বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বিরিয়ানি থেকে পোলাও, কাজুবাদাম থেকে চা!
বাঙালির প্রিয় খাদ্যগুলির
উৎপত্তিস্থল কোথায়? জানুন

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বাঙালির খাবারের প্রতি রসনা তৃপ্তি আদি অনন্তকালের। বাঙালি মানেই পেটুক। রাস্তার ধারে তৈরি বিরিয়ানি হোক বা বিয়ে বাড়িতে পোলাও। সবেতেই বাঙালি জিভে জল। কব্জি ডুবিয়ে ভুরিভোজ সারে তৃপ্তি করে। অন্যদিকে, আবার পেট রোগা বাঙালির শরীর খারাপে ভরসা পেঁপে আলুর ঝোল। কবি সুকুমার রায় বলেছেন, খাই খাই করো কেন এসো বসো আহারে! খাওয়ার আজব খাওয়া ভেজে কয় যাহারে। ভিনরাজ্যের লোকেরা বলে, যে কোনও পরিস্থিতিতে বাঙালি নাকি যে কোনও উপাদানে দিয়ে খাবার বানাতে পারে। কিন্তু বানানো খাবারগুলি বা উপকরণগুলির উৎস কী? হঠাৎ কেনই বা এর ব্যবহার শুরু হল। তা খুব কম বাঙালিই জানে। আজকের এই প্রতিবেদনে সেই সব বিষয় নিয়ে। অর্থাৎ বাঙালির দৈনন্দিন হেঁশেলে প্রয়োজনীয় খাবারের উপকরণ, ফলের জন্ম, উৎসের বিবরণ নিয়েই এদিনের এই আলোচনা। এছাড়া ভারতে তার আগমণ কীভাবে সেই বিষয়ে উল্লেখ থাকবে।
আঙুর: ফল হিসাবে আঙুর সকলের প্রিয়। কিন্তু এই ফল ভারতের নয়। আঙুর মূলত মিশর ও সংলগ্ন আরব দেশগুলিতে চাষ হত। আর্যদের হাত ধরে খ্রীস্টপূর্ব আড়াই থেকে তিন হাজার বছর আগে তা ভারতে আসে।
আতা: আতা ফলও ভারতের সম্পদ নয়। পর্তুগিজরা ভারতে বাণিজ্য করতে আসার সময় তা নিয়ে আসে। মূলত আতা প্রশান্ত মহাসাগরের কোনও দ্বীপে চাষ হত।
আনারস: ফল হিসাবে আনারসের অনেক গুণ কিন্তু সেই আনারসের উৎপত্তি কোথায় জানেন? ব্রাজিলে। পরবর্তীতে তা গোটা ইউরোপে ছড়িয়ে পড়ে। সেখান থেকেই কলম্বাসের হাত ধরে ভারতে প্রবেশ ঘটে আনারসের। বাঙালির পাতে বা তরকারিতে আলু থাকবে না এটা হয় না। কিন্তু সেই আলু এদেশের ফল নয়। আলুর উৎপত্তিস্থল দক্ষিণ আমেরিকার পেরুতে। ১৮৩০ সাল থেকে তা দেরাদুন পাহাড়ে চাষ হতো। পরে সেই চাষ গোটা ভারতেই শুরু হয়।
ফুলকপি ও বাঁধাকপি: শীতকালে অতি পরিচিত সবজি ফুলকপি ও বাঁধাকপি, তাদের উৎপত্তি কোথায় জানেন? ইউরোপের দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের দেশে বাঁধাকপি ও ফুলকপির জন্ম। মূলত ইউরোপীয়রা ভারতে আসার সময় বাঁধাকপি ও ফুলকপিকে নিয়ে আসে।
কফি: মাথা ধরে গেলে তা দূর করতে বা রাত জেগে কাজ করতে কফির কোনও তুলনাই হয় না। সেই কফি প্রথম পাওয়া যেত ইথিওপিয়ার কাথা অঞ্চলে। আরবের ব্যবসায়ীরা কফির বীজ ভারতে নিয়ে আসে।
কাজু: পায়েসে ব্যবহৃত কাজুবাদাম আদপেই ভারতের ফসল নয়। ব্রাজিলের দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চলে জন্ম কাজুবাদামের। ভারতে আসে পর্তুগিজদের হাত ধরে।
কুলফি: ছোট বড় সকলের পছন্দের খাবার কুলফি। জানেন সেই কুলফি আসলে কোথাকার? কাবুলে পাওয়া যেত কুলফি সেখান থেকে মুঘলদের হাত ধরে ভারতে আসে কুলফি।
ক্যাপসিকাম: ক্যাপসিকাম অতি পরিচিত একটি সব্জি। সেই ক্যাপসিকামের জন্ম মেক্সিকোয়। ভারতে আসে মূলত ইউরোপ ও আমেরিকার বাণিজ্যিকদের হাত ধরে।
খেজুর: বাঙালির পুজো অর্চনায় বা উপবাসে খেজুর খুবই গুরুত্বপূর্ণ ফল হিসাবে পাতে থাকে। খেজুরের জন্ম পশ্চিম এশিয়ায়। সেখান থেকেই গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে ও চাষ শুরু হয়।
গাজর: শীতকালের অতি পরিচিত সবজি গাজরের উৎপত্তি আফগানিস্তানে বলে অনেকে মনে করেন সেখান থেকেই ভারতে আসে গাজর।
চা: এতদিনে সকলেরই জানা চা কোথাকার পানীয়। চায়ের জন্ম চীনে। অনেকের মতে চীনা পরিব্রাজকদের হাত ধরে ভারতে আসে চা।
জাফরান: রান্নায় অতি গুরুত্বপূর্ণ মসলা হল জাফরান সেই জাফরনের প্রথম ব্যবহার হতো গ্রীসে। তারপর বাণিজ্যে মারফত ভারতে আসে।
নিমকি: স্নাক্সে বা হালকা মুডে নিমকি খাওয়াটা একটা অভ্যাস। জানেন কি সেই নিমকি কোথা থেকে এসেছে? নিমকির উৎপত্তি পারস্য। থেকে নিমকিকে সারাদেশে ছড়িয়ে দেয়।
পেঁপে: বাঙালির পেট খারাপে, শরীর খারাপের অতি সহজপাচ্য খাবার হলো পেঁপে। সেই পেঁপের জন্ম ব্রাজিলে। সেখান থেকেই ভারতে আসে।
পোলাও-বিরিয়ানি: আবার বাঙালির ও অতিপ্রিয় পোলাও পারস্য থেকে এসেছে। মূলত মুঘলদের হাত ধরেই ভারতে পোলাওয়ের আমদানি হয়। আট থেকে আশি সকলের জিভেই জল আনা বিরিয়ানি কোথা থেকে এসেছে জানেন? বিরিয়ানির জন্ম নিয়ে অনেক মত রয়েছে। তবে বিরিয়ানির আদি জন্ম পারস্যতে‌। চতুর্দশ শতকে ভারতে আসে বিরিয়ানি। যা মুঘলদের হাত ধরে গোটা দেশে জনপ্রিয় হয়।
বিস্কুট: বাঙালির চায়ের সঙ্গে অতিপ্রিয় খাবার হল বিস্কুট। কিংবা দুধ আবার কফির সঙ্গেও বিস্কুট ডুবিয়ে ডুবিয়ে খেতে সকলেরই ভালো লাগে। কিন্তু সেই বিস্কুট কোথা থেকে এসেছে জানেন? ব্রিটিশদের হাত ধরে ভারতে বিস্কুটের চল। ১৮৪৭ সালে যখন ভারতে বাণিজ্য করার জন্য ব্রিটিশরা এসেছিল তখন সঙ্গে নিয়ে আসে বিস্কুট। সেই থেকেই ভারতে বিস্কুটের চল। 
ভুট্টা: বর্ষাকালে রাস্তার দু'পাশ ধরে উনুনের আছে ভুট্টা পোড়াতে দেখা যায় ‌। অনেকে রাস্তাতে দাঁড়িয়েই সেই পোড়ানো ভুট্টার স্বাদ নেন। এই এই ভুট্টার আদি জন্ম মধ্য আমেরিকাতে। কলম্বাসের হাত ধরে ১৮৯৭ সালে কিউবায় ভুট্টার নমুনা নিয়ে যাওয়া হয়। সেই ভুট্টা কিউবা থেকে ইউরোপে যায়। এরপর ইউরোপীয়রা গোটা বিশ্বে ভুট্টা ছড়িয়ে দেয়।
সোয়াবিন: প্রোটিনের অন্যতম উৎস সোয়াবিন প্রত্যেক বাঙালির প্রিয় খাদ্য। সহজ পাচ্য এই প্রোটিনের পরিপূরকের জন্ম কোথায় জানেন? সোয়াবিন মূলত চীনের ফসল। বিশ শতকের গোড়াতে ভারতে এসেছিল সোয়াবিন।
 

16th     August,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ