বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

সরকারি অফিস খোলার তিন দিন আগেই
পরশু থেকে ‘ভার্চুয়ালি’ সচল হবে  নবান্ন

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সরকারি আমলাদের পুজোর ছুটি কার্যত শেষ। কারণ, আগামী পরশু শনিবার থেকেই প্রশাসনিক কর্তারা বাড়িতে বসেই অন-লাইনে যাবতীয় প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে পারবেন। উল্লেখ্য, আগামী ১১ অক্টোবর সরকারি অফিসের তালা খুলবে। কিন্তু নবান্ন সহ রাজ্যের সমস্ত প্রশাসনিক কাজ ‘ভার্চুয়ালি’ তার তিন দিন আগে থেকেই শুরু হয়ে যাবে।  প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর থেকে আগামী ৭ অক্টোবর পর্যন্ত পুজোর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের যাবতীয় প্রশাসনিক কর্মকাণ্ড কার্যত বন্ধ ছিল। কারণ, এই সময়ে সরকারি ‘ই-অফিস সার্ভার’ কাজ করেনি। সরকারি কাজ পরিচালনার দায়িত্বে থাকা এই সার্ভারে এই ক’দিন মেরামতির কাজ চলছিল। প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতার আসার পর থেকেই প্রশাসনিক সংস্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। সেই সূত্রে খাতায়-কলমে সরকারি ফাইলের লাল ফিতের ফাঁসে আটকে থাকার পরিচিত চিত্রের অবসান হতে শুরু করে। কয়ক বছর আগে থেকেই রাজ্য সরকারি দপ্তরের সমস্ত প্রশাসনিক ফাইল অন-লাইনে মঞ্জুর হয়। যার পোশাকি নাম ‘ই-অফিস’। অর্থাৎ রাজ্য সরকারি দপ্তরের কর্তারা নির্দিষ্ট আইডি দিয়ে কম্পিউটারে লগ-ইন করে যাবতীয় ফাইলের অনুমোদন দিতে পারেন। যার জেরে প্রশাসনিক শৃঙ্খলা ফিরেছে। পাশাপাশি সরকারি অফিসাররা বাড়িতে বসেই জরুরি ফাইলের সমস্ত কাজ সারতে পারেন।
মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে সমস্ত দপ্তরকে ‘ই-অফিস’এর মাধ্যমে কাজ করতে বহু দিন আগেই সরকারি আদেশনামা জারি হয়েছিল। শুধু তাই নয়, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের যাবতীয় প্রশাসনিক কাঠামোর ভোল বদল করে ‘ই-অফিস’-এ রূপান্তরিত করতে নয়া আস্ত একটি দপ্তর গঠন করেছিলেন মমতা। সরকারি খাতায় যার নাম ই-গভর্নেন্স দপ্তর।  ‘ই-ফাইল’ মারফত মন্ত্রী-আমলারা সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত মঞ্জুরির দিতে পারেন। সপ্তমী থেকে ‘ই-অফিস’ বন্ধ থাকার জন্য গত ২৯ সেপ্টেম্বর অর্থ দপ্তরের তরফে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি [৪১৪৮-এফ(ওয়াই)] জারি করা হয়েছিল। এ প্রসঙ্গে অর্থ দপ্তরের এক শীর্ষ আমলা বলেন, পুজোর এই ছয়দিন অন-লাইনে সরকারি সিংহভাগ পরিষেবা বন্ধ ছিল। এই সময়ে কোনও সরকারি আদেশনামা অন-লাইনে জারি করা যায়নি। পাশাপাশি অর্থ দপ্তর কোনও আর্থিক তহবিল অনুমোদন করতে পারেনি। উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, ধরা যাক, কোনও ব্যক্তি স্বাস্থ্যসাথী কিংবা অন্যান্য সরকারি প্রকল্পের জন্য টাকা চেয়ে আবেদন করলেন। কিন্তু গোটা ব্যবস্থাটাই বর্তমানে অল-লাইনে হয়ে যাওয়ায় তা অনুমোদনের জন্য ‘ই-ফাইলে’ পাঠানো যায়নি। স্বভাবতই সেই খাতে টাকাও ছাড়া যায়নি। তবে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে ওই সার্ভারের কাজ শেষ হয়েছে। যার জেরে আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারি অফিসের দরজা খোলার আগেই বঙ্গ প্রশাসন ‘ভার্চুয়ালি’ মাঠে নেমে পড়বে।

6th     October,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ