বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

সংঘাতের পথে ডিলার সংগঠন, রাজ্য
আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান চাইছে
দুয়ারে রেশন 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দুয়ারে রেশন প্রকল্প রূপায়ণ নিয়ে রাজ্য সরকারের সঙ্গে কার্যত সংঘাত বেধেছে রেশন ডিলারদের। ডিলারদের বিভিন্ন সংগঠন নিয়ে তৈরি জয়েন্ট ফোরাম অব ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার্স মঙ্গলবার নিউ টাউনের বিশ্ব বাংলা কনভেনশন হলে সম্মেলন ডেকে সিদ্ধান্ত নিয়েছে এই প্রকল্পটি তাদের পক্ষে চালানো সম্ভব নয়। রেশন ডিলাররা দোকান থেকে গ্রাহকদের রাজ্য সরকারের খাদ্যসাথী প্রকল্পের খাদ্য সরবরাহ করে যাবেন। প্রসঙ্গত, সেপ্টেম্বর থেকে দুয়ারে রেশনের পাইলট প্রকল্প কলকাতা সহ বিভিন্ন জেলায় চালু হয়ে গিয়েছে। ১৫ শতাংশ রেশন ডিলার গতমাসে গ্রাহকদের বাড়িতে গিয়ে খাদ্য সরবরাহ করে এসেছেন। অক্টোবরে সব মিলিয়ে ৫০ শতাংশ রেশন ডিলারকে পাইলট প্রকল্পের মধ্যে এনেছে খাদ্যদপ্তর। নভেম্বর মাস থেকে এটা পুরোপুরি চালু করার পরিকল্পনা আছে। অক্টোবরে অধিকাংশ দিন ছুটি থাকায় ১৭ অক্টোবর, রবিবার মাসের প্রথম দুয়ারে রেশন প্রকল্পটি হওয়ার নির্ধারিত দিন ছিল।  ফের আগামী বৃহস্পতিবার এই কর্মসূচির দিন আগেই নির্ধারিত করেছে খাদ্যদপ্তর। কিন্তু জয়েন্ট ফোরামের কর্তারা এদিন সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, খাদ্যদপ্তর থেকে ডিলারদের উপর চাপ দেওয়া হলেও গ্রাহকের বাড়িতে গিয়ে খাদ্য পৌঁছনো হবে না। 
গত রবিবার কোথাও গ্রাহকদের বাড়িতে খাদ্য সরবরাহের জন্য যাওয়া হয়নি বলে দাবি করেছেন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক বিশ্বম্ভর বসু।  খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ বলেন, দুয়ারে রেশন প্রকল্পটি এখন পরীক্ষামূলকভাবে চলছে। কোথায় সমস্যা হচ্ছে তা খতিয়ে দেখে সংশোধন করার জন্য এটা করা হয়েছে। ডিলারদের নিয়ে যে সমস্যা তৈরি হয়েছে, আশা করছি, আলোচনাতেই মিটে যাবে। 
প্রসঙ্গত, দুয়ারে রেশন প্রকল্পটি চালানোর জন্য রাজ্য সরকার ডিলারদের প্রতি কুইন্টাল খাদ্যশস্যের জন্য ৭৫ টাকা অতিরিক্ত কমিশন দিচ্ছে। খাদ্যশস্য পৌঁছে দেওয়ার জন্য গাড়ি কিনতে ডিলারদের ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আর্থিক অনুদান দেবে সরকার। কিন্তু ডিলারদের সংগঠন এতে রাজি নয়। প্রথমে ২০০ টাকা অতিরিক্ত কমিশন দাবি করা হয়েছিল। কিন্তু এদিনের সম্মেলনে বিশ্বম্ভরবাবু ছাড়াও ফোরামের শীর্ষস্থানীয় নেতা রতন সাউ, নিখিলেশ ঘোষ প্রমুখ জানিয়েছেন, দুয়ারে রেশন কোনওভাবেই চালানো যাচ্ছে না। প্রথম মাসে পাইলট প্রকল্পটি চালাতে গিয়ে নানা সমস্যা দেখা দিয়েছে। সেইসব সমস্যা না মিটিয়েই  খাদ্যদপ্তর অক্টোবরে আরও বেশি সংখ্যক ডিলারকে এর আওতায় এনেছে। প্রকল্পটি রূপায়ণের জন্য রীতিমতো চাপ দেওয়া হচ্ছে। এভাবে চাপ দেওয়া হলে ডিলারশিপ ছেড়ে দেওয়ার হুমকিও দেওয়া হয়েছে এদিন। 
তবে খাদ্যদপ্তর সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্পটি কার্যকর করা থেকে পিছু হটবে না সরকার। প্রথমে আলোচনার ভিত্তিতে সমস্যার মেটানোর চেষ্টা হবে। তাতে কাজ নাহলে সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাই নেবে। তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে রেশন ডিলার সংগঠনের নেতাদের বৈঠক হতে পারে। 

20th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021