বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

সাড়ে তিন মাসে ১ লক্ষ ছাড়াল 
স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের আবেদন
ইতিমধ্যেই ৪০ কোটি টাকারও বেশি ঋণ মঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের চাহিদা ক্রমশ বাড়ছে। পুজো শেষ হতে না হতেই এই কার্ডের জন্য আবেদন এক লক্ষের গণ্ডি ছাড়াল। শুধু তাই নয়, আবেদন বাতিলের তুলনায় ঋণ মঞ্জুরের হারও বেড়েছে উল্লেখযোগ্যভাবে। এতদিন এর উল্টোটা হচ্ছিল। অর্থাৎ ঋণ মঞ্জুরের তুলনায় আবেদন খারিজ হচ্ছিল বেশি। স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের জন্য আবেদন এবং ঋণ মঞ্জুরের নিরিখে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা রাজ্যের মধ্যে শীর্ষে রয়েছে। সব মিলিয়ে সারা রাজ্যে এই খাতে এখনও পর্যন্ত ৪০ কোটি টাকারও বেশি ঋণ মঞ্জুর করেছে বিভিন্ন ব্যাঙ্ক। 
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের এই প্রকল্পের সূচনার সাড়ে তিন মাসের মধ্যেই আবেদন এক লক্ষ ছাড়াল। পুজোর মধ্যেও পড়ুয়ারা ঋণের জন্য আবেদন করেছেন। পুজোর ছুটি শুরুর আগে ৯৯ হাজারের কিছু বেশি আবেদন জমা পড়েছিল। আর উৎসব মিটতেই দেখা গেল, আবেদনের সংখ্যা লক্ষ পার করেছে। দুই ২৪ পরগনা ছাড়াও দুই মেদিনীপুর জেলা থেকে ঋণের জন্য প্রবল আগ্রহ দেখা গিয়েছে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে। সেই তুলনায় অনেকটাই পিছিয়ে কলকাতা। তবে বেশিরভাগ জেলায় গড়ে প্রায় চার হাজার আবেদন জমা পড়েছে। প্রশাসন সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, ঋণ পেতে লক্ষাধিক আবেদন জমা পড়লেও প্রায় ৩০ হাজার আর্জি এখনও ব্যাঙ্কের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। কিছুক্ষেত্রে উচ্চশিক্ষা দপ্তরে আবেদন খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বেশ কিছু আবেদনে ত্রুটি সংশোধন করতে সংশ্লিষ্ট পড়ুয়ার কাছে আবেদনপত্র ফেরত পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভিন রাজ্যে পড়াশোনা করছেন, রাজ্যের এরকম ছাত্রছাত্রীদের মধ্যেও এই ক্রেডিট কার্ড নিয়ে ভালো সাড়া পাওয়া গিয়েছে। কর্ণাটক, ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ ইত্যাদি রাজ্য থেকে বেশি পড়ুয়া আবেদন করেছেন। 
দপ্তর সূত্রে খবর, ঋণ মঞ্জুরের নিরিখে দক্ষিণ ২৪ পরগনা (প্রায় ২৫০) এগিয়ে আছে। এই জেলায় এখনও পর্যন্ত প্রায় ১০ কোটি টাকার ঋণ অনুমোদন করেছে ব্যাঙ্কগুলি। তারপরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা (প্রায় ১২০)। কোচবিহার ও হুগলিতে শ’খানেক পড়ুয়ার আবেদন এখনও পর্যন্ত মঞ্জুর করেছে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। কলকাতায় এই সংখ্যা ৫০-এরও কম। বেশিরভাগ জেলায় এক থেকে তিন কোটি টাকার ঋণ মঞ্জুর হয়ে গিয়েছে।
অন্যদিকে, আবেদন বাতিলের নিরিখে হুগলি ও পূর্ব মেদিনীপুর জেলা এগিয়ে আছে। এই দুই জেলায় যথাক্রমে ২১৫ এবং ২৪৬ জন পড়ুয়ার আবেদন বাতিল হয়েছে। বীরভূম এবং ঝাড়গ্রাম জেলায় এখনও পর্যন্ত কোনও আবেদন বাতিল হয়নি বলে খবর। হাওড়া, জলপাইগুড়ি, পুরুলিয়া জেলায় ঋণের আবেদন বাতিলের সংখ্যা ১০-এর নীচে।

19th     October,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021