বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

মোদি হটাতে মমতা মডেল নিয়েই
জাতীয় মঞ্চে নামল তৃণমূল

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: শুধুমাত্র দলের বিস্তার ঘটানোই নয়, মোদি বিরোধী লড়াইয়ে এবার দেশব্যাপী আন্দোলনে নামছে তৃণমূল। আর জাতীয় মঞ্চে তাদের হাতিয়ার, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়াই-সংগ্রাম এবং প্রশাসক হিসেবে তাঁর উন্নয়ন—‘মমতা মডেল’। দেশের পূর্ব থেকে পশ্চিম, এই মমতা মডেলই কাঁপুনি ধরিয়েছে কেন্দ্রের শাসক দলের বুকে। তাই সর্বত্র প্রচারে তৃণমূলকেই আক্রমণ শানিয়ে যাচ্ছেন নরেন্দ্র মোদি-অমিত শাহ থেকে জে পি নাড্ডা। আর সেই মডেলকে হাতিয়ার করেই গোটা দেশে ছড়িয়ে পড়তে চাইছে টিম মমতা। শুধু তাই নয়, বাংলার বাইরে রাজ্যে রাজ্যে ঘাসফুলকে ছড়িয়ে দিতে এবার দলের সংবিধান পরিবর্তন করতে চলেছে তৃণমূল। গুরুত্বপূর্ণ হল, তৃণমূলের ওয়ার্কিং কমিটির পরবর্তী বৈঠক হবে দেশের রাজধানীতে। 
দলীয় সূত্রে খবর, সোমবার দলের সাংগঠনিক বৈঠকে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘কে প্রধানমন্ত্রী হবেন সেটা বড় কথা নয়। আসল কথা হল ২০২৪ সালে কেন্দ্র থেকে বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করা। সেটাই আমাদের ব্রত!’ সেই প্রত্যয়কেই ফেসবুকে সবার সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। লিখেছেন—এখন বিরোধীদের এক হওয়ার সময়। লড়াই করতে হবে আমাদের দেশের মানুষের জন্য। আর এই লড়াইয়ে আমরা নিশ্চিতভাবেই জিতব। জাতীয় রাজনীতির সেই প্রেক্ষিতকে সামনে রেখেই আজ, মঙ্গলবার মুম্বই যাচ্ছেন মমতা। রাজ্যে বিনিয়োগ আনা যেমন তাঁর লক্ষ্য, তেমনই উদ্দেশ্য জাতীয় রাজনীতির বিরোধী জোটকে শক্তিশালী করাও। তাই তিনি দেখা করবেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব থ্যাকারে এবং এনসিপি প্রধান শারদ পাওয়ারের সঙ্গে। এদিনই আবার নেপালি কংগ্রেসের পক্ষ থেকে তাদের দলের ১৪তম জাতীয় কনভেনশনের উদ্বোধনী পর্বে প্রধান অতিথি হিসেবে আগামী ১০ ডিসেম্বর কাঠমাণ্ডুতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে। 
তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর তৃণমূলের সাংগঠনিক শক্তি এখন প্রশ্নাতীত। বাংলার বাইরে দলকে ছড়িয়ে দিতে এটাই উপযুক্ত সময় বলে মনে করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। তার জন্য ভিন রাজ্যে ঘাসফুলের চাষও শুরু হয়ে গিয়েছে। তাতে সাফল্যও এসেছে। মাত্র তিন মাসের মধ্যে ত্রিপুরায় ব্যাপক উত্থান। মেঘালয়ে প্রধান বিরোধী দল। এছাড়াও উত্তরপ্রদেশ, হরিয়ানায় শক্তিশালী হয়েছে জোড়াফুল শিবির। আগামীর রূপরেখা নিয়ে এদিন কালীঘাটে সাংগঠনিক বৈঠক করেন নেত্রী। তৃণমূলের ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য ছাড়াও আমন্ত্রিত ছিলেন দেশের বিভিন্ন রাজ্যের নেতৃত্ব। মুকুল সাংমা সহ ১২ জন মেঘালয়ের বিধায়ক, হরিয়ানার নেতা অশোক তানোয়ার, বিহারের প্রাক্তন সাংসদ পবন বর্মা, টেনিস তারকা লিয়েন্ডার পেজ, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা হাজির ছিলেন বৈঠকে। জাতীয় রাজনীতির প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, সৌগত রায়, সুব্রত বক্সি, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়রা। বিজেপির বিরুদ্ধে অলআউট আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে তার আগে তৃণমূলের সংবিধানে কিছু পরিবর্তন আনা হচ্ছে। বর্তমানে ২১ জন ওয়ার্কিং কমিটির সদস্য রয়েছেন তৃণমূলে, তা ৫০ করবার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বৈঠকে। তৃণমূল নেতা পবন বর্মা বলেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে দেশজুড়ে মোদি-শাহ বিরোধী পাল্টা লড়াই দিতে পারবে তৃণমূলই। তবে এই লড়াইয়ে কংগ্রেসকে ‘আমন্ত্রণ’ জানানো হচ্ছে না। পবন বর্মা বলেছেন, বিজেপিকে হারাতে কংগ্রেস তো বারবার ব্যর্থ। আমরা কারওকে নিজ উদ্যোগে ডাকছি না। তবে কেউ যদি আসতে চায়, তাহলে স্বাগত। 

30th     November,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ