বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বিজেপিতে যাওয়া অমলকে দলে ফেরানো যাবে না
শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে চিঠি পাঠিয়ে
আর্জি উত্তর দিনাজপুর তৃণমূলের

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বিজেপিতে যোগ দেওয়া অমল আচার্যকে যেন কোনওভাবেই ফের তৃণমূলে নেওয়া না হয়। এই আর্জি জানিয়ে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে চিঠি পাঠালেন উত্তর দিনাজপুর জেলার আটজন নেতা।  দলের জেলা সভাপতি ও বিধায়করা ওই চিঠিতে স্বাক্ষর করে নিজেদের দাবি তুলে ধরেছেন। বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখছে তৃণমূল নেতৃত্ব। এবিষয়ে রাজ্যের তরফে কথা বলা হবে বিধায়ক ও জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে।
২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের সময় দেখা গিয়েছিল, তৃণমূল ছেড়ে একাধিক নেতা-নেত্রী নাম লেখান গেরুয়া শিবিরে। এমনকী কয়েকজন তৃণমূল বিধায়ক শামিল হয়েছিলেন পদ্মের পতাকাতলে। কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির শোচনীয় পরাজয়ের পর বাংলার রাজনীতি অন্য দিকে মোড় নেয়। দেখা গিয়েছে, অনেক নেতাই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে আসতে ইচ্ছা প্রকাশ করেন। ইতিমধ্যে বিজেপির টিকিটে জেতা বিধায়ক থেকে বাংলার রাজনীতিতে পরিচিত একাধিক নেতা ফিরে এসেছেন তৃণমূলে। যাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য নাম মুকুল রায়, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, সব্যসাচী দত্ত প্রমুখ। আরও অনেকেই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন এমন ইঙ্গিত মিলেছে। তবে কাদের দলে নেওয়া হবে, তার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন দল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
ঠিক এই প্রেক্ষাপটেই দেখা গেল, দলবদলু অমল আচার্যকে ফিরিয়ে না নেওয়ার জন্য আর্জি জানিয়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলার তৃণমূল নেতারা। উত্তর দিনাজপুরের রাজনীতিতে অমল পরিচিত নাম। ২০১১ ও ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে তিনি ইটাহার কেন্দ্র থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হন। তৃণমূলের জেলা সভাপতি ও জেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। কিন্তু ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল তাঁকে টিকিট দেয়নি। আর ঠিক তারপরই গত ৭ এপ্রিল তিনি যোগ দেন বিজেপিতে। পদ্মশিবিরের বেহাল দশায় তিনি তৃণমূলে ফেরার চেষ্টা চালাচ্ছেন,  সূত্র মারফত এমন খবর পেয়েছেন উত্তর দিনাজপুর জেলার জোড়াফুল শিবিরের নেতারা। কিন্তু অমলকে দলে নেওয়ার পক্ষে মত নেই তাঁদের। উত্তর দিনাজপুরে তৃণমূলের জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল, গোয়ালপোখরের বিধায়ক গোলাম রব্বানি, ইটাহারের বিধায়ক মোশারফ হোসেন, হেমতাবাদের বিধায়ক সত্যজিৎ বর্মন, চাকুলিয়া বিধায়ক আজাদ মিনহাজুল অরফিন, করণদিঘির বিধায়ক গৌতম পাল, রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী ও কালিয়াগঞ্জের বিধায়ক সৌমেন রায়ের স্বাক্ষর করা চিঠি এসেছে রাজ্য নেতৃত্বের কাছে। মোশারফ বলেছেন, চিঠি পাঠানো হয়েছে দলনেত্রী, দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক, রাজ্য সভাপতি ও মহাসচিবের কাছে। অমল আচার্যকে দলে নেওয়া হলে ফের তিনি উত্তর দিনাজপুরে অশান্তির পরিবেশ তৈরি করতে পারেন এই আশঙ্কা রয়েছে। বর্তমানে দলে কোনও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নেই। অমল আচার্য দলে এলে নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে। আগামী নির্বাচনে তিনি অন্তর্ঘাত করতে পারেন। এছাড়াও বিধায়করা বলেছেন, বিজেপিতে গিয়ে অমল আচার্য কুরুচিকর কথাবার্তা বলেছিলেন তৃণমূল নেতাদের সম্পর্কে। যেভাবে তিনি 
কুৎসা আর অপপ্রচার চালিয়েছিলেন, তাঁকে কোনওভাবেই মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। এই চিঠির প্রসঙ্গে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, অমল আচার্যকে দলে নেওয়া হচ্ছে, এরকম খবর জানা নেই। বিষয়টি নিয়ে অবশ্যই জেলা নেতৃত্ব ও বিধায়কদের সঙ্গে কথা বলা হবে।

15th     January,   2022
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021