বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

নবম-দশমে শিক্ষক নিয়োগে
স্থগিতাদেশ জারি সুপ্রিম কোর্টের
কাউন্সেলিং বন্ধ গ্রুপ সি’রও

নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি: হাইকোর্টের নির্দেশে নবম-দশম শ্রেণির হাজারের বেশি শিক্ষকের চাকরি বাতিল হয়েছে। এর ফলে যে পদগুলি শূন্য হয়, সেই জায়গায় নতুন নিয়োগের জন্য প্রক্রিয়া শুরু করে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যে চাকরি হারানো শিক্ষকদের একাংশ হাইকোর্টের রায় চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন। একইভাবে আদালতের নির্দেশে চাকরি খোয়ানো গ্রুপ সি’র প্রার্থীরাও সুবিচারের আশায় সুপ্রিম কোর্টে যান। শুক্রবার বিচারপতি অনিরুদ্ধ বসু এবং বিচারপতি সুধাংশু ধুলিয়ার বেঞ্চে এই দু’টি মামলার পৃথক শুনানি ছিল। বেঞ্চের নির্দেশ, এই মামলার পরবর্তী শুনানি না হওয়া পর্যন্ত নবম-দশম শ্রেণির সহকারী শিক্ষক পদে নতুন নিয়োগে স্থগিতাদেশ জারি থাকবে। হাইকোর্টের নির্দেশে স্কুলে গ্রুপ সি পদে কর্মরত ৮৪২ জনের চাকরি বাতিল হয়। ওই শূন্য পদ পূরণের জন্য বৃহস্পতিবার থেকে কাউন্সেলিং শুরু করেছে এসএসসি। কিন্তু শীর্ষ আদালত এদিন এক্ষেত্রেও পরবর্তী শুনানি না হওয়া পর্যন্ত কাউন্সেলিং প্রক্রিয়া স্থগিত রাখার নির্দেশ দিয়েছে। দু’টি ক্ষেত্রেই ২৯ মার্চ ফের শুনানি হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।
এর পাশাপাশি, এদিন সুপ্রিম কোর্টে স্কুলের গ্রুপ ডি কর্মচারীদের একটি মামলা ছিল বিচারপতি ভি রামসুব্রহ্মণ্য এবং বিচারপতি পঙ্কজ মিত্তালের বেঞ্চে। সেখানে আপাতত স্বস্তি মিলেছে রাজ্য‌ সরকারের। গ্রুপ ডি’র নিয়োগেও ব্যাপক দুর্নীতি হয়েছে—এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। ইতিমধ্যে ওই মামলায় ৫৭৩ জনের চাকরি বাতিল হয়েছে। তবে ওই কর্মীদের চাকরি বাতিল না করার আবেদন করেছিল এসএসসি। প্রয়োজনে অতিরিক্ত পদ তৈরি করে যোগ্যদের চাকরি দেওয়া যেতে পারে বলে সওয়াল করেছিল তারা। কিন্তু সেই আবেদন নামঞ্জুর করে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট। সেই রায় চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় এসএসসি। আপাতত সেখান থেকে তারা সিবিআ‌ই তদন্তের ওপর সাময়িক স্থগিতাদেশ আদায় করতে সক্ষম হয়েছে। চাকরি হারানো এবং যোগ্যতা সত্ত্বেও চাকরি পাননি বলে দাবি করা প্রার্থীদের লিখিতভাবে তাঁদের বক্তব্য জমা দেওয়ার জন্য নোটিস ইস্যু করা হয়েছে। ২৫ এপ্রিল এই মামলার পরবর্তী শুনানি হতে পারে। ততদিন পর্যন্ত সিবিআ‌ই কোনও তদন্ত করতে পারবে না। 
এদিন নবম-দশম ও গ্রুপ সি’র চাকরি হারানো শিক্ষক, শিক্ষাকর্মীদের হয়ে আদালতে সওয়াল করেন পি এস পাটওয়ালিয়া এবং পার্থসারথি দেব বর্মন। রাজ্য সরকার এবং স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে আইনজীবী ছিলেন যথাক্রমে অভিষেক মনু সিংভি ও কুণাল চট্টোপাধ্যায়। 

25th     March,   2023
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ