বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
রাজ্য
 

সাশ্রয় অনেকটাই, আগুন দামের সিলিন্ডার
ছেড়ে ইন্ডাকশনে রান্নায় ঝুঁকছেন অনেকেই 

বাপ্পাদিত্য রায়চৌধুরী, কলকাতা: গত ডিসেম্বর মাসের গোড়ায় কলকাতায় রান্নার গ্যাসের দাম ছিল ৬২০.৫ টাকা। তিন মাস পেরতে না পেরতেই তার দাম ৮৪৫ টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছে। অথচ ভর্তুকি বাবদ জুটছে ২০ টাকারও কম। অর্থাৎ একটি সিলিন্ডারের নিট দাম পড়ছে প্রায় ৮২৫ টাকা। আচ্ছে দিনের স্বপ্ন দেখানো নরেন্দ্র মোদি সরকারের এই সিদ্ধান্তে মাথায় বাজ পড়েছে মধ্যবিত্তের। পকেট সামাল দিতে এখন অনেকেই খরচ কমানোর উপায় খুঁজছেন। বিকল্প পথ হিসেবে উঠে আসছে ইন্ডাকশন ওভেনের ব্যবহার। হিসেব বলছে, এখন রান্নার গ্যাসের যা দাম, তার তুলনায় ইন্ডাকশন ওভেনে রান্নার খরচ অনেক কম। এই পরিস্থিতিতে বিদ্যুৎচালিত ইন্ডাকশন ওভেনের বিক্রি বেড়েছে অনেকটাই।
কতটা সাশ্রয় হতে পারে ইন্ডাকশন ওভেনে? হিসেব করার আগে দেখে নেওয়া যাক রান্নার গ্যাসের আয়ু কত দিন। অল ইন্ডিয়া এলপিজি ডিস্ট্রিবিউটর্স ফেডারেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট বিজনবিহারী বিশ্বাস বলেন, একটি সিলিন্ডার কতদিন চলবে, তা পরিবারের সদস্য সংখ্যা ও রান্নার পদের উপর নির্ভর করে। কলকাতা শহরের যতজন গ্যাস গ্রাহক রয়েছেন, তাঁদের ৬০ থেকে ৭০ শতাংশই প্রতি মাসে গ্যাস বুক করেন। এর থেকে ধরে নেওয়া যায় একটি সিলিন্ডার গড়ে ৪০ দিন চলে। অর্থাৎ ৪০ দিন রান্নার জন্য জ্বালানি খরচ হচ্ছে ৮২৫ টাকা। বাজারে যে ইন্ডাকশন ওভেনগুলি পাওয়া যায়, সেগুলি বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সর্বোচ্চ দু’হাজার ওয়াটের হয়। গ্যাসের তুলনায় ইন্ডাকশন ওভেনে রান্না হয় তাড়াতাড়ি। যদি কোনও পরিবারে এক হাজার ওয়াটে দু’ঘণ্টা রান্না হয়, তাহলে বিদ্যুৎ খরচ হবে দুই ইউনিট। বিদ্যুতের দাম নির্ভর করে পরিবারে কত ইউনিট বিদ্যুৎ খরচ হচ্ছে, তার উপর। বর্তমান বাজারদর অনুযায়ী যদি ধরে নেওয়া হয়, এক ইউনিট বিদ্যুতের দাম সাত টাকা, তাহলে ইন্ডাকশন ওভেনে দৈনিক বিদ্যুৎ খরচ ১৪ টাকা। ৪০ দিনের জন্য খরচ হবে ৫৬০ টাকা। অর্থাৎ ৮২৫ টাকার সিলিন্ডারের তুলনায় তা অনেকটাই কম।
তবে গ্যাসের দাম বেড়ে যাওয়ায় আশার আলো দেখছেন ইন্ডাকশন ওভেনের ব্যবসায়ীরা। ইতিমধ্যেই এই বৈদ্যুতিন যন্ত্রটির বাজার বাড়তে শুরু করেছে। গৃহস্থের ব্যবহারের নানা রকম যন্ত্রপাতি অর্থাৎ হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস বিক্রির অন্যতম প্রতিষ্ঠান গ্রেট ইস্টার্ন ট্রেডিং কোম্পানির অন্যতম কর্ণধার মনীশ বেদ বলেন, রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডারের দাম গত কয়েক মাস ধরেই ঊর্ধ্বমুখী। গত একমাসে আমাদের ইন্ডাকশন ওভেনের বিক্রি প্রায় তিনগুণ বেড়ে গিয়েছে। বাজার আপাতত এমন থাকবে বলেই আশা তাঁর।
অন্যতম ইন্ডাকশন ওভেন নির্মাতা সংস্থা টিটিকে প্রেস্টিজের কলকাতার অন্যতম কর্তা বিকাশ গুপ্তা বলেন, ২০১৫ সালে যখন নেপালে ভূমিকম্প হয়, সেই সময় আচমকা ইন্ডাকশন ওভেনের চাহিদা অনেকটা বেড়ে গিয়েছিল। পশ্চিমবঙ্গ তো বটেই, নেপালের কাছাকাছি থাকা রাজ্য, যেমন বিহার, উত্তরপ্রদেশ থেকে সেই সময় প্রচুর ইন্ডাকশন ওভেন নেপালে পাঠানো হয়েছিল। সেই পরিস্থিতি আবার ফিরে এসেছে। রান্নার গ্যাসের দাম যেভাবে বাড়ছে, তাতে পাল্লা দিয়ে চাহিদা বাড়ছে ইন্ডাকশন ওভেনের। ইতিমধ্যেই অন্তত ৩০ শতাংশ বিক্রি বেড়ে গিয়েছে। আগামী দিনে তা আরও বাড়বে।
তবে রান্নার গ্যাস হোক বা ইন্ডাকশন ওভেন— খরচ কমানোর বিষয়টি অনেকটা নির্ভর করে ব্যবহারকারী উপর। অ্যালুমিনিয়ামের বদলে কপার কয়েলের ব্যবহার, দীর্ঘক্ষণ ধরে স্টোভ জ্বালিয়ে রান্না না করা, যখন ব্যবহার করা হবে না, তখন সম্পূর্ণভাবে সুইচ অফ করে রাখার মতো নিয়মগুলি মানলে ইন্ডাকশন ওভেনে বিদ্যুতের খরচ অনেকটাই বাঁচানো যায়। আবার গ্যাসের ক্ষেত্রে রান্নার আগে সমস্ত উপকরণ জোগাড় করে রাখা, তরকারি ফুটে উঠলে আঁচ কমিয়ে দেওয়া, ঢাকা দিয়ে রান্না করার অভ্যাস, চ্যাটালো পাত্রে রান্না, প্রেসার কুকারের ব্যবহার বাড়ানো প্রভৃতি নিয়ম বা অভ্যাসগুলি বজায় রাখলে গ্যাস বাঁচানো যায় অনেকটাই, বলছেন বিশেষজ্ঞরা। 

6th     March,   2021
 
 
কলকাতা
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
10th     April,   2021