বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বেনামে বিপুল সম্পত্তির অভিযোগ এজেন্সির
পার্থ, অনুব্রত, পরেশের আয়কর 
রিটার্নের নথি তলব সিবিআইয়ের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় নাম জড়িয়েছে শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর। তৃণমূল কংগ্রেসের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধেও অভিযোগ উঠেছে গোরু পাচার এবং ভোট পরবর্তী হিংসা কাণ্ডে। তিনজনকেই জিজ্ঞাসাবাদ করেছে সিবিআই। কেন্দ্রীয় এজেন্সির অভিযোগ, বেনামে বিপুল সম্পত্তির অধিকারী তাঁরা। আর সেই সূত্র ধরেই এবার পার্থ-পরেশ-অনুব্রতর আয়কর রিটার্নের তথ্য তলব করা হল। সিবিআইয়ের তরফে আয়কর দপ্তরের কাছে গত পাঁচ বছরের নথি চাওয়া হয়েছে বলে খবর। এই সময়কালে শাসকদলের তিন হেভিওয়েট নেতার সম্পত্তির পরিমাণ কতটা বেড়েছে, তা দেখতে চাইছেন তদন্তকারীরা। সেই সঙ্গে তাঁদের আয়ের উৎসও পর্যালোচনা করা হবে। এছাড়া কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার কর্তারা আরও একটি বিষয় যাচাই করছেন। সেটি হল স্কুল সার্ভিস কমিশন সংক্রান্ত রুল। কলকাতা হাইকোর্টে কেন্দ্রের তরফে নিযুক্ত আইনজীবীদের কাছে তার ব্যাখ্যা ভালোভাবে জেনে নেওয়া হচ্ছে।  
এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলার তদন্তে নেমে সিবিআই আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন, অবৈধভাবে নিয়োগের ক্ষেত্রে বিপুল পরিমাণ টাকার লেনদেন হয়েছে। আর তার পুরোটাই নগদে। যে পাঁচজন কর্তার বিরুদ্ধে এফআইআর হয়েছে, তাঁরা বিষয়টি জানতেন। এই কর্তাদের অত্যন্ত বিশ্বস্ত কিছু ব্যক্তির মাধ্যমে হাতবদল হয়েছে টাকা। মন্ত্রীর কাছে কোনওভাবে এই অর্থের ভাগ গিয়েছে কি না, সেটি যাচাই করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে নিজাম প্যালেসে ডেকে পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। অন্যদিকে, মেয়ের বেআইনিভাবে শিক্ষক পদে যোগদানের মামলায় রেহাই পাননি পরেশবাবুও। মন্ত্রিকন্যার চাকরির ক্ষেত্রে টাকার লেনদেন হয়েছিল কি না, নজরে রয়েছে সিবিআইয়ের।  
তদন্তকারী সংস্থার হাতে আসা তথ্য অনুযায়ী, পার্থবাবু ও পরেশবাবুর সম্পত্তির পরিমাণ বিপুল। তার মধ্যে রয়েছে কলকাতায় নামে-বেনামে একাধিক বিলাসবহুল ফ্ল্যাট, বাংলো, অন্যের নামে থাকা স্কুল। সূত্রের খবর, এর বাইরেও বিপুল পরিমাণ নগদের হদিশ পেয়েছে সিবিআই। সেই অর্থ বিভিন্ন কোম্পানিতে খাটছে বলে দাবি। এই সংক্রান্ত তথ্য যাচাই করতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ আয়কর দপ্তরের নথি। এর আগে দুই মন্ত্রীর কাছে এই সংক্রান্ত কাগজ চাওয়া হয়। তাঁরা সে সব জমাও দেন। তার সঙ্গে আয়কর দপ্তরের তথ্য মিলিয়ে দেখতে চাইছেন অফিসাররা। পাঁচ বছরের তথ্য বিশ্লেষণ করে অফিসাররা দেখবেন দুই মন্ত্রীর সম্পত্তি কীভাবে বেড়েছে। এক্ষেত্রে অস্বাভাবিক কিছু লক্ষ করলেই তাঁদের বিরুদ্ধে আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন মামলা দায়ের হতে পারে।
অন্যদিকে, গোরু পাচার এবং ভোট পরবর্তী রাজনৈতিক হিংসা মামলায় একাধিকবার নিজাম প্যালেসে ডাকা হয়েছে অনুব্রত মণ্ডলকে। যদিও তিনি মাত্র একবার হাজিরা দিয়েছেন। মঙ্গলবার ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় তাঁকে ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু সিবিআইকে চিঠি পাঠিয়ে অনুব্রতবাবু জানিয়ে দেন, শারীরিক অসুস্থতার কারণে আসতে পারবেন না। এই পরিস্থিতিতে তাঁর অসুস্থতা সংক্রান্ত রিপোর্ট নিয়ে এইমসের সঙ্গে কথা বলতে চাইছেন কেন্দ্রীয় এজেন্সি। অনুব্রতবাবুর বিরুদ্ধে বেনামে একাধিক সম্পত্তি থাকার অভিযোগ উঠেছে। সিবিআই জানতে পেরেছে, তিনি একাধিক রাইস মিলের মালিক। এই তথ্যে সত্যতা কতটা, আয়কর রিটার্ন ও ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের নথি বিশ্লেষণ করলে স্পষ্ট হবে বলে মত তদন্তকারীদের।

25th     May,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ