বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

ছেলেকে অপহরণে অভিযুক্ত স্বয়ং
বাবা, হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন মা
ছেলেকে অপহরণে অভিযুক্ত স্বয়ং বাবা, হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন মা

শুভঙ্কর বসু, কলকাতা: বাবার বিরুদ্ধেই ছেলেকে অপহরণের অভিযোগ! অভিযোগকারী আর কেউ নয়, সেই ছেলেটির মা স্বয়ং! দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তীর বাসিন্দা শামিনান মোল্লার অভিযোগ, তাঁর স্বামী কোলের শিশুকে অপহরণ করে বাংলাদেশে চম্পট দিয়েছে। এই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ সহ ছেলেকে ফিরে পাওয়ার দাবিতে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন মা। মহিলার কাতর আর্জি শোনার পর বিচারপতি শম্পা সরকারের নির্দেশ, দু’মাসের মধ্যে শিশুটিকে মায়ের কাছে ফিরিয়ে দিতে হবে। কিন্তু হঠাৎ কেন নিজের ছেলেকে অপহরণ করতে গেলেন বাবা? আসল ঘটনা কী? 
জানা গিয়েছে, ২০১৬ সালে কর্মসূত্রে মহম্মদ বিল্লাল মোল্লা নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে শামিনানের পরিচয় হয়। বিল্লাল নিজেকে উত্তরপ্রদেশের মোরাদাবাদের বাসিন্দা বলে পরিচয় দেয়। দিনে দিনে দু’জনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয়। ওই বছর আগস্ট মাসে তাঁদের বিয়ে হয়। এরপর শামিনানকে নিয়ে মুম্বই পাড়ি দেয় বিল্লাল। সেখানেই সে কাজ করত। মুম্বইতে থাকাকালীন গর্ভবতী হন শামিনান। এর মাঝেই হঠাৎ একদিন শামিনান জানতে পারেন, বিল্লাল তাঁকে মিথ্যা পরিচয় দিয়েছে। সে আদৌ উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা বা ভারতীয় নাগরিক নয়। তার বাড়ি বাংলাদেশের মাদারিপুরে। সেখানে তার স্ত্রীও রয়েছেন। বিষয়টি শামিনান জেনে গিয়েছেন বুঝতে পেরেই বিল্লাল তাঁর উপর মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন শুরু করে বলে অভিযোগ। বাধ্য হয়ে বাসন্তীতে বাপের বাড়ি ফিরে আসেন শামিনান। এর কিছুদিন পর তিনি একটি পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। এই খবর পাওয়া মাত্রই ছেলেকে দেখার অছিলায় বিল্লাল শামিনানের সঙ্গে যোগাযোগ করে ও বাসন্তীতে এসে হাজির হয়। এরপর মাঝেমধ্যেই ছেলের সঙ্গে দেখা করতে আসত বিল্লাল। অভিযোগ, ২০২০ সালের ১১ ডিসেম্বর ছেলেকে দেখতে বাসন্তীতে আসে সে। বাজারে ঘোরাতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ছেলেকে নিয়ে সে উধাও হয়। আর তার পাত্তা পাওয়া যায়নি। বিষয়টি বুঝতে পেরে বাসন্তী থানায় ছোটেন শামিনান। পরে তিনি জানতে পারেন, শামিনানের এক তুতো ভাই আরিফ মোল্লা এবং বিল্লালের বন্ধু সঞ্জয় দাস মিলে শিশুটিকে বাংলাদেশে পাচার করেছে। শামিনানের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্তে নামে সিআইডি। তারা জানতে পারে, বর্তমানে শিশুটি বাংলাদেশে বিল্লালের বাড়ির লোকের কাছেই রয়েছে। কিন্তু তাকে এখনও উদ্ধার করা যায়নি। মামলার শুনানিতে সিআইডি জানিয়েছে, শিশুটিকে এদেশে ফিরিয়ে আনার জন্য ইতিমধ্যেই বিদেশ মন্ত্রকের মাধ্যমে বাংলাদেশ হাই কমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। কিন্তু তাদের তরফে এখনও কোনও পদক্ষেপের কথা সিআইডিকে জানানো হয়নি। পাশাপাশি রাজ্য সরকারের বিশেষ সচিবের (ফরেনার্স ব্রাঞ্চ) দ্বারস্থ হয়েছে সিআইডি। কোনও উত্তর মেলেনি। এই বক্তব্য শোনার পরই বিদেশ মন্ত্রক এবং স্বরাষ্ট্র দপ্তরের ফরেনার্স ব্রাঞ্চকে মামলায় পক্ষ করার নির্দেশ দেন বিচারপতি। সেই সঙ্গে দু’মাসের মধ্যে ওই শিশুকে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য সব পক্ষকেই নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি সরকার। ৩ নভেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানি।

12th     August,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ