বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বেসরকারি ও ছোট শিল্পতালুক
তৈরিতে জোর দিচ্ছে নবান্ন
লক্ষ্য লগ্নির সুযোগ বৃদ্ধি করা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্যে শিল্পক্ষেত্রে বিনিয়োগের সুযোগ করে দিতে বেসরকারি উদ্যোগে শিল্পতালুক তৈরির ব্যাপারে জোর দিল নবান্ন। শিল্পতালুক তৈরি করতে আগে নিয়ম ছিল, ২০ একর জমি লাগত। সোমবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে সেই জমির পরিমাণ কমিয়ে পাঁচ একর করা হল। তবে তা মূলত কলকাতা মেট্রোপলিটন এরিয়া অর্থাৎ দুই ২৪ পরগনা, হাওড়ার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। এই মুহূর্তে রাজ্যে যেসব বেসরকারি ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক রয়েছে তারা যদি বাড়াতে চায়, তাহলে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া এবং কেএমডিএ এলাকাতে সর্বাধিক ২ একর ও অন্যান্য জেলাগুলিতে সর্বাধিক ৫ একর পর্যন্ত বাড়াতে পারবে। 
রাজ্যে মাঝারি শিল্প আনার ক্ষেত্রে শিল্পতালুক গড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের আমলে। এর জন্য ২০১৪ সালে প্রাইভেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরির ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল এবং একটি নীতি তৈরি হয়েছিল। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটা প্রস্তাব রাজ্যের শিল্পদপ্তরে এসেছে। বর্তমান আর্থিক বছরের বাজেটে ১০০টি প্রাইভেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক বা বেসরকারি শিল্পতালুক গড়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে যে-সমস্ত প্রস্তাব এসেছে, তার অধিকাংশই কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং হাওড়াতে ওই শিল্পতালুক তৈরি করতে চায়। এতদিন প্রাইভেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরির ক্ষেত্রে জমির পরিমাণ ধার্য করা ছিল ২০ একর। আরও বেশি বেসরকারি সংস্থাকে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরির ক্ষেত্রে উৎসাহ দিতে এই সর্বনিম্ন জমির পরিমাণকে কমিয়ে পাঁচ একর করা হল।
যেখানে এবার ওয়্যারহাউস, লজিস্টিক হাব, পোল্ট্রি, ফিশারিজ, কোল্ডস্টোরেজকে এই স্কিমের অন্তর্ভুক্ত করা হল, যা আগে ছিল না। এবার বেসরকারি শিল্পতালুকে ওইগুলি করা যাবে বলে মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী জানিয়েছেন। তিনি বলেন, রাজ্যে মাছ ও ডিমের খুবই চাহিদা রয়েছে। তার জন্য বাইরের রাজ্য থেকে মাছ ও ডিম আমদানি হয়। মাছ মূলত আসে অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে। ডিমের চাহিদা মেটাতে আরও বেশি সংখ্যক পোল্ট্রি ফার্ম  করার বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। শিল্পতালুকে যাতে পোল্ট্রি করা যায় তার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনবছরের মধ্যে ডিমের ক্ষেত্রে রাজ্যের চাহিদা রাজ্যেই যাতে মেটানো যায়, তার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
বেসরকারি শিল্পতালুক তৈরির ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে উৎসাহ দিতে যে ইনসেনটিভ দেওয়া হতো, সেটা আগে কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর একবারে দেওয়া হতো। সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে এবার থেকে কাজের নিরিখে ২০ শতাংশ, ৩০ শতাংশ, ৫০ শতাংশ কাজ হলে ধাপে ধাপে ইনসেনটিভ দেওয়া হবে। এর ফলে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে শিল্পসংস্থাগুলি উৎসাহ পাবে বলে মনে করছে অভিজ্ঞমহল।

14th     September,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021