বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলি আদৌ কাজে
লাগল কি না দেখুক কেন্দ্র: সুরেশ প্রভু

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দেশের অর্থনীতির হাল ফেরানোর উপায় বাতলাতে ১৯৯১ সালের অর্থনৈতিক সংস্কারের প্রসঙ্গ টেনে আনলেন বিজেপি নেতা ও প্রাক্তন রেলমন্ত্রী সুরেশ প্রভু। বুধবার মার্চেন্টস চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কোনও একটি নির্দিষ্ট ‘মডেল’ বা অর্থনৈতিক মতবাদকে মেনে চলা ঠিক নয়। যে পরিস্থিতিতে যা প্রযোজ্য, তখন সেটাকেই কাজে লাগানো উচিত। ১৯৯১ সালে দেশে ভালো অর্থনৈতিক সংস্কার হয়েছিল। তাই পরবর্তীকালে সরকার যে নীতি বা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাতে সেই সংস্কারের প্রভাব পড়েছে। অর্থাৎ কংগ্রেস সরকারের তৎকালীন অর্থমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের পথই যে সেইসময় সঠিক ছিল, এদিন সেটাই বুঝিয়েছেন সুরেশ প্রভু। 
মোদি সরকারের অর্থনীতির চাকাও যে সঠিক পথে গড়াচ্ছে না, এদিন তারও ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রাক্তন রেলমন্ত্রী। তিনি বলেন, সরকার উন্নয়নের জন্য যেসব পদেক্ষপ নিচ্ছে, বাস্তবে তার সুফল কতটা মিলছে, অর্থাৎ সেগুলি আদৌ কাজে লাগল কি না, সেই হিসেব কষা উচিত। যে পদ্ধতিতে সরকার তার নিজের হিসেব কষে, তারও সংস্কার করা উচিত। তাতে গ্রহণযোগ্যতা বাড়বে। 
কেন্দ্র বার বার সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নতির কথা বলে। দেশে কত বড় আর্থিক কর্মকাণ্ড হচ্ছে, তা প্রচারে তুলে ধরে। কিন্তু ক্ষুদ্র স্তরে, বলা ভালো সাধারণ মানুষেরই যদি উন্নয়ন না হয়, তাহলে উন্নয়নের ঢোল পিটিয়ে লাভ কী? প্রশ্ন তুলেছেন প্রভু। তিনি বলেন, আমরা যে লগ্নির কথা বলি, তার সাফল্য তখনই সম্ভব, যখন সাধারণ মানুষের খরচ করার ক্ষমতা বাড়বে। তার টাকা জমানোর প্রবণতা বাড়বে। প্রভুর বক্তব্য, আয় বাড়লে তবেই এগুলি হওয়া সম্ভব। চীন যে এতটা এগিয়ে গিয়েছে, তার কারণ, সেখানে সাধারণ মানুষের সঞ্চয়ের ক্ষমতা ভারতের তুলনায় অনেক বেশি। সেই সঞ্চিত অর্থ থেকেই বিনিয়োগ বাড়ানো সম্ভব হয়। তাঁর কথায়, দেশে এখন বেকারত্ব অন্যতম বড় চ্যালেঞ্জ। স্টার্ট আপের মাধ্যমে তাতে কিছুটা লাগাম দেওয়া সম্ভব।

7th     July,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ