বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

রেশন তুললেই খাদ্যদপ্তরের এসএমএস

রাহুল চক্রবর্তী, কলকাতা: টাকা তোলা বা জমা দিলেই মোবাইলে আসে এসএমএস। এবার একই কায়দায় গ্রাহকদের এসএমএস দেবে খাদ্যদপ্তর। খাদ্যসামগ্রী প্রাপ্য ও প্রদানের যাবতীয় তথ্য থাকবে ওই এসএমএসে। মূলত স্বচ্ছতা রাখতেই এই ব্যবস্থা। কোনও ক্ষেত্রে অসঙ্গতি ধরা পড়লেই যাতে ব্যবস্থা নেওয়া যায়, সেই লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ।
ব্যাঙ্কে অ্যাকাউন্ট থাকলে তার সঙ্গে যুক্ত থাকে মোবাইল নম্বর। ব্যাঙ্কে সরাসরি হাজির হয়ে কিংবা এটিএম থেকে টাকা উঠলেই গ্রাহকের মোবাইলে এসএমএস চলে আসে। একইভাবে টাকা জমা পড়লেও তার তথ্য ব্যাঙ্কের তরফে দেওয়া হয় গ্রাহককে। এর ফলে গ্রাহকের পক্ষে সরলভাবে হিসেব-নিকেশ রাখা সম্ভব হয়। আগামী দিনে এই পদ্ধতিই উঠে আসবে খাদ্যদপ্তরে। প্রতিমাসে গ্রাহকের জন্য বরাদ্দ হয় চাল, গম। গ্রাহকরা সেই খাদ্যসামগ্রী সংগ্রহ করে থাকেন। কতটা পরিমাণ খাদ্যসামগ্রী পাচ্ছেন, কতটা তুলছেন—তার যাবতীয় তথ্যে কোনও গরমিল থাকছে কি না, সেটাই এবার সরেজমিনে দেখবে দপ্তর। এসএমএস যাবে গ্রাহকের মোবাইলে। 
দপ্তর সূত্রের খবর, ওই এসএমএসে উল্লেখ থাকবে গ্রাহকের নাম, রেশন কার্ডের নম্বর, কত খাদ্যসামগ্রী বরাদ্দ হয়েছে, গ্রাহক কতটা তুলেছেন, কতটা সংগ্রহ বাকি আছে। খাদ্যদপ্তরের ডেটাবেসে যেমন তথ্য থাকবে, তেমনই গ্রাহকের কাছেও একই বার্তা পৌঁছবে। বরাদ্দের থেকে গ্রাহককে কম সামগ্রী দেওয়া হচ্ছে কি না, তার যাবতীয় হিসেব সহজেই বোঝা যাবে। বরাদ্দের থেকে কম সামগ্রী পেলে বা কোনও অভিযোগ থাকলে গ্রাহক তা জানাতে পারবেন। খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষ বলেন, গ্রাহককে এসএমএস দেওয়ার একটি পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এই এসএমএসের ফলে স্বচ্ছতা বজায় থাকবে।
এসএমএস অ্যালার্টের বিষয়ে ইতিমধ্যেই আধিকারিকরা বৈঠক করেছেন। বিষয়টি নিয়ে পর্যালোচনাও হয়ে গিয়েছে বলে মন্ত্রী জানিয়েছেন। এদিকে, রেশন-আধার সংযুক্তিকরণের কাজও চলছে। মন্ত্রী উল্লেখ করেছেন, ২১ জুলাই পর্যন্ত ৪ কোটি ৭০ লক্ষ সংযুক্তিকরণ সম্পূর্ণ হয়েছে। তবে একটি বিষয়ও দপ্তরের কাছে এসেছে, শহরাঞ্চলের বাসিন্দারা আধার কার্ডের তথ্য দিতে অনেকেই সঙ্কোচ বোধ করছেন। মন্ত্রীর আবেদন, গ্রাহকরা সহযোগিতা করুন। কোনওক্ষেত্রে সমস্যা হলে দপ্তরের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করুন।
রাজ্য সরকার ‘ফুড ফর অল’ সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছে। সব মানুষের কাছে খাদ্যসামগ্রী বিনামূল্যে পৌঁছে দিচ্ছে সরকার। এবারের ভোটের আগে তৃণমূল কংগ্রেস অঙ্গীকারপত্রে উল্লেখ করেছিল, ‘দুয়ারে রেশন’। দোকানে যেতে হবে না। বাড়িতেই পৌঁছে যাবে রেশন সামগ্রী। তৃতীয়বারের জন্য সরকারে এসে মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি পূরণে ঝাঁপিয়ে পড়েছে সরকার। ইতিমধ্যেই কৃষকদের একর প্রতি আর্থিক সাহায্য ৬ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা করা হয়েছে। চালু করা হয়েছে ‘স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড’। মহিলাদের আর্থিক সহায়তা প্রদানে হাতখরচ বাবদ ‘লক্ষ্মী ভাণ্ডার’ চালু হচ্ছে সেপ্টেম্বর থেকে। সেইসঙ্গে ‘দুয়ারে রেশন’ চালুর ব্যাপারে সরকার বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। 

23rd     July,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021