বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

অন্তর্কলহ প্রকট, গ্রামীণ হাওড়ায়
‘বিজেপি বাঁচাও মঞ্চ’ গড়লেন বিক্ষুব্ধরা

সংবাদদাতা, উলুবেড়িয়া: নিয়োগ দুর্নীতি থেকে সাম্প্রতিক গোরু পাচারকাণ্ড। একাধিক ঘটনায় রাজ্যের শাসক দলকে কোণঠাসা করতে তৎপর বিরোধীরা। প্রধান বিরোধী হিসেবে বিজেপি এসব ঘটনা থেকে ফায়দা তুলতে নানা কর্মসূচি নিচ্ছে। কিন্তু গেরুয়া শিবিরের নিজস্ব সংগঠনের হাল যে আদৌ ফেরেনি, বরং দিনে দিনে অভ্যন্তরীণ কোন্দল আরও বেআব্রু হচ্ছে—তার আরেকটি প্রমাণ মিলল হাওড়ায়। সূত্রের খবর, দলীয় নেতৃত্বে পরিবর্তনের ডাক দিয়ে রীতিমতো মঞ্চ খুলে ফেলেছেন বিজেপির একদল বিক্ষুব্ধ নেতা। সেই কমিটির নাম দেওয়া হয়েছে বিজেপি বাঁচাও মঞ্চ (পঃবঃ)। আগামী রবিবার শ্যামপুরের গড়চুমুক হাটে এক আলোচনা সভার ডাক দিয়েছেন দলের এই বিক্ষুব্ধরা। ওই কর্মসূচি প্রসঙ্গে বিজেপির শ্যামপুরের প্রাক্তন মণ্ডল সভাপতি তথা অন্যতম উদ্যোক্তা আশিস সাউ বলেন, আমরা বিজেপিতে থেকেই ঘর পরিষ্কার করার ডাক দিয়েছি। দলীয় নেতৃত্বের পরিবর্তন চাইছি। বর্তমান নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ক্ষোভ থাকায় অনেক ভালো কর্মী বসে আছেন। আমরা বিজেপি করলেও এই নেতৃত্বের বাইরে থেকেই দল করছি। তাঁর দাবি, মাস দু’য়েক আগে এ ব্যাপারে তাঁরা দলের রাজ্য দপ্তরে অভিযোগ জানিয়েছেন। কিন্তু সেখান থেকে কোনও প্রতিক্রিয়া না আসায় তাঁরা নেতৃত্বের বিরুদ্ধে আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন। এই আন্দোলন আগামী দিনে রাজ্যের প্রতিটি বিধানসভায় ছড়িয়ে দেওয়ার দাবিও করেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, দলীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আমরা কেন্দ্র ও রাজ্যের নেতাদের চাপে রাখতে চাইছি। 
তবে এরকম কোনও মঞ্চের বিষয়ে তাঁর কিছু জানা নেই বলে দাবি করেছেন  বিজেপির হাওড়া (গ্রামীণ) জেলা সভাপতি অরুণউদয় পাল চৌধুরী। তিনি বলেন, গ্রামীণ জেলায় বিজেপি ঐক্যবদ্ধ আছে এবং রাজনৈতিকভাবে প্রভাব বিস্তার করছে। বিক্ষুব্ধদের সম্পর্কে তাঁর কটাক্ষ, এরা ভারতীয় জনতা পার্টির কেউ নয়। পয়সার বিনিময়ে তৃণমূলের দালালরা মানুষকে বিভ্রান্ত করার জন্য এসব রটাচ্ছে। এ প্রসঙ্গে হাওড়া (গ্রামীণ) জেলা তৃণমুল কংগ্রেসের   সভাপতি তথা বাগনানের বিধায়ক অরুণাভ সেন বলেন, বিজেপিতে অসাধু লোকের ছড়াছড়ি। তাই ধীরে ধীরে বিক্ষুব্ধদের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। তিনি আরও বলেন, এ রাজ্যে বিজেপি এখন ক্ষয়িষ্ণু দল। সব ক্ষেত্রেই তৃণমূলের ভূত দেখছে তারা। 
বিজেপির অভ্যন্তরীণ এই আকচাআকচিতে সংগঠনের বেহাল দশাই প্রকট হচ্ছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। দুর্নীতির বিভিন্ন ঘটনায় গেরুয়া শিবির তেড়েফুঁড়ে ময়দানে নামতে চাইলেও এই অন্তর্দ্বন্দ্বের কারণে  সাধারণ মানুষের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া হচ্ছে বলে মনে করছেন বিজেপির  নেতাকর্মীদের একাংশই। গত বিধানসভা নির্বাচনে হাওড়ায় খাতা খুলতে পারেনি বিজেপি। সেই হারের ময়নাতদন্তে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলকেই দায়ী করা হয়েছিল।

20th     August,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ