফগানিস্তানে তালিবান শাসন কায়েম হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে। ওই বৈঠকে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় মোদির ভাষণ দেওয়ার কথা আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর। ঠিক তার আগের দিন  ওয়াশিংটনে আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, ভারত ও জাপানের বৈঠক হবে আফগানিস্তান ইস্যুতে। এই চার রাষ্ট্র একজোট হয়ে কোয়াড গোষ্ঠী তৈরি করেছে আগেই। 
রাষ্ট্রসঙ্ঘের সাধারণ সভায় প্রধানমন্ত্রীর মোদির ভাষণের প্রাক্কালে কোয়াড গোষ্ঠীর বৈঠক বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ, তালিবানের কাবুল দখলের পর এশিয়ার এই প্রান্তে কূটনৈতিক ও নিরাপত্তাজনিত সমীকরণ সম্পূর্ণ বদলে যাচ্ছে। চীন, ইরান ও পাকিস্তান সর্বাগ্রে ঘোষণা করেছে তালিবানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের কথা। 
রাশিয়াও প্রথমে এই ঘোষণা করেছিল। কিন্তু হঠাৎ ভোলবদলে রাশিয়া সতর্ক মনোভাব নিয়েছে। সম্প্রতি ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে গঠিত পাঁচ রাষ্ট্রের ব্রিকস বৈঠকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন স্পষ্ট বলেন, আফগানিস্তানের গতিপ্রকৃতি কোনদিকে যাচ্ছে, সেটা এখনও বোঝা যাচ্ছে না। তালিবান সরকারের মনোভাবের উপরই নির্ভর করছে আফগানিস্তান সম্পর্কে আন্তর্জাতিক দৃষ্টিভঙ্গি কেমন হবে। অর্থাৎ রাশিয়া প্রাথমিকভাবে চীন, পাকিস্তান, ইরান ও তুরস্কের সুরে তালিবানের পাশে নিঃশর্তভাবে দাঁড়ালেও সুকৌশলে অবস্থান বদলে নিয়েছে। 
এর মধ্যেই গত সপ্তাহে ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের পরই আমেরিকা কোয়াড বৈঠকের ঘোষণা করে। কারণ, ওই সময় ওয়াশিংটনে থাকবেন কোয়াডের অন্তর্ভুক্ত চার রাষ্ট্রের শীর্ষ নেতারা। এভাবেই চীনকে কঠোর বার্তা দিতে চাইছে চারটি দেশ। কারণ, পাকিস্তানকে সামনে রেখে তালিবান শাসিত আফগানিস্তানে যে বাণিজ্যিকভাবে এবার চীনই বেশি সুবিধা ভোগ করবে, তা নিশ্চিত। সেই সুবিধার সবথেকে উদ্বেগজনক দিক হল, অবাধে বেল্ট অ্যান্ড রোড করিডর প্রকল্পকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এবং এশিয়া ও ইওরোপে শক্তিবৃদ্ধি করা। 
চীনের এই আগ্রাসন ঠেকাতে ভারত, আমেরিকা, জাপান ও অস্ট্রেলিয়া আরও জোরদার কোনও পরিকল্পনা নিতে চাইছে। বিশেষ করে দক্ষিণ চীন সাগরে নৌবাহিনীর একটি সম্মিলিত জোট গঠনই প্রধান অ্যাজেন্ডা। ইতিমধ্যেই গত বছর কোয়াড গোষ্ঠীর যৌথ মহড়া সম্পন্ন হয়েছে মালাবার এক্সারসাইজ নামে।  এর প্রধান লক্ষ্য নিঃসন্দেহে দক্ষিণ চীন সাগরে বেজিংকে চাপে রাখা। 

15th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021