বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

পুরভোটের মনোনয়ন পর্ব অভিযোগহীন
মমতার রাজ্য দেখে শিখুক ত্রিপুরা, বলল তৃণমূল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বাংলা যে বরাবরই আলাদা। ফের তার প্রমাণ পাওয়া গেল পুরভোটে। মনোনয়নপত্র জমা দেওয়াকে কেন্দ্র করে কোনও গন্ডগোল হয়নি। মনোনয়নে বাধা পাননি কেউ। অভিযোগ করেনি বিরোধী শিবিরও। তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, ত্রিপুরায় যা হয়, বাংলায় তা হয় না। তবে তৃণমূলের অস্বস্তির কারণ হয়েছে ৬৮ ও ৭৩  নম্বর ওয়ার্ড। ৭৩ নম্বরে রতন মালাকার এবং ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডে তনিমা চট্টোপাধ্যায় ‘নির্দল’ হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এখানেই দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেছেন, দলের প্রার্থী একজনই হয়। তাঁকে সমর্থন করে সকলের এগিয়ে আসা উচিত। মনোনয়নপত্র জমা শেষ হল বুধবার। ভোট ১৯ ডিসেম্বর। তৃণমূল প্রার্থীরা প্রচারে পুরদস্তুর নেমে পড়েছেন। মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিজেপি, সিপিএম, কংগ্রেস প্রার্থীরাও। পুরমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেন, ত্রিপুরায় তৃণমূল প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দিতে দেওয়া হয়নি। বাংলা ফের পথ দেখাল। ত্রিপুরা বিজেপির শেখা উচিত।
এদিকে, ৬৮ নম্বরে তৃণমূল প্রার্থী করেছিল তনিমা চট্টোপাধ্যায়কে। প্রয়াত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বোন তিনি। এদিন ‘দাদা’র ছবি হাতে নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিতে যান তনিমাদেবী। তাঁর বক্তব্য, প্রথমে আমাকে পার্টি সিম্বল দেওয়া হল। পরে তা নিয়েও নেওয়া হল! তাই ‘নির্দল’ হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছি। অন্যদিকে, এখানে বর্তমান কো-অর্ডিনেটর সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়ের উপরই আস্থা রেখেছে তৃণমূল। তিনি মনোনয়নপত্র জমা দিয়েই প্রচারে নেমেছেন। বলেছেন, সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের আশীর্বাদ সবসময় রয়েছে। দলের নির্দেশে প্রার্থী হয়েছি। পার্থবাবু বলেন, দলের প্রার্থী অনেক সময়ই পরিবর্তন করা হয়। এটা নতুন বিষয় নয়।
অন্যদিকে, রতন মালাকার ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডে ২০০৫ সাল থেকে তৃণমূলের টিকিটে তিনি নির্বাচিত হয়ে আসছেন। দল এবার তাঁকে প্রার্থী করেনি। এই নির্দল প্রার্থীর বক্তব্য, এলাকাবাসীর ভালোবাসা আমার সঙ্গে আছে। এই ওয়ার্ডে তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভ্রাতৃবধূ। কাজরীদেবী বলেছেন, স্বাধীন দেশে যে কেউ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন। তবে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময়সীমা রয়েছে। রতন মালাকারকে বোঝানো হবে বলে জানান পার্থবাবু। এদিন নেতাজি ইন্ডোরে সব দলের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার সময় ডান-বাম প্রার্থীদের সাক্ষাতে সৌজন্য বিনিময় হয়। তবে স্টেডিয়ামের বাইরে ‘জয় বাংলা’ এবং ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান ঘিরে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। 
মুম্বইয়ে বুদ্ধিজীবীদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। - নিজস্ব চিত্র

2nd     December,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ