বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

ভেঙে যাওয়া মোবাইলের
স্ক্রিন জুড়ে যাবে নিমেষে
রাজ্যের তিন বিজ্ঞানীর আবিষ্কার

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ফোন হাত থেকে পড়ে গিয়ে ‘ডিসপ্লে’ নষ্ট? মোবাইল স্ক্রিন ভেঙে গিয়ে অসংখ্য সূক্ষ্ম ফাটল তৈরি হয়েছে? আপনি ভাবছেন, এবার হয় নতুন ফোন কিনতে হবে, নয়তো বেশ কিছু টাকা খরচ করতে হবে স্ক্রিন বদলের জন্য! এইসব সমস্যার সমাধান এখন বিজ্ঞানীদের হাতের মুঠোয়। খড়্গপুর আইআইটি এবং কলকাতার আইআইএসইআর (ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ)-এর তিন বিজ্ঞানী মিলে দীর্ঘ গবেষণায় এমনই এক জৈব পদার্থ আবিষ্কার করেছেন, যা ব্যবহার করলে ভেঙে যাওয়া মোবাইল স্ক্রিন জুড়ে যাবে নিজে থেকেই। ভেঙে যাওয়া স্ক্রিন আগের অবস্থা ফিরে পাবে এক সেকেন্ডেরও কম সময়ে। সেটি যে ভেঙেছিল, হাতে নিয়ে নাড়াচাড়া করলেও বুঝতে পারবে না কেউই। শুধুমাত্র মোবাইল ফোন নয়, এই আবিষ্কার বিভিন্ন বৈদ্যুতিন গেজেট, মহাকাশযান, রোবট সহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির নানা ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য এবং ইতিবাচক পরিবর্তন এনে দিতে পারে বলে আশাবাদী বিজ্ঞানীরা। 
খড়্গপুর আইআইটি সূত্রে জানা গিয়েছে, এখানকার মেটেরিয়াল সায়েন্স বিভাগের অধ্যাপক ভানুভূষণ খাটুয়া, আইআইএসইআর-এর অধ্যাপক সি মালা রেড্ডি এবং অধ্যাপক নির্মাল্য ঘোষের যৌথ গবেষণায় এই অতিস্ফটিক কঠিন জৈব পদার্থটি আবিষ্কার করা হয়েছে। পুরো গবেষণাপত্রটি বিস্তারিতভাবে প্রকাশিত হয়েছে আমেরিকার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক বিখ্যাত ‘সায়েন্স’ পত্রিকায়। তারপরই প্রযুক্তি জগতে রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দিয়েছে এই আবিষ্কার।  
বিজ্ঞানীরা জানান, নিজে থেকে জুড়ে যাবে— এমন জৈব পদার্থ এর আগেও আবিষ্কার করেছেন বিজ্ঞানীরা। কিন্তু সেগুলি সবই থকথকে নরম পদার্থ। এই তিন বিজ্ঞানী যেটি আবিষ্কার করেছেন, তা আগের পদার্থগুলির থেকে ১০ গুণ বেশি কঠিন। তবে এই কাজের জন্য দরকার বৈদ্যুতিন চার্জ। আঘাতপ্রাপ্ত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এই অতিস্ফটিক কঠিন পদার্থটি নিজে থেকেই ফাটল বা ক্ষত মেরামত করে দেবে। এই কারণে এই প্রযুক্তি মোবাইল ফোন, এলইডি স্ক্রিন থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের বৈদ্যুতিন সরঞ্জামের উপর ব্যবহার করা সুবিধাজনক। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, এর ফলে এই ধরনের ওই সরঞ্জামের আয়ু অনেকটাই বাড়বে। অধ্যাপক ভানুভূষণ খাটুয়া বলেন, ২০১৯ সাল থেকে এ নিয়ে আমরা গবেষণা করে চলেছি। আমরা একটা ‘অর্গানিক মলিকল’ বানাতে পেরেছি। এটি ব্যবহার করে শুধু মোবাইল ফোন বা এলইডি টিভি’র প্রযুক্তি নয়, মহাকাশ বিজ্ঞান এবং অটোমেশন প্রযুক্তির ক্ষেত্রেও নানা ধরনের সুবিধা পাওয়া যেতে পারে। কিন্তু এ তো গবেষণাগারে চার দেওয়ালের মধ্যে বিজ্ঞানীদের সাফল্য। এর সুফল সাধারণ মানুষ কবে পাবেন? অধ্যাপক খাটুয়া বলেন, আমরা পরীক্ষাগারে এই পদার্থের একটি প্রোটোটাইপ বানিয়ে বিষয়টি প্রমাণ করে দেখিয়েছি। এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে কোনও পণ্য বা সরঞ্জাম উৎপাদন করতে গেলে সংশ্লিষ্ট শিল্পসংস্থার সঙ্গে চুক্তিতে যেতে হবে। সেসব কীভাবে হবে, তা নিয়ে আমরা এখন চিন্তাভাবনা করছি। আশা করা যায়, শীঘ্রই মানুষ এই গবেষণার সুফল পাবেন। 

23rd     July,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021