বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

আলাদা রাজ্য নয়, পাহাড় চায়
উন্নয়ন, মমতাকে অনীত থাপা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্য ভাগ তিনি চান না। পাহাড়ের সামগ্রিক উন্নয়নই তাঁর প্রধান লক্ষ্য। আর একাজে অনীত থাপা রাজ্য সরকারের পাশে থেকে কাজ করে যেতে আগ্রহী। বুধবার নবান্নে দাঁড়িয়ে একথা জানিয়ে দিলেন গোর্খাল্যান্ড টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (জিটিএ) ভাবী চেয়ারম্যান। এদিন বিকেলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। তারপর রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসকে পাশে নিয়ে নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে জানান আগামী দিনে তাঁর লক্ষ্যের কথা। শুধু তাই নয়, আলাদা রাজ্যের দাবি ইস্যুতে সরাসরি বিজেপির নাম করে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অনীত।
সম্প্রতি রাজ্য ভাগের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন গেরুয়া শিবিরের উত্তরবঙ্গের জনপ্রতিনিধিরা। তাঁরা বিষয়টিকে কীভাবে দেখছেন? এই প্রশ্নের উত্তরে অনীত থাপা সাফ জানিয়েছেন, ‘এই ইস্যুতে আন্দোলন পাহাড়কে ২০ বছর পিছিয়ে দিয়েছে। ওটা একটা রাজনৈতিক চমক ছাড়া কিছুই নয়। ১৫ বছর বিজেপিকে সমর্থন করে পাহাড় কিছুই পায়নি।’ আর সেই প্রেক্ষিতেই তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন জিটিএ-র ভাবী শীর্ষ কর্তা। তিনি বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী পাহাড়কে ভালোভাবে চেনেন। তিনি বারবার গিয়েছেন। সব কিছু জানেন।’  জিটিএ-র নতুন বোর্ডের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে  মুখ্যমন্ত্রীকে আসার জন্য মৌখিকভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন অনীত। বোর্ড গঠনের সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি হলেই আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হবে।  সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ১২ জুলাই দার্জিলিংয়ে ওই অনুষ্ঠানটির দিন ধার্য হতে পারে। হাজির থাকতে পারেন মুখ্যমন্ত্রীও। অনীত এদিন আরও বলেন, ‘এতদিন পাহাড়ে আবেগ নিয়ে রাজনীতি করা হয়েছে। এবারের জিটিএ ভোটে উন্নয়নের মতো বাস্তব বিষয় নিয়ে লড়াই করেছি। পাহাড়ের মানুষ অবশেষে এটা বুঝেছেন। গত প্রায় ৫ বছর ধরে এই বিষয়টি বোঝাতে তাঁদের অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে।’ অর্থাৎ, বিগত বছরগুলিতে পৃথক গোর্খাল্যান্ড রাজ্য গঠনের দাবিতে যে রাজনীতি করা হতো, সেদিকেই ইঙ্গিত তাঁর। জিটিএ-র ভাবী কর্তার সাফ কথা, ‘দার্জিলিং এবং জিটিএ যে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মধ্যে পড়ে, সেটা আমরা পাহাড়ের মানুষকে বোঝাতে সমর্থ হয়েছি।’
জিটিএ-র সাম্প্রতিক নির্বাচনে ৪৫টি আসনের মধ্যে ২৭টিতে জিতে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে অনীত থাপার ভারতীয় গোর্খা প্রজাতান্ত্রিক মোর্চা। তৃণমূল কংগ্রেস ৫টি, হামরো পার্টি ৮টি ও নির্দলরা ৫টি আসনে জিতেছে। এদিন অরূপবাবু জানিয়ে দেন, বাইরে থেকে মোর্চাকে সমর্থন দেবে তৃণমূল কংগ্রেস। অনীত বলেন, গত কয়েক বছর ধরে পাহাড়ে যে অবস্থা চলেছে, তাতে জিটিএ-র যাবতীয় বন্দোবস্ত ভেঙে পড়ার শামিল। নতুন করে একে গড়ে তুলতে হবে। তার জন্য রাজ্য সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন। পাহাড়ে শান্তি ফিরে এসেছে। ধর্মঘট মুক্ত হয়েছে গোটা এলাকা। জিটিএ নিয়ে মানুষের অনেক প্রত্যাশা আছে। সংশ্লিষ্ট এলাকায় স্কুল সার্ভিস কমিশন গঠন, কর্মীদের স্থায়ীকরণ সহ অনেক বিষয়ে সর্বাগ্রে নজর দেবেন তিনি। -নিজস্ব চিত্র

7th     July,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ