বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

ভোট দিলেই মিলবে হাজার টাকা
মোদির সভার জন্য বিলি করা
কুপন নিয়ে নালিশ কমিশনে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ভোট টানতে টাকা বিলিই ভরসা বিজেপির। তবে হাতে হাতে নয়। রীতিমতো এক হাজার টাকার কুপন বিলি করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির রায়দিঘির সভা ঘিরে। মঙ্গলবার বিষয়টি সামনে আসতেই উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। ওই কুপন সহ নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাদের দাবি, প্রধানমন্ত্রীর সভায় লোক টানতে এবং বিজেপির পক্ষে ভোট দেওয়ার জন্যই সেগুলি বিলি করা হয়েছে। এই বেআইনি কাজের জন্য বিজেপির বিরুদ্ধে কমিশনকে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছে রাজ্যের শাসকদল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও কুপন ইস্যুতে তুলোধোনা করেছেন গেরুয়া শিবিরকে। বুধবার যাদবপুরের জনসভায় তিনি বলেন, ‘বিজেপির সভায় লোক হচ্ছে না। পয়সা দিয়ে লোক আনা হচ্ছে। শুনলাম, রায়দিঘিতে হাজার টাকা করে দিয়েছে। কোথাও আবার পাঁচশো। ক্যাশ টাকা। আমার প্রশ্ন, চাল যখন বিনে পয়সায় দিচ্ছি, তখন গ্যাসের দাম ৯০০ টাকায় পৌঁছে গেল কী করে? এখন লোক আনতে টাকা দিতে হচ্ছে।’ তৃণমূলের অভিযোগ খতিয়ে দেখছে নির্বাচন কমিশন। যদিও এমন কোনও ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সহ সভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদার।
১ এপ্রিল, ২০২১ তারিখ লেখা ওই কুপনে ‘ভারতীয় জনতা পার্টি মথুরাপুর সাংগঠনিক জেলা’, ‘মোদিজির জনসভা’ এবং ‘১০০০ টাকা’ বড় বড় করে লেখা রয়েছে। এটি কোনও অনুদানও হতে পারে না, কারণ সেক্ষেত্রে তা লেখা থাকত। ভোটের জন্য টাকা লেনদেন জনপ্রতিনিধিত্ব আইন, ১৯৫১ এবং ভারতীয় দণ্ডবিধি, ১৮৬০ অনুযায়ী অপরাধ। তাই এই কুপন প্রকাশ্যে আসায় বেশ অস্বস্তিতে বিজেপি।
এদিকে, গত ৩ এপ্রিল তারকেশ্বরে দেওয়া বক্তৃতা আদর্শ আচরণবিধি ভেঙেছে বলে এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘শো-কজ’ করেছে নির্বাচন কমিশন। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে এই নোটিসের জবাব দিতে হবে। এর পাশাপাশি, এদিন আরও তিন জেলাশাসক ও কলকাতার রিজেন্ট পার্ক ও বাঁশদ্রোণী থানার ওসিকে সরানো হয়েছে। দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলাশাসক নিখিল নির্মলকে সরিয়ে সেখানে আনা হয়েছে সি মুরুগানকে। পূর্ব বর্ধমানের এনাউর রহমানের জায়গায় দায়িত্ব পেয়েছেন শিল্পা গৌরিসারিয়া। পশ্চিম বর্ধমানের পূর্ণেন্দু মাজিকে সরিয়ে জেলাশাসক করা হয়েছে অনুরাগ শ্রীবাস্তবকে।
অন্যদিকে, তৃতীয় দফা নির্বাচনেও ভোটদানের হার ৮০ শতাংশ ছাড়িয়েছে। রাজ্যের ৩১টি আসনে ভোটদানের হার ছিল ৮৪.৬১ শতাংশ। এর মধ্যে দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৮৫.৫১, হাওড়ায় ৮৩.৫৫ এবং হুগলিতে ৮৩.৭৫ শতাংশ ভোট পড়েছে। এবার বেশ কয়েকজন প্রার্থী আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরবর্তী দফাগুলিতে যাতে সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সে ব্যাপারে উদ্যোগী হয়েছে কমিশন। তাদের সিদ্ধান্ত, কোনও প্রার্থী যদি নিরাপত্তারক্ষী চান, তাহলে তা বিবেচনা করা হবে। এরইমধ্যে আরও ২০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী এল বাংলায়। আগামী শনিবারের নির্বাচনে কলকাতায় ৯৪, আলিপুরদুয়ার পুলিস জেলায় ৯৬, কোচবিহারে ১৮৩, হাওড়া পুলিস কমিশনারেটে ৯৯, হাওড়া গ্রামীণে ৩৫, ডায়মন্ডহারবার পুলিস জেলায় ৩৮, বারুইপুর পুলিস জেলায় ৩৮, চন্দননগর পুলিস কমিশনারেটের অধীনে ৭৯ কোম্পানি বাহিনী থাকছে।

8th     April,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
13th     April,   2021