বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

অল্প বৃষ্টিতেই স্কুলের সামনে
জল থই থই, তীব্র ভোগান্তি

সংবাদদাতা, উলুবেড়িয়া: আকাশে কালো মেঘ দেখলেই উলুবেড়িয়া রঘুদেবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বেলকুলাই চন্দ্রকুমার অধরচন্দ্র বিদ্যাপীঠের ছাত্রছাত্রীদের মাথায় হাত। কারণ একটু বৃষ্টি হলেই বিদ্যালয়ের যাওয়ার রাস্তা থেকে বিদ্যালয়ের সামনের মাঠ জলে ভর্তি হয়ে যাবে। আর সেই জল পেরিয়েই তাদের স্কুলে যেতে হবে। প্রায় দুই বছর ধরে এই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী থেকে শিক্ষক-শিক্ষিকারী এই জলযন্ত্রণায় ভুগছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও সুরাহা না হওয়ায় তীব্র সমস্যার মুখে সকলে। এই জল-যন্ত্রণা দূর করতে বিদ্যালয় কৃর্তপক্ষ স্থানীয় রঘুদেবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের দারস্থ হয়েছে। এদিকে, পঞ্চায়েতের দাবি, মাঠ স্কুলের অধীনে। সুতরাং সমস্যা মেটানোর দায়িত্বও স্কুল কর্তৃপক্ষের।
বর্ষাকালে বেলকুলাই চন্দ্রকুমার অধরচন্দ্র বিদ্যাপীঠের মূল গেট থেকে বিদ্যালয় পর্যন্ত যেতেই সমস্যা। কারণ স্কুলের মূল গেট থেকে বিদ্যালয় পর্যন্ত যেতে যে মাঠ পার হতে হয়, সেই মাঠই জলে ভর্তি। অধিকাংশ ছাত্রছাত্রী সাইকেলে জলের অংশটুকু পার করার চেষ্টা করছে। কিন্তু যাদের সাইকেল নেই, তারাই সমস্যায় পড়ছে। ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ, একটু বৃষ্টি হলেই স্কুলের সামনের মাঠে জল জমে যায়। সমস্যায় পড়তে হয় আমাদের। জল পেরিয়ে বিদ্যালয়ে যাতায়াত করতে হয়। ভিজে জুতো পরেই ক্লাস করতে হয়।  এদিকে, স্কুলে আবার সাইকেল রাখার কোনও স্ট্যান্ড নেই। ফলে রোদ-জলে সাইকেলগুলিও নষ্ট হচ্ছে। অবিলম্বে মাঠের জল নিকাশির ব্যবস্থা করার পাশাপাশি সাইকেল স্ট্যান্ড করার দাবি জানিয়েছে পড়ুয়ারা। একই দাবি অভিভাবকদেরও। এই বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা পুনম ভট্টাচার্য জানান, বিদ্যালয়ের চারিদিকে পাঁচিল দেওয়ার পর থেকেই এই সমস্যা হয়েছে। সমস্যা সমাধানে প্রশাসনের সর্বস্তরে আবেদন জানানো হলেও কোনও সুরাহা হয়নি। ফলে জল-যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাচ্ছে না বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। স্কুলের মাঠে জল জমা প্রসঙ্গে রঘুদেবপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান জুবের আলম জানান, বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তা উঁচু হয়ে যাওয়ায় এই সমস্যা হয়েছে। মাঠ উঁচু করলেই এই জল-যন্ত্রণার সমস্যা মিটবে বলে মনে করছেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, মাঠটি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের অধীনে। সেই কারণে মাঠটি উঁচু করার দায়িত্বও বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকেই নিতে হবে। তবে কেঠোপোল থেকে বিদ্যালয় পর্যন্ত যে রাস্তাটি খারাপ হয়েছিল, সেটি ৬০ লক্ষ ৩৪ হাজার টাকায় সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।
জল পেরিয়ে যাতায়াত। -নিজস্ব চিত্র

12th     August,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ