বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

বাংলা মায়ের ঋণ শোধ করতে এবার
বিজেপিকে একটা ভোটও নয়: মমতা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বাংলার মানুষ তাঁকে অনেক কিছু দিয়েছে। তিনি ঋণী। এবারের লড়াই বাংলাকে রক্ষার সংগ্রাম। তাই বাংলা মায়ের সেই ঋণ শোধ করতে এবার বিজেপিকে একটাও ভোট নয়, আর্জি তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। দৃঢ় গলায় শোনা গেল প্রতিজ্ঞার সুর, বাংলাকে ভাগ হতে দেবেন না। শোনা গেল, বঙ্গভঙ্গের বিরুদ্ধে ‘বাঘের বাচ্চার’ মতো লড়ার কথা। বুধবার তৃণমূলের খাসতালুক হিসেবে পরিচিত কলকাতায় প্রথম নির্বাচনী জনসভা ছিল নেত্রীর। সেখান থেকেও বাংলাকে রক্ষা করতে বিজেপিকে উৎখাতের ডাক দিলেন তিনি।
এদিন উত্তরবঙ্গের কোচবিহার, শীতলকুচিতে সভা শেষ করে শহরে পা রাখেন আসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ১০ এপ্রিল চতুর্থ দফায় কলকাতার একাধিক বিধানসভা আসনে নির্বাচন রয়েছে। তার মধ্যে অন্যতম যাদবপুর কেন্দ্র। এদিন সেই বিধানসভা আসনের তৃণমূল প্রার্থী দেবব্রত মজুমজারের সমর্থনে বাঘাযতীনে জনসভা করেন মমতা। তারপর টালিগঞ্জে দলীয় প্রার্থী অরূপ বিশ্বাসের সমর্থনে হয় আরও একটি জনসভা। দু’টি সভা থেকেই বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক ছিলেন তিনি। তাঁর বক্তব্যের বড় অংশ জুড়েই ছিল বাংলাকে রক্ষা করার প্রসঙ্গ। পাশাপাশি গত ১০ বছরে মা-মাটি-মানুষের সরকারের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরেছেন মমতা। জানিয়েছেন শুধু দেশের সেরা নয়, বিশ্ব দরবারে বাংলাকে কীভাবে এগিয়েছে, সেই তথ্যও। বাংলার উন্নতিতে তাঁর আগামী পরিকল্পনার কথা মানুষের কাছে এদিন পৌঁছে দিয়েছেন তিনি। আর তারপরেই করেছেন মারাত্মক অভিযোগগুলি—‘কোটি কোটি টাকা ছড়িয়ে, বিভিন্ন এজেন্সিকে কাজে লাগিয়ে বাংলা দখল করতে চাইছে বিজেপি। কিন্তু কোনও অবস্থায় বাংলাকে ভাগ হতে বা বাংলাকে বিক্রি হতে দেব না।’ বাংলাকে রক্ষা করতে প্রেস্টিজিয়াস এই নির্বাচনে জোড়াফুলে ভোট দিয়ে তৃণমূলকে জেতানোর আর্জিও জানিয়েছেন।
আট দফায় নির্বাচন নিয়ে নির্বাচনী নির্ঘণ্ট ঘোষণা পর থেকেই সরব মমতা। ইতিমধ্যে তিনটি দফার ভোটগ্রহণ হয়ে গিয়েছে। সেই ভোটপর্ব নিয়ে এদিন সরব ছিলেন নেত্রী। তাঁর অভিযোগ, ‘কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান বিজেপিকে ভোট দিতে বলছে। যা আগে কখনও দেখা যায়নি। আর বিজেপিকে ভোট না দিলে অত্যাচারের হুমকিও দিচ্ছে বাহিনী। বিজেপির মণ্ডল কমিটির কথায় নির্বাচনের দিনক্ষণ নির্ধারিত হয়েছে।’ আর এই কাজে বিজেপি সিপিএমের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে বলেই মনে করেন তৃণমূল সুপ্রিমো।
এ পর্যন্ত ৯১টি আসনে নির্বাচন হয়ে গিয়েছে। তাতে তৃণমূলের পক্ষেই মানুষ রায় দিয়েছেন বলে আত্মবিশ্বাসী নেত্রী। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্টমন্ত্রী ওই ৯১টি আসনের মধ্যে ৬৮-৭০টি আসন পাওয়ার যে দাবি করেছেন, তা এদিন উড়িয়ে দিয়েছেন মমতা। বলেছেন, ‘সিপিএম, কংগ্রেসের মদতে বিজেপি ২৫-৩০টা পেতে পারে। কিন্তু মানুষ আমাদের সমর্থন করছেন, পাশে আছেন, এটা আমরা জানি।’ এর আগে ছত্তিশগড়, ঝাড়খণ্ড, মহারাষ্ট্র, দিল্লির নির্বাচনেও বিপুল আসন পাবেন দাবি করেছিলেন অমিত শাহ। তা বাস্তব হয়নি বলে খোঁচা দিয়েছেন নেত্রী। পাল্টা জানিয়েছেন, এক লক্ষ গেরুয়া সেনার বিরুদ্ধে আমাকে লড়াই করতে হচ্ছে। টেনেছেন ‘টাকার রাজনীতির’ প্রসঙ্গও। তাঁর কথায়, একে মিথ্যা কথা বলছে। টাকা ছড়াচ্ছে। পশ্চিমবঙ্গজুড়ে তাণ্ডব করছে। আবার বিহার, ঝাড়খণ্ড, উত্তরপ্রদেশ থেকে গুন্ডাদেরও নিয়ে আসছে। এমতাবস্থায় প্রার্থী ও কর্মীদের কাছে  বুথ রক্ষা করার বার্তা দিয়েছেন দলনেত্রী। উল্লেখ করেছেন, বিজেপির রিগিং রুখতে তাঁর নন্দীগ্রামের বয়ালে বুথে প্রায় তিন ঘণ্টা বসে কথার কথা। শেষে তৃণমূল প্রার্থীকে পাশে মমতার নির্দেশ, দুর্বল বুথ এজেন্ট কোনওমতেই নয়। 

8th     April,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
13th     April,   2021