বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

অন্তত ১৭৫টি মিউটেশন ঘটিয়েছে করোনা
ভাইরাসের বিশেষ প্রোটিন, দাবি সমীক্ষায়

অর্পণ সেনগুপ্ত, কলকাতা: কোভিড-১৯ রোগের জন্য দায়ী সার্স কোভ-২ ভাইরাসটিকে আরও ভালোভাবে বোঝার দিকে এক ধাপ এগলেন বিজ্ঞানীরা। এই ভাইরাসের গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রোটিন কতবার নিজের চরিত্র পাল্টেছে, তা জানতে পেরেছেন তাঁরা। ওআরএফ৩এ প্রোটিনের এই মিউটেশন নিয়ে গবেষণাটি এলসভিয়ারের মতো আন্তর্জাতিক জার্নালে ঠাঁই পেয়েছে। পাঁচ বিজ্ঞানীর চারজনই এ রাজ্যের।
বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, ওআরএফ৩এ প্রোটিনটি ভাইরাসের ক্ষতি করার ক্ষমতা, বাড়বৃদ্ধি, ছড়িয়ে পড়া এবং দেহে প্রবেশ করার ক্ষমতার জন্য দায়ী। ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফর্মেশন বা এনসিবিআইয়ের ভাইরাস সম্পর্কিত তথ্যের ওপর ভিত্তি করেই হয়েছে এই সমীক্ষা। সেই তথ্য ভান্ডারে সার্স কোভ-২ ভাইরাসটির ৭,১৯৪টি পূর্ণাঙ্গ জিনোম বিজ্ঞানীরা চিহ্নিত করতে পেরেছেন। তাতে দেখা গিয়েছে, ১৭৫টি স্বতন্ত্র মিউটেশন হয়েছে ওই প্রোটিনটির। মিউটেশনগুলির ধরন একটি আরেকটির থেকে একেবারেই আলাদা। সেই কারণেই এগুলিকে স্বতন্ত্র বলা হচ্ছে। সাধারণত ভাইরাসের মিউটেশনের তিন ধরনের ভাগ থাকে। ডিজিজ টাইপ মিউটেশন হলে ভাইরাসের রোগ সৃষ্টিকারী ক্ষমতা বেড়ে যায়। নিউট্রাল মিউটেশনের ক্ষেত্রে ডিএনএ-তে পরিবর্তন হলেও রোগ সৃষ্টির ক্ষমতা বাড়েও না, কমেও না। আরেকটি হলো মিক্সড টাইপ। সেটা ডিজিজ টাইপ এবং নিউট্রাল মিউটেশনের মাঝামাঝি গোত্রের। দেখা যাচ্ছে, ভারতে যে যে ভাইরাস স্ট্রেইন পাওয়া যাচ্ছে, সেগুলির ওআরএফ৩এ প্রোটিন ৭২ শতাংশ ক্ষেত্রেই ডিজিজ টাইপ মিউটেশন ঘটিয়েছে। অর্থাৎ এর মারণ ক্ষমতা বেড়েছে। মৃত্যুর হারের সঙ্গে মিলিয়ে দেখে তা নিয়ে নিশ্চিত হয়েছেন গবেষকরা। ভাইরাসটি বারবার নিজের চরিত্র বদল করায় টিকা এবং ওষুধের কার্যকারিতাও কমে যাচ্ছে। অনেক ক্ষেত্রে একেবারেই ব্যর্থ হচ্ছে সেগুলি। তবে এই চরিত্র বদলের ধারা চিহ্নিত করা সম্ভব হওয়ায় মিউটেশন-এর আগেই সেটি সম্পর্কে প্রস্তুত থাকতে পারবেন বিজ্ঞানীরা। গবেষকরা সেই আশা করছেন। চার গবেষক দলের লিড অথর বা মূল লেখক হলেন মেদিনীপুরের পিংলা কলেজের গণিতের সরকারী অধ্যাপক সেখ শরিফ হাসান। এছাড়া রয়েছেন দিল্লির বি আর আম্বেদকর সেন্টার ফর বায়োমেডিক্যাল রিসার্চের দীক্ষা অত্রীশ, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োফিজিক্স, মলিকিউলার বায়োলজি এবং বায়োইনফরম্যাটিক্স বিভাগের শিঞ্জিনী ঘোষ এবং ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিসটিক্যাল ইনস্টিটিউট, কলকাতার অ্যাপ্লায়েড স্ট্যাটিস্টিকস বিভাগের অধ্যাপক পবিত্র পালচৌধুরী এবং হিউম্যান জেনেটিক্স বিভাগের বিদ্যুৎ রায়।

10th     May,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021