বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

করোনা কেড়ে নিয়েছে প্রিয়জনকে। কান্নায় ভেঙে পড়েছেন পরিবারের সদস্যরা। বুধবার পাটনা মেডিক্যাল কলেজে তোলা পিটিআইয়ের ছবি।

লক্ষ্য দু’দেশের দীর্ঘমেয়াদি অগ্রগতি,
ভার্চুয়াল বৈঠক করলেন জনসন-মোদি

রূপাঞ্জনা দত্ত, লন্ডন: লক্ষ্য আগামী দশকজুড়ে দু’দেশের ধারাবাহিক উন্নয়ন। সেই উদ্দেশে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক মজবুত করতে ভার্চুয়াল বৈঠক করলেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর ফলে দু’দেশ আরও কাছাকাছি আসবে। দু’দেশের আলোচনায় ব্রিটেনে ১০০ কোটি পাউন্ড বিনিয়োগের কথা উঠে আসে। এর ফলে প্রায় সাড়ে ছয় হাজার কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে। স্বাস্থ্য ও প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রেই বেশি নিয়োগ হবে।
গত মার্চ মাসেই ব্রিটেনের ইন্টিগ্রেটেড রিভিউ রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে দেশের নিরাপত্তায় ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের গুরুত্বের কথা তুলে ধরা হয়েছে। তারপরেই দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে এই বৈঠক। সেখানে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উচ্চ মাত্রায় নিয়ে যেতে পরস্পর নির্ভরশীল বিষয়গুলির উপর আলোচনা হয়। ইতিমধ্যে ব্রিটেনের সঙ্গে সম্পকর্কে ভারত ‘কম্প্রিহেনসিভ স্ট্র্যাটেজিক পার্টনারশিপ’ আখ্যা দিয়েছে, যা প্রথম কোনও ইউরোপীয় দেশ পেল। এদিনের বৈঠকে দুই রাষ্ট্রনেতা ‘২০৩০ রোডম্যাপ’ নিয়ে সহমত প্রকাশ করেছে। অর্থাৎ, স্বাস্থ্য, বাণিজ্য, শিক্ষা, জলবায়ু, প্রতিরক্ষা এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে দু’দেশ যৌথভাবে কাজ করবে। বর্তমানে বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারীর দাপট চলছে। সেই বিষয়টি মাথায় রেখে ‘২০৩০ রোডম্যাপ’-এর গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক স্তরে ভ্যাকসিন, ওষুধ ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সরঞ্জামের মসৃণ সরবরাহের উপর জোর দেওয়া হয়। পাশাপাশি, দ্বিপাক্ষিক আর্থিক অগ্রগতির স্বার্থে ‘ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট’ কার্যকর করতে আলোচনা চালাবে দুই দেশ। স্বাস্থ্য, প্রযুক্তি ও জলবায়ু বিজ্ঞান নিয়ে ব্রিটেন ও ভারতের বিশ্ববিদ্যালয়গুলি একে অপরের সঙ্গে সহযোগিতা করবে। মোদি-জনসনের মধ্যে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনা টিকা নিয়েও আলোচনা হয়। ওই ভ্যাকসিনই ভারতে তৈরি করছে সিরাম ইনস্টিটিউট এবং তার টিকাকরণ চলছে। এদিন সেই বিষয়টিকেও পারস্পারিক সহযোগিতার নিদর্শন বলে তুলে ধরা হয়েছে।
জনসন বলেছেন, ‘ব্রিটেন ও ভারত একাধিক মৌলিক মূল্যবোধ আদালপ্রদান করে। বিশ্বের প্রাচীন গণতন্ত্রগুলির মধ্যে ব্রিটেন অন্যতম। আর ভারত বৃহত্তম। আমরা দু’জনেই কমনওয়েলথের সদস্য। দু’দেশের জনগণের মধ্যে এগুলিই জীবন্ত সেতু হিসেবে কাজ করছে।’ আগামী মাসে কর্নওয়ালে জি-৭ বৈঠকের আসর বসছে। সেখানে অতিথি দেশ হিসেবে আমন্ত্রিত ভারত। এদিন দুই রাষ্ট্রনেতার মধ্যে আলোচনায় সে প্রসঙ্গও উঠে এসেছে। 

5th     May,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
12th     May,   2021