বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

এমপি অর্জুন সিংয়ের ৬টি কেন্দ্রে গোহারা
বিজেপি,ছেলের জয়ে ভাটপাড়ায় ‘মুখরক্ষা’

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাকপুর: ‘রণহুঙ্কার’ কিংবা ‘ধর্মের তাস’ কাজে লাগেনি। মাত্র দু’বছর আগেই যে মাটিতে পদ্মের ফলন নজর কেড়েছিল, সেই মাটিতেই এখন পদ্মকে খুঁজতে হচ্ছে আতসকাচ দিয়ে। খোদ বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের গড়েই গেরুয়া শিবিরের ফলাফল এমনই তলানিতে ঠেকেছে। কারণ, বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত সাতটি বিধানসভা আসনের মধ্যে ছ’টিতেই গোহারা হয়েছে বিজেপি। কেবলমাত্র ভাটপাড়ায় তাঁর ছেলের জয়ে কিছুটা মুখরক্ষা হয়েছে। তবে, লোকসভা 
ভোটের মার্জিন নেমে এসেছে অর্ধেকে! অর্জুনের গড়ে দলের এই ব্যাপক ভরাডুবি নেতৃত্বের কপালে দুশ্চিন্তার চওড়া ভাঁজ ফেলে দিয়েছে।

বারাকপুর শিল্পাঞ্চলের দাপুটে নেতা হিসেবেই পরিচিত অর্জুন সিং। ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে একদা সিপিএমের লালদুর্গ নামে পরিচিত বারাকপুর লোকসভার সাতটি আসনেই ঘাসফুল ফুটিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্তু, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে টিকিট না পেয়ে ভাটপাড়ার বিধায়ক অর্জুন সিং চলে যান বিজেপিতে। তিনি বিজেপির প্রার্থীও হন। তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদীকে হারিয়ে অর্জুন সিং জয়ী হয়েছিলেন। বারাকপুর লোকসভার মধ্যে বারাকপুর, নোয়াপাড়া, জগদ্দল, ভাটপাড়া, নৈহাটি, বীজপুর এবং আমডাঙা এই সাতটি বিধানসভা রয়েছে। অর্জুন আমডাঙা ও নোয়াপাড়া বাদে পাঁচটি বিধানসভাতেই লিড পেয়েছিলেন। স্বাভাবিকভাবেই অর্জুনবাবুর গড়ে এবার সাতটি আসনেই পদ্ম ফোটার আশায় ছিল গেরুয়া শিবির। 
কিন্তু, ফল প্রকাশের পর সবার মুখ হাঁ হয়ে গিয়েছে। ঝুলিতে মাত্র একটি আসন—ভাটপাড়া। বাকি ছ’টি বিধানসভাতেই ঘাসফুল! কিন্তু, বিজেপির এই শোচনীয় পরাজয় কেন? তৃণমূল কংগ্রেস নেতা পার্থ ভৌমিক বলেন, ২০১৯-এর লোকসভায় এই বারাকপুর কেন্দ্রে বিজেপি জয়ী হওয়ার পর টানা তিনমাস সন্ত্রাস করছিল। হাজার হাজার মানুষ ঘরছাড়া হয়ে গিয়েছিলেন। মানুষ সেই অশান্তি চাননি। তাই বিজেপিকে সরাসরি প্রত্যাখান করেছেন। দ্বিতীয়ত, বারাকপুর লোকসভার সাতটি বিধানসভার সাধারণ মানুষই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নানা উন্নয়নমূলক প্রকল্পের সুবিধা পেয়েছেন। বাংলার সম্প্রীতি, ঐতিহ্যকে বজায় রাখার পাশাপাশি সেই উন্নয়নের পক্ষেও মানুষ রায় দিয়েছেন।
দলের এই পরাজয় নিয়ে অর্জুন সিংকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, এখন কিছু বলতে পারব না। প্রসঙ্গত, ভোট পরবর্তী গণ্ডগোলের পর মঙ্গলবার জগদ্দলে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীদের বাড়িতে গিয়েছিলেন অর্জুন সিং। সংবাদ মাধ্যমের সামনে তাঁর মুখে হতাশার সুর শোনা গিয়েছে। দলীয় কর্মীরা আক্রান্ত হওয়ার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার সঠিক পদক্ষেপ নিক। কেন্দ্র চোখ বুজে থাকবে, এটাও ঠিক নয়। আমি দলকে বলেছি, সাময়িকভাবে যখন আমরা মানুষকে রক্ষা করতে পারব না, তখন পদত্যাগ করব। তা না-হলে রাষ্ট্রপতি ভবন বা রাজ্যপাল ভবনের সামনে আমরণ অনশন করব। 

5th     May,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
9th     May,   2021