বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

এবার কয়লার গুণমান যাচাই
হবে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়েই
বাড়বে পড়ুয়াদের কর্মসংস্থানের সুযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, আসানসোল: এবার কয়লার গুণমান যাচাই হবে কাজি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়েই। কর্তৃপক্ষের দাবি, দেশের মধ্যে তারাই প্রথম রাজ্যের অধীনে থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, যারা এই কাজ করতে চলেছে। একাধিক কেন্দ্রীয় সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোল টেস্টিং ল্যাব থাকলেও প্রথম কাজি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে এই অত্যাধুনিক ল্যাব গড়ার জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। এর ফলে ইসিএল সহ নানা সরকারি ও বেসরকারি কয়লা উত্তোলনকারী সংস্থা নিজেদের কয়লার মান যাচাই করে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শংসাপত্র নিতে পারবে। এছাড়া কয়লা কেনার আগে সেটির গুণগত মান যাচাই করে নিতে পারবে বিভিন্ন সংস্থাও। বিশেষ ল্যাবে কয়লা টেস্টিং করে উপার্জিত অর্থ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন উন্নয়নে খরচ করা হবে।
বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দাবি, এতে পড়ুয়ারা বিশেষভাবে উপকৃত হবেন। কাজি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অধীনে দু’টি কোর্স চলে। সেগুলি হল বিটেক ইন মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং ও ডিপ্লমা ইন মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং। বিভিন্ন বর্ষ মিলিয়ে ১৬০ জন পড়ুয়া রয়েছেন। তাঁরাও এই ল্যাব থেকে হাতেকলমে কয়লার গুণমান পরীক্ষার কৌশল শিখতে পারবেন। এর জেরে পাশ করার পর কর্মসংস্থানের ক্ষেত্রেও তাঁরা বাড়তি সুবিধা পাবেন। কারণ, বিভিন্ন সংস্থাই এখন কয়লার মান যাচাই করে তবে তা কিনছে। তাই ক্রমশ বাড়ছে কোল টেস্টিং ল্যাবের চাহিদা।
কাজি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সাধন চক্রবর্তী পুরো বিষয়টি বুধবারের প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন। উপচার্য বলেন, আমরা‌ই প্রথম রাজ্যের অধীনে থাকা কোনও বিশ্ববিদ্যালয়, যারা এই বিশেষ ল্যাব তৈরি করেছি। এর আগে একমাত্র কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তা করা হতো।
কয়লার বিভিন্ন প্রকারভেদ রয়েছে। কার্বনের অনুপাত অনুযায়ী অ্যান্থেসাইট, বিটুমিনাস ও লিগনাইট কয়লা রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন গ্রেডের কয়লা পাওয়া যায়। মূলত কয়লার চাঁইয়ের উপস্থিতির উপর নির্ভর করে পাঁচটি গ্রেডের কয়লা পাওয়া যায়। এই গুণমান নিয়েই ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ আসে। বিশেষ করে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে ভালো গ্রেডের কয়লা প্রয়োজন হয়। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই অভিযোগ ওঠে, উচ্চ গ্রেডের বলে নিম্নমানের কয়লা দিয়ে দেওয়া হয়। অথচ এতদিন খনি অঞ্চলে ছিল না কোনও কোল টেস্টিং ল্যাব। কয়লার পরীক্ষা করতে গেলে খড়্গপুর আইআইটি অথবা ধানবাদের সিএসআইআর সিআইএমএফআরে নিয়ে যেতে হতো। এবার সেই ঝক্কি কমতে চলেছে। ইসিএলের কয়লার মান যাচাই হবে আসানসোলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ক্যাম্পাসেই। 
সংশ্লিষ্ট বিভাগের অধ্যাপক সঞ্জয় গড়াই বলেন, এই পরীক্ষার জন্য দু’টি দামি মেশিন প্রয়োজন। তা হল বম্ব ক্যালোরিমিটার ও থার্মো গ্রাভিমেট্রিক অ্যানালাইজার। তারজন্য কোটি টাকার বেশি দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, সাম঩নেই কয়লার মান যাচাই করার সুযোগ থাকলে ব্যবসায়ী থেকে বিভিন্ন সরকারি সংস্থাও এই সুযোগ কাজে লাগাবে। ফলে কয়লায় ভেজালের রমরমা কমবে। মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের বিভাগীয় প্রধান অরিন্দম বিশ্বাস বলেন, এতে যেমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আয় বাড়বে। তেমনই পড়ুয়ারা কর্মমুখী প্রশিক্ষণের সুযোগ পাবেন।

1st     July,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ