বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

অমিত শাহের চক্রান্ত,
পদত্যাগ করুন: মমতা

নিজস্ব প্রতিনিধি, বীজপুর ও বনগাঁ: কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চারজনের মৃত্যুর ঘটনায় দায়ী অমিত শাহ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীই কেন্দ্রীয় বাহিনীকে পরিচালনা করছেন। তাঁর চক্রান্তেই ঘটেছে গোটা ঘটনা। এমনই অভিযোগ তুলে প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রশ্ন তুলেছেন দেশের গণতন্ত্র নিয়েও। সেই সঙ্গে মনে করিয়ে দিয়েছেন, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে পুলিসের গুলিতে একজনেরও মৃত্যু হয়নি।
শনিবার বীজপুর বিধানসভার হালিশহরে নির্বাচনী সভা থেকে এই ঘটনা নিয়ে বিজেপিকে নিশানা করেন মমতা। তিনি বলেন, ভোটের লাইনে ভোটারদের গুলি করে মেরে দিল। এ দেশে গণতন্ত্র আছে? বিজেপি থাকলে গণতন্ত্র থাকবে না। এরপরেই তিনি আক্রমণ করেন মোদি-শাহকে। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আবার বলছেন, গুলি চালিয়ে ঠিক করেছে। তিনি শীতলকুচি গেলেন না একবারও। অথচ, যারা গুলি চালিয়েছে, তাদের ক্লিনচিট দিয়ে দিলেন। এদের কোনও ক্ষমা হয়? চারজনকে তুমি গুলি করে মেরে দিলে, তারপরেও তুমি দেশের প্রধানমন্ত্রী থাকবে? তুমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থাকবে?’ রাজ্যজুড়ে তাই প্রধানমন্ত্রী-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের জোরালো দাবি তোলার কথা জানান মমতা। রবিবার দুপুর ২টো থেকে বিকেলে ৪টে কালো ব্যাজ লাগিয়ে প্রতিবাদ কর্মসূচির ঘোষণাও করেন।
মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে রাজি নন। কারণ, তাঁর মতে, ওদের পরিচালনা করছেন অমিত শাহ। মমতা আরও বলেন, ‘কয়েকদিন ধরেই মহিলাদের উপর জুলুমবাজি করছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। আজ গুলি চালিয়ে দিল। বিজেপিকে দেশের বাইরে বের করা উচিত। ভারতবর্ষের সবচেয়ে জঘন্য পার্টি।’ কিন্তু কেন তারা এমন কাজ করছে, সে কথাও ফাঁস করেছেন তিনি। বলেছেন, ‘আসল কথা কী জানেন? ইতিমধ্যে যা ভোট হয়েছে, তাতে ওরা হেরে গিয়েছে। ভো-কাট্টা হয়ে গিয়েই এখন বোমাবাজি আর গুলিবাজি করছে।’ ‘কাউন্সিলার হওয়ার যোগ্যতা নেই’ বলেও অমিত শাহকে আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। কলকাতা পুরসভার ৭২ নম্বর ওয়ার্ডে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রচারকে কটাক্ষ করে বলেছেন, পুরভোটে ওই ওয়ার্ড থেকে দাঁড়ান না!
নির্বাচন শান্তিতে হোক, এই দাবি তাঁরও। বীজপুরের আগে হিঙ্গলগঞ্জ এবং বনগাঁর গোপালনগরে দুই জনসভায় সেকথা জানান মমতা। কিন্তু এদিনের ঘটনা তাঁকে স্তম্ভিত করে দিয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমার চারটে ভাইকে ওরা খুন করে বলছে, গ্রামবাসীরা নাকি বন্দুক কাড়তে এসেছিল! লজ্জা করে না। গলায় দড়ি দিয়ে মরা উচিত বিজেপি তোমার। মানুষ খুনের রক্ত নিয়ে বড় বড় কথা বলে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একজন চক্রান্তকারী। অনেকদিন ধরেই বলছি সিআরপিএফ অত্যাচার করছে। আমি সিআরপিএফের বিরুদ্ধে নই। কিন্তু বিএসএফ গ্রামে গ্রামে অত্যাচার করছে। মহিলাদের অসম্মান করছে। সকলকে ভয় দেখাচ্ছে। বলছে, বিজেপিকে ভোট দাও।’ 
এই নির্বাচন কমিশন ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনে নির্বাচন করতে গিয়ে প্রায় ২০ জন মারা গিয়েছেন। তার মধ্যে প্রায় ১৩ জন তৃণমূল কর্মী ও সমর্থক। সেকথাও সর্বসমক্ষে তুলে ধরেন তৃণমূলন সুপ্রিমো। 

11th     April,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
12th     May,   2021