বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

মোটা টাকা বাজি রেখে বাইক রেস
বাসন্তী হাইওয়েতে দুর্ঘটনার তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বেশি রাতে পুলিসি নজরদারি যখন কিছুটা আলগা হয়, তখনই জেগে ওঠে বাইক রেসের কুশলীরা। মোটা টাকা বাজি রেখেই চলে রেসিং। একাধিক দলে ভাগ হয়ে যুবকরা অংশ নেয় এই রেসে। মঙ্গলবার রাতে কেএলসি থানা এলাকার বাসন্তী হাইওয়েতে ভয়াবহ দুর্ঘটনায় তিন বাইক আরোহীর মৃত্যুর তদন্তে নেমে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য জানতে পেরেছে কলকাতা পুলিস। এই দুর্ঘটনায় যে বাইক দু’টি দুমড়ে-মুচড়ে গিয়েছে, সেগুলি অংশ নিয়েছিল এই রেসিংয়েই।
পুলিসের এক সূত্র জানাচ্ছে, বাইক রেসের জন্য নিউটাউন, হাতিশালার ছ’ লেনের রাস্তা, তারদহ এলাকা, বামনঘাটা থেকে সায়েন্স সিটি— এই সব রাস্তাই পছন্দ বাইক রেসারদের। নিউটাউন, বজবজ, ভাঙড়, বামনঘাটার মতো এলাকা থেকে বাইক নিয়ে এই রেসে যোগ দিতে আসেন উঠতি বয়সের ছেলেরা। বিষয়টি জানতেন স্থানীয় ট্রাফিক গার্ডের এক অফিসার। তিনি তা জানার পর ওই যুবকদের বাড়িতে গিয়ে অভিভাবকদের সতর্ক করে এসেছিলেন। কিন্তু তাতে লাভের লাভ কিছু হয়নি। যে কারণে মঙ্গলবার রাতে বাইক রেসের জেরেই অকালে ঝরে গেল তিনটি তাজা প্রাণ।
মঙ্গলবার রাতে সায়েন্স সিটির দিক থেকে দু’টি পৃথক বাইকে চেপে রেস করে বামনঘাটার দিকে যাচ্ছিলেন চার যুবক। ঘড়িতে তখন সাড়ে ৯টা হবে। প্রত্যক্ষদর্শীদের কথায়, বাইক দু’টি প্রায় দেড়শো কিমি বেগে ছুটছিল। বাসন্তী হাইওয়ের উপর ‘সিক্স সিজনস’ বাস স্টপের কাছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সামনে থাকা একটি লরির পিছনে ধাক্কা মারে বাইক দু’টি। চারজনই ছিটকে পড়েন রাস্তায়। তাঁদের উদ্ধার করে এসএসকেএম হাসপাতালের ট্রমা কেয়ার ইউনিটে নিয়ে যায় পুলিস। সেখানে চিকিৎসকরা তিনজনকে মৃত বলে ঘোষণা 
করেন। মৃতরা হলেন প্রদীপ নস্কর, অচ্যুতানন্দ গায়েন ও শুভদীপ লাহা। অন্যজনের নাম রাকেশ দাস। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক। মৃত ও জখম সবারই বয়স আঠারো থেকে পঁচিশের মধ্যে।
দুর্ঘটনার সময় বাইক দু’টি এতটাই গতিতে ছিল যে, তার অভিঘাতে কার্যত তুবড়ে গিয়েছে সেগুলি। এমনকী দু’টি বাইকের নম্বর প্লেট পর্যন্ত মেলেনি। পুলিসের দাবি, রেস চলাকালীন কারও মাথাতেই হেলমেট ছিল না। দুর্ঘটনার পর লরিটি পালিয়ে গিয়েছে। কেএলসি থানার পুলিস ঘটনাস্থল থেকে বাইক দু’টিকে আটক করে ও এই ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত শুরু করে। পরে লালবাজারের ফেটাল স্কোয়াড এই  দুর্ঘটনার তদন্তভার হাতে নেয়।
বাসন্তী হাইওয়ে যেন মরণফাঁদ হয়ে উঠেছে। শুধু আমজনতা নয়, তিলজলা ট্রাফিক গার্ডের সার্জেন্টও প্রাণ হারিয়েছেন এই বাসন্তী হাইওয়েতে। একাধিকবার খালে গাড়ি পড়ে গিয়ে প্রাণহানি ঘটেছে এই রাস্তায়। আবার কখনও খানাখন্দ ভরা রাস্তায় টাল সামলাতে না পেরে বাইক দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে। তবুও পর্যাপ্ত নজরদারি নেই এই তল্লাটে। মঙ্গলবার রাতের এই দুর্ঘটনা যেন সেটাই আরও একবার আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল।

1st     December,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ