বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

রাজ্য পুলিসের সমস্ত থানায় বসানো
হবে অত্যাধুনিক সিসিটিভি ক্যামেরা

শুভ্র চট্টোপাধ্যয়, কলকাতা : রাজ্য পুলিসের সমস্ত থানা ও ফাঁড়িতে থাকা নজরদার ক্যামেরাগুলি বাতিল করা হচ্ছে। তার জায়গায় বসবে আরও আধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন ক্যামেরা। কোন থানায় ক’টি ক্যামেরা বসানোর প্রয়োজন, সেই সংক্রান্ত তালিকা ইতিমধ্যেই তৈরি করে ফেলা হয়েছে।  এর জন্য বাজেট ধরা হয়েছে ৩০০ কোটি টাকা।
রাজ্য পুলিসের ছোট-বড় সমস্ত থানাতেই ক্যামেরা রয়েছে। ইনসপেক্টরের চেম্বার থেকে ক্যামেরার মাধ্যমে পুরো থানায় নজরদারি চলে। এমনকী, থানার আশপাশের একটা বড় অংশও সিসি ক্যামেরার আওতায় থাকে। সেক্ষেত্রে অপরাধ দমনে এই ক্যামেরাগুলি পুলিসের বড় ভরসা। বর্তমানে প্রতিটি থানায় গড়ে ৪টি করে সিসি ক্যামেরা রয়েছে। বড় থানার ক্ষেত্রে সংখ্যাটা ৭ বা ৮।
থানার মধ্যে অপরাধীদের মারধরের ঘটনা বা পুলিসকর্মীদের অনৈতিক কাজকর্মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশেই থানাগুলিতে ক্যামেরা বসানোর কাজ শুরু হয়। পুলিস মর্ডানাইজেশন ফান্ডের টাকায় এই ক্যামেরা কেনা হয়েছিল। কিন্তু, ওই ক্যামেরাগুলিতে ৩০ দিনের ফুটেজ স্টোর করার ক্ষমতা রয়েছে। পাশাপাশি সেগুলিতে নাইট ভিশন প্রযুক্তিও নেই। মান্ধাতার আমলের ওই ক্যামেরাগুলির ফুটেজ কোয়ালিটি অত্যন্ত খারাপ। এই পরিস্থিতিতে সম্প্রতি সর্বোচ্চ আদালত নির্দেশ দেয়, প্রতিটি থানায় উন্নতমানের ক্যামেরা বসাতে হবে। নির্দেশিকায় বলা হয়, মুখ ঘোরে এমন ক্যামেরা বসাতে হবে। যাতে সব কোণের ছবি তাতে ধরা পড়ে। এছাড়াও প্রতিটি ক্যামেরায় ইনফ্রারেড, নাইট ভিশন এবং ৪৫ দিনের স্টোরেজ ক্যাপাসিটি থাকতে হবে। 
সাধারণ থানা, মহিলা থানা, সাইবার থানা ও কোস্টাল থানা মিলিয়ে ৫৫০টির বেশি থানা রয়েছে রাজ্য পুলিসে। কোথাও সুপ্রিম কোর্টের নয়া গাইডলাইন মোতাবেক ক্যামেরা বসানো নেই। ফলে সমস্যায় পড়েছেন  পুলিসকর্তারা। সূত্রের খবর, প্রায় ২৩০০টির কাছাকাছি ক্যামেরা বাতিল করতে হবে। জেলাগুলি থেকে পাঠানো তালিকা অনুযায়ী, প্রায় ২৫০০ ক্যামেরা লাগবে। ধাপে ধাপে এই ক্যামেরা বসানোর কাজ চলবে। মোট ৩০০ কোটির বাজেটের মধ্যে প্রতিবছর ৫০ কোটি টাকার নতুন ক্যমেরা বসবে। টাকার জন্য দিল্লির কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। কিন্তু, এখনও পর্যন্ত এর জন্য টাকা বরাদ্দ করেনি কেন্দ্রীয় সরকার। এই টাকা না এলে রাজ্যকে নিজের টাকাতেই গোটা প্রকল্পটি শেষ করতে হবে। কিন্তু, এই চরম আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে ওই বিপুল পরিমাণ অর্থ কোথা থেকে আসবে, তাই নিয়ে চিন্তিত কর্তারা।

8th     April,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
10th     April,   2021