বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

বিস্তারিত হলফনামায় অস্বীকার মোদি সরকারের
পেগাসাস নিয়ে একগুঁয়েমি
কেন্দ্রের, ক্ষুব্ধ সুপ্রিম কোর্ট

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: প্রশ্ন ছিল একটাই। আড়িপাতা কাণ্ডে আইনত কি পেগাসাস সফটওয়্যার ব্যবহার হয়েছে? কিন্তু তার উত্তর দেওয়া নিয়ে মোদি সরকারের একের পর এক টালবাহানায় যারপরনাই বিরক্ত সুপ্রিম কোর্ট। প্রধান বিচারপতি এন ভি রামনার নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ এতটাই অসন্তুষ্ট যে, এদিন শুনানি চলাকালীন তাদের ক্ষোভ, ‘কেন্দ্র কেন লিখিত বিস্তারিত বক্তব্য দিচ্ছে না? এর আগের দিন তো তেমনটাই জানানো হয়েছিল আদালতকে। অথচ আজ বলছেন, তিন পাতার যে নোট দিয়েছেন, তার বাইরে আর কিছু দেবেন না! এটা তো ঠিক নয়।’ মোদি সরকারের এই একগুঁয়েমিতে অসন্তোষ প্রকাশ করে মামলার অন্তর্বর্তী নির্দেশ রিজার্ভ রেখেছে শীর্ষ আদালত। 
সোমবার এই মামলার শুনানিতে আত্মপক্ষ সমর্থনে আগাগোড়া জাতীয় নিরাপত্তাকেই হাতিয়ার করেছিল কেন্দ্র। সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, ‘যদি আমি বলি বিশেষ সফটওয়্যার ব্যবহার হয়নি, তাহলে সন্ত্রাসবাদীরা সতর্ক হয়ে যাবে। আর যদি বলি, হ্যাঁ ব্যবহার হয়েছে, তাহলে তার অ্যা঩ন্টিভা‌ইরাস বেরিয়ে যাবে। তাই এভাবে হ্যাঁ বা না বলে উত্তর দেওয়া যাবে না। তবে আবেদনকারীদের যদি এতই উদ্বেগ, তাহলে একটি বিশেষ কমিটি গড়া হোক, তারা বিচার বিশ্লেষণ করে রিপোর্ট দেবে।’
এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান বিচারপতি কেন্দ্রের হয়ে সওয়াল করা সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতাকে প্রশ্ন করেন, ‘জাতীয় নিরাপত্তার প্রশ্নে কেউ কোনও কিছু জানতে চাইছে না। কিন্তু ফোনে আড়িপাতার ঘটনায় নাগরিকদের ব্যক্তি স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ হচ্ছে বলে যে অভিযোগ উঠেছে, সে বিষয়টি কেন স্পষ্ট করছেন না?’
এর উত্তরেও নিজেদের অবস্থানে অটল ছিল কেন্দ্র। আদালতকে জানানো হয়, ‘নতুন করে কিছু বলার নেই। তাছাড়া এই বিষয়টি এভাবে আদালতে আলোচনা করে জনসমক্ষে তুলে ধরার মতো নয়।’ তখনই বিচারপতি সূর্যকান্ত এবং বিচারপতি হিমা কোহলিকে পাশে রেখে প্রধান বিচারপতি সরকারের উদ্দেশে বলেন, ‘আমরা আগেই স্পষ্ট করেছি যে, জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে জড়িত বিষয়ে কিছুই জানতে চাই না। স্রেফ আপনার থেকে শুনতে চাই আইনত ওই সফটওয়্যার ব্যবহার হয়েছে কি হয়নি? তাছাড়া প্রাক্তন তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ তো সংসদে দাঁড়িয়ে এ ব্যাপারে বক্তব্য জানিয়েওছিলেন। তাহলে এখন কেন কিছু বলছেন না?’
আদালতের এই প্রশ্নের মুখে পড়ে তুষার মেহতা বলেন, ‘বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব সম্প্রতি সংসদে যা বলেছেন, সেটাই চূড়ান্ত। এছাড়া আদালতে গত ১৬ আগস্ট যে তিন পাতার লিমিটেড এফিডেভিট দেওয়া হয়েছে, তার বাইরে আর নতুন করে কিছু দেওয়ার নেই। সম্পূর্ণ ধারণার উপর ভিত্তি করে কিছু স্বার্থান্বেষী মানুষ পেগাসাস ইস্যুতে মিথ্যা কথা ছড়াচ্ছে।’
সলিসিটর জেনারেলের এই অবস্থান দেখে অন্যতম আবেদনকারী বিশিষ্ট সাংবাদিক এন রামের হয়ে সওয়াল করা কপিল সিবাল বলেন, ‘সরকার আদালতকে বলছে, কিছু জানাবে না। এর চেয়ে বিস্ময়কর আর কি কিছু হতে পারে!’ একইভাবে সুর চড়ান রাকেশ দ্বিবেদী, শ্যাম দিওয়ানের মতো আবেদনকারীর আইনজীবীরা। যদিও হাজার চাপে পড়েও অবস্থান বদল করেনি কেন্দ্র। তাই পরিস্থিতি বিচার করে অসন্তুষ্ট প্রধান বিচারপতি জানিয়ে দেন, অন্তর্বর্তী নির্দেশ রিজার্ভ রাখা হচ্ছে। 

14th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021