বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
দেশ
 

করোনা রুখতে ত্রিস্তরীয় মাস্কই চাই,
উত্তরীয়, গামছা, রুমাল নিরাপদ নয়

জানাল দেশখ্যাত প্রতিষ্ঠানে বাঙালি বিজ্ঞানীর গবেষণা 

বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতানেত্রীকে নানা সময়ে দেখা গিয়েছে, দেখা যাচ্ছেও, মাস্কের বদলে গলার উত্তরীয় বা স্কার্ফ দিয়ে মুখ ঢাকতে। অনেকে হাতের রুমাল দিয়ে মুখ ঢাকেন। ক্রমশ সেটাই হয়ে ওঠে এইসব অত্যন্ত জনপ্রিয় নেতানেত্রীর ‘হেলথ স্টেটমেন্ট’ও। লক্ষ লক্ষ সমর্থক তা দেখেন। ভাবতেও শুরু করেন, উত্তরীয়, গামছা, স্কার্ফ বা রুমালও বোধহয় করোনা থেকে সুরক্ষা দেয়!
কিন্তু গলার গামছা, উত্তরীয়, স্কার্ফ, মাফলার বা রুমাল—ত্রিস্তরীয় মাস্কের বিকল্প কোনওটাই নয়। এবার একথা সাফ সাফ জানিয়ে দিল দেশের প্রথম সারির বিজ্ঞান গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স (আইআইএসসি)। এক বাঙালি বিজ্ঞানী পরিচালিত ওই গবেষণায় স্পষ্ট ভাষায় জানানো হয়েছে, গামছা, রুমাল, সিঙ্গল বা ডবল লেয়ার মাস্ক নয়, নিজের, পরিবার ও সামাজিক সুরক্ষার জন্য পরুন ত্রিস্তরীয় মাস্ক। আইআইএসসি, আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অব টরেন্টো ইঞ্জিনিয়ারিং ও সান ডিয়াগোর তিন বাঙালি বিজ্ঞানী ডঃ সপ্তর্ষি বসু, ডঃ শ্বেতপ্রভ চৌধুরি ও ডঃ অভিষেক সাহার এই সাম্প্রতিক গবেষণা সাড়া ফেলেছে বিশ্বজুড়ে। হাই স্পিড ক্যামেরা, লেজার ইত্যাদি ব্যবহার করে গত বছরের শেষার্ধে প্রায় দু’মাস ধরে চলে এই গবেষণা। ‘সায়েন্স অ্যাডভান্সেস’ নামে বিখ্যাত পত্রিকায় প্রকাশিতও হয়েছে। আইআইএসই এক সংক্ষিপ্ত বিবৃতি আকারেও এই গবেষেণার কথা উল্লেখ করেছে।
গবেষণায় জানানো হয়েছে, করোনা রুখতে ঠিক কেনই বা ত্রিস্তরীয় বা ট্রিপল লেয়ার মাস্ক পরা উচিত। এতদিন মাস্ক পরা নিয়ে বিভিন্ন গবেষণায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির নিজস্ব সুরক্ষাই গুরুত্ব পেয়েছে সবচেয়ে বেশি। এই গবেষণায় জানানো হয়েছে, ত্রিস্তরীয় মাস্ক পরলে শুধু নিজেরই নয়, বাইরের কাউকে সংক্রামিত করার আশঙ্কা প্রায় শূন্য। অন্যদিকে, এক ও দ্বিস্তরীয় মাস্কের রোগাক্রান্ত মানুষের হাঁচি-কাশি থেকে পরিবেশে ড্রপলেট ছড়ানো আটকানোর ক্ষমতা থাকে যথাক্রমে ৩০ ও ৯১ শতাংশ। ফলে নিজে কিছুটা সুরক্ষিত থাকলেও আশপাশের মানুষ কিন্তু সংক্রামিত হতেই পারেন।
আইআইএসই’র মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অধ্যাপক ডঃ বসু বলেন, এক ও দ্বিস্তরীয় মাস্কে হাঁচি-কাশির সঙ্গে বেরনো বড় বড় ড্রপলেট (২০০ মাইক্রন) তীব্র গতিতে মাস্কেই ধাক্কা খেয়ে ছোট ছোট এরোসলে (৫০ মাইক্রন) পরিণত হয়। এইসব ছোট এরোসল মাস্ক থেকে বেরিয়ে পরিবেশে মেশে। অপরকে সংক্রামিত করার ক্ষমতা রাখে। এক বা দু’ভাঁজ করা মাফলার, গামছা বা গলার উত্তরীয়ের ক্ষেত্রেও একই কথা খাটে।। কিন্তু ত্রিস্তরীয় মাস্কের ক্ষেত্রে সেই আশঙ্কা নেই বললেই চলে। 

9th     March,   2021
 
 
কলকাতা
 
রাজ্য
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
10th     April,   2021