বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

সোমবার রবীন্দ্র সদনে প্রয়াত শাঁওলি মিত্রের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। -নিজস্ব চিত্র

পাকিস্তানে তথ্য পাচারে
এনআইএ অফিসার
লস্করের সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগ 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির (এনআইএ) এসপি পদমর্যাদার এক আধিকারিকের বিরুদ্ধে পাকিস্তানে তথ্য পাচারের অভিযোগ উঠল। সন্দেহ, তাঁর আঁতাত রয়েছে লস্করের সঙ্গেও। ১১ বছরের বেশি সময় ধরে এনআইএতে কাজ করা ওই আধিকারিকের নাম অরবিন্দ দিগ্বিজয় নেগি। হিমাচল প্রদেশের এই পুলিস অফিসার ২০১৬ সালে আইপিএস ক্যাডারে উন্নীত হয়েছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তি, তোলাবাজি এবং অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট ভঙ্গের অভিযোগ এনে তদন্ত শুরু করেছে এনআইএ। ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোর থেকে মেলা সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতেই নেগিকে তদন্তের আওতায় আনা হয়েছে। ডেপুটেশনে দীর্ঘদিন কাজ করার পর ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে সম্প্রতি এনআইএ ছেড়েছিলেন নেগি। 
২০০৮ সালের ডিসেম্বর মাসে এনআইএ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর এই প্রথম তাদের কোনও আধিকারিকের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ উঠল। তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে খবর, জঙ্গি কার্যকলাপে অভিযুক্ত শ্রীনগরের বাসিন্দা খুররম পারভেজ নামে এক মানবাধিকার কর্মীকে মামলা সংক্রান্ত কেস ডায়েরি এবং অন্যান্য নথি পাচারের অভিযোগ রয়েছে নেগির বিরুদ্ধে। খুররম একটি এনজিও চালাতেন। সেই এনজিওর বিরুদ্ধে জঙ্গি কাজকর্মে অর্থ সরবরাহের অভিযোগের তদন্ত করছিল এনআইএ। গত ২০২০ সালের সেই মামলাটি এনজিও টেরর ফান্ডিং কেস বলে পরিচিত। তদন্তকারী সেই দলের মাথা ছিলেন নেগি। কিন্তু সেই সময় কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। সেই তদন্ত প্রক্রিয়ার যাবতীয় নথি খুররমের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল বলে নেগির বিরুদ্ধে অভিযোগ। এমনকী এনআইএর বেশ কিছু গোপন তথ্যও অর্থের বিনিময়ে খুররমের মাধ্যমে পাকিস্তানে পাঠানোর অভিযোগ রয়েছে। এনআইএ সূত্রে জানা গিয়েছে, জঙ্গি কাজকর্মে অর্থ সরবরাহের যে মামলার তদন্তভার নেগির হাতে ছিল, কাশ্মীরের সেই মামলায় কখন কোথায় রেইড করা হবে, কী কী তথ্য তদন্তকারীদের হাতে এসেছে—এহেন যাবতীয় খবর ‘লিক’ হতে শুরু করেছিল। অভিযুক্তদের নাগাল পাওয়া যাচ্ছিল না। এরই মধ্যে এনআইএর সংস্রব ত্যাগ এবং আইবির ইনপুট মেলার পরই নেগি সম্পর্কে সজাগ হয় তদন্তকারী সংস্থা। 
এনআইএ সূত্রে জানা গিয়েছে, এনজিও টেরর ফান্ডিং কেসে গত সোমবার শ্রীনগরের সোনওয়ার এবং আমিরাকাদাল এলাকায় খুররমের বাড়ি ও অফিসে হানা দেয় এনআইএর টিম। স্থানীয় আধিকারিকদের বাদ দিয়ে হায়দরাবাদ এবং লখনউ থেকে বাছাই করা আধিকারিকদের নিয়ে টিম বানিয়ে সেখানে হানা দিয়েছিল এনআইএ। ওইদিনই অপর একটি টিম হানা দেয় হিমাচলের কিন্নরে নেগির বাড়িতে। দুই জায়গা থেকে প্রচুর নথি উদ্ধার করা হয়। 
সোমবার দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেপ্তার করা হয়েছে খুররমকে। তাঁর বিরুদ্ধে ইউএপিএ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এনআইএর সূত্রটি জানিয়েছে, তদন্তকারী অফিসার হিসেবে গত ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে এনজিও টেরর ফান্ডিং কেসে শ্রীনগরে খুররমের বাড়িতে হানা দিয়েছিলেন নেগি নিজেই। কিন্তু সেই সময় কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। আনুষ্ঠানিকভাবে এনআইএ কিছু না জানালেও, ইতিমধ্যে দু’বার নেগিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

28th     November,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021