বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

সিস্টেম হ্যাক করে মেডিক্যাল কাউন্সিলে
রেজিস্ট্রেশন, রমরমা ভুয়ো ডাক্তারদের

বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: ছ’মাসে দু’বার হ্যাকার হানা। হ্যাকিংয়ের শিকার রাজ্যের মডার্ন মেডিসিনের প্রায় ৯০ হাজার চিকিৎসকের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ওয়েস্ট বেঙ্গল মেডিক্যাল কাউন্সিলের ওয়েবসাইট। সেখানে চিকিৎসক হিসেবে কয়েকজনের নাম, ভুয়ো ঠিকানা, জাল ডিগ্রি এবং রেজিস্ট্রেশন নম্বর ইত্যাদি ঢুকিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। আর তার সাহায্যেই রাজ্যজুড়ে রমরমা ব্যবসা ফেঁদে বসেছে ভুয়ো চিকিৎসকরা। মাসে গড়ে ১০টি করে অভিযোগও আসছে কাউন্সিলের ঘরে। প্রথম দফায় ওয়েবসাইট হ্যাক করে ডাক্তার হিসেবে ছ’জন নিজেদের নাম ঢুকিয়ে দিয়েছিল। অভিযোগ জমা পড়ে পুলিসে। সেই কাণ্ডের জের থামতে না থামতেই ফের হানা দেয় হ্যাকাররা। ভুয়ো নাম, ঠিকানা, রেজিস্ট্রেশন নম্বর সেখানে ঢুকিয়ে দেয় আরও এক কীর্তিমান! 
সোমবার রাজ্য মেডিক্যাল কাউন্সিল সূত্রে এই খবর জানা গিয়েছে। দু’বারই বিষয়টি নিয়ে বিধাননগর কমিশনারেটের সাইবার ক্রাইম বিভাগে অভিযোগ দায়ের হয়। কিন্তু, এ পর্যন্ত একজনও ভুয়ো ডাক্তার ধরা পড়ার খবর মেলেনি। শেষমেশ প্রতারিতদের তরফে আসা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কাউন্সিলই ওইসব নাম ও ভুয়ো তথ্য মুছে ফেলে। ওয়েস্ট বেঙ্গল মেডিক্যাল কাউন্সিলের রেজিস্ট্রার মানস চক্রবর্তী জানান, ‘ভুয়ো ডাক্তারদের নিয়ে আমরা অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। এতটাই সাহস বেড়েছে ওদের যে, বারবার ওয়েবসাইট হ্যাক করছে। বিভিন্ন তথ্য ঢুকিয়ে দিচ্ছে। প্রতারিত হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। আমাদের ধারণা এর পিছনে বড় কোনও চক্র কাজ করছে। পুলিসে অভিযোগ জানিয়েছি। ওদের আরও তৎপর হতে অনুরোধ করব। আমরা ওটিপি ব্যবস্থা চালুর মাধ্যমে ওয়েবসাইটের সাইবার নিরাপত্তা বাড়াতে চেষ্টা করছি।’ 
কাউন্সিলের অন্দরের খবর, ডব্লুবিএমসি-র ওয়েবসাইট লাগাতার হ্যাক করলেও একটি বিষয়ে হ্যাকারদের চালে ভুল হচ্ছে। তা হল, রেজিস্ট্রেশন নম্বর। হ্যাক করে এমন এমন মনগড়া নম্বর তারা ঢুকিয়ে দিচ্ছে, যেগুলি পশ্চিমবঙ্গের অ্যালোপ্যাথিক ডাক্তারদের রেজিস্ট্রেশনের প্রেক্ষিতে অবাস্তব। ওয়েবসাইটে ঢুকে ওই ভুয়ো নম্বর লিখলেই দেখা যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের নাম, জাল ঠিকানা ও ডিগ্রি। সম্প্রতি অভিযোগের ভিত্তিতে সাতজনের নাম বাদ দিয়েছে কাউন্সিল। কিন্তু, যা পরিস্থিতি তাতে যে কোনও মুহূর্তে ফের ওয়েবসাইট হ্যাক হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা যথেষ্ট। সংস্থার এক কর্মী জানিয়েছেন, ‘চিকিৎসকদের সমস্ত তথ্যভাণ্ডার আমাদের মূল সার্ভারে সুরক্ষিত। কিন্তু, সমস্যা হল ওয়েবসাইট আসলে কাউন্সিলের দর্পণ বা আয়না। ডাক্তার ভুয়ো না সঠিক ডিগ্রিধারী বুঝতে সাধারণ মানুষের ভরসা সেই ওয়েবসাইট। আর সেখানেই ওরা গণ্ডগোল করছে।’
সূত্রের খবর, প্রতি মাসে গড়ে ১০টি করে ভুয়ো ডাক্তারের অভিযোগ পাচ্ছে কাউন্সিল। তার সিংহভাগই কোনও প্রশিক্ষিত চিকিৎসকের নাম, রেজিস্ট্রেশন ব্যবহার করে প্রতারণা। হ্যাকিং সংক্রান্ত ছাড়াও অন্তত ২০ শতাংশ ক্ষেত্রে অভিযোগ রয়েছে প্রশিক্ষিত এমবিবিএস ডাক্তারদের বিরুদ্ধে। এমডি-এমএস বা অন্য উচ্চতর ডিগ্রির অধিকারী না হয়েও তা ব্যবহার করছে তাঁরা। প্রথমবার অভিযোগ প্রমাণিত হলে কড়া ভাষায় তাদের সতর্ক করা হচ্ছে। আর দ্বিতীয়বার এমন হলে? এক কাউন্সিল কর্তার দাবি, ‘শো-কজ, এমনকী সাসপেন্ড পর্যন্ত করা হতে পারে।’

4th     August,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021