বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

মুখে রা নেই, চোখে জল কেষ্টর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: শাসকদলের জেলা সভাপতি হিসেবে কখনও ক্ষমতার দম্ভ, কখনও অপার ঔদ্ধত্যে যাবতীয় সমালোচনাকে ফুৎকারে উড়িয়ে দেওয়ার প্রবৃত্তি। এটাই এক নজরে অনুব্রত মণ্ডলের পরিচয়। তাঁর মুখের কথাই ছিল ‘বীরভূমের আইন’! সেই অনুব্রতই আমূল বদলে গিয়েছেন সিবিআই হেফাজতে। হাজারো প্রশ্নে তাঁর মুখে রা নেই। শরীরী ভাষায় অসহায়তা স্পষ্ট। চোখের কোণে জলের ফোঁটাও চিকচিক করছে মাঝেমধ্যে। মাত্র কয়েকদিন আগের কেষ্ট মণ্ডল আর সিবিআই হেফাজতের অনুব্রতর মধ্যে এখন যেন জমিন-আসমান ফারাক। 
বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৩টে নাগাদ ক্লান্ত, বিধ্বস্ত অনুব্রতকে নিয়ে আসানসোল থেকে নিজাম প্যালেসে পৌঁছয় সিবিআই। প্রায় সাত ঘণ্টার যাত্রায় বারকয়েক হাঁপ ধরেছিল তাঁর। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত গাড়িতে বসেও ঘামছিলেন। রাতে সিবিআই দপ্তরে তাঁর জন্য আনা হয় অক্সিজেন সিলিন্ডার। অল্প খাবার ও প্রয়োজনীয় ওষুধ খেয়েই ঘুমোতে যান তিনি। সকালে তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে উঠে চা-বিস্কুট খান।
শুক্রবার বেলায় নিজাম প্যালেসে আইনজীবীর সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলেন অনুব্রত। বাইরের পরিস্থিতি, বীরভূমের রাজনৈতিক বিষয়ে তিনি জানতে চান। মেয়ে সুকন্যাকে ফোন করে কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমি এখানে ভালো আছি। চিন্তা করিস না। কিছুদিনের মধ্যে সব ঠিক হয়ে যাবে।’ দুপুর পৌনে ৩টে নাগাদ স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় আলিপুরের কমান্ড হাসপাতালে। হাল্কা সবুজ রঙের পাঞ্জাবি পরে সিবিআই দপ্তর থেকে বের হন অনুব্রত। দু’জনের কাঁধে ভর দিয়ে গাড়ির দিকে হেঁটে আসেন। সেই পরিচিত দাপট উধাও। সাংবাদিকদের একের পর এক প্রশ্নে সম্পূর্ণ নির্বিকার রইলেন।
দু’পাশে দুই সিবিআই আধিকারিক, মাঝখানে অনুব্রতকে নিয়ে আলিপুরের হাসপাতালের দিকে এগতে শুরু করে কনভয়। ৩টে নাগাদ হাসপাতালে পৌঁছে যান তাঁরা। দু’ঘণ্টা পর, পৌনে ৫টা নাগাদ হাসপাতাল থেকে বের হয় অনুব্রতর কনভয়। এবারও নির্বাক তিনি। গাড়িতে বসে ঝিমোচ্ছেন। তবে জল্পনা বেড়েছে কয়েকটি প্রশ্নে। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী প্রতি ৪৮ ঘণ্টায় একবার তাঁর শারীরিক পরীক্ষা করানোর কথা। তাহলে ২৪ ঘণ্টার মাথায় কেন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হল? সূত্রের খবর, শুক্রবার রাত থেকেই তাঁকে জেরা শুরু করবে সিবিআই। তার আগে কোনওরকম ঝুঁকি নেওয়া হয়নি। অন্যদিকে, বোলপুরে যে সরকারি হাসপাতালের চিকিত্সক অনুব্রতর বাড়িতে চিকিৎসা করতে গিয়েছিলেন, সেই চন্দ্রনাথ অধিকারীর বয়ান রেকর্ড করেছে সিবিআই। এই বয়ান আদালতে অনুব্রতকে প্রভাবশালী প্রমাণ করতে কাজে লাগবে বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা।

13th     August,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ