বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

তোতাপাখি...। রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে ব্যবহার করা হচ্ছে ইডি ও সিবিআইয়ের মতো কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে। এই অভিযোগ তুলে রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ মিছিল তৃণমূল কংগ্রেসের। শনিবার উলুবেড়িয়ায় তোলা নিজস্ব চিত্র।

হীরকবর্ষে পা রাখল কলেজ স্কোয়ার সর্বজনীন
বৃন্দাবনের প্রেমমন্দির, ৭৫ জন মনীষীর আলোর প্রতিকৃতি

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সদ্য ইংরেজ অধীনতা থেকে মুক্ত হয়েছে ভারত। স্বাধীনতার স্বাদগন্ধ মেখে গুটিগুটি পায়ে নতুন পথে হাঁটা শুরু করেছে দেশ। সংযোজন হচ্ছে অনেক কিছুর। চলছে বিয়োজন প্রক্রিয়াও। তখন গোটা কলকাতা জুড়ে দুর্গাপুজো হচ্ছে মেরেকেটে শ’দুয়েক। সর্বজনীন পুজো নাগরিক জীবনের অঙ্গভুক্ত হয়ে উঠছে তড়িৎগতিতে। সেই সময়ে কলেজ স্ট্রিটের বাসিন্দাদের মধ্য থেকে দাবি উঠল দুর্গাপুজোর। স্থানীয় কয়েকজন উদ্যোগ নিলেন। কলেজ স্কোয়ারের ভিতর জলের ধার ঘেঁষে ছোট আকারে শুরু হল পুজো। স্বাধীনতা সংগ্রামী অজিতকুমার দে উদ্বোধন করলেন। স্বাধীনতা উত্তর মধ্য কলকাতায় সেই পথ চলা শুরু কলেজ স্কোয়ার দুর্গাপুজোর। হাঁটতে হাঁটতে হীরক জয়ন্তী, এবছর।
শ্যামা শ্যাম ধাম বৃন্দাবনে ইটালিয়ান মার্বেলে তৈরি প্রেমমন্দির। প্রায় এক হাজার শিল্পী এটিকে তৈরি করেন। রাজস্থান ও গুজরাতের বিখ্যাত কয়েকটি শিল্পকলা ব্যবহার হয়েছে নির্মাণ কৌশলে। বানাতে লেগেছে দীর্ঘ বারো বছর। শ্যামের সেই প্রেমমন্দিরের আদলেই তৈরি হচ্ছে কলেজ স্কোয়ারের পুজো মণ্ডপ। ৭৫ বছরে কলকাতাকে চমকে দিতে এই প্যান্ডেল তৈরির সিদ্ধান্ত, বলছেন উদ্যোক্তারা। পুজোর মূল কার্যকরী সচিব বিকাশ মজুমদার জানান, প্রেমমন্দির এবার মূল আকর্ষণ। এছাড়া ৭৫ বছর উপলক্ষে ৭৫ জন মনীষীকে সম্মান জানানো হবে। লেকের জল থিমের আলোয় সাজানোর রেওয়াজ কলেজ স্কোয়ারের। এবার সেই জলের উপর আলোয় তৈরি হবে মনীষীদের প্রতিকৃতি। এছাড়া আরও নানা আকর্ষণ থাকছে। তবে এখনই তা প্রকাশ্যে আনতে চাইছে না কর্তৃপক্ষ। এবারও চন্দননগর থেকে আলোকশিল্পীরা পুজোর অলঙ্করণ করছেন। এছাড়া ওই মনীষীদের জীবন আলেখ্য তুলে ধরা হবে দর্শকদের জন্য। প্রতিমার আদল রীতি মেনে এবারও একই। সাবেকি ঢঙেই তৈরি হচ্ছে দুর্গা। 
পঁচাত্তর বছর উপলক্ষে কলেজ স্কোয়ার সর্বজনীন পুজো কমিটি আরও কয়েকটি অভিনব উদ্যোগ নিচ্ছে। যেমন, পঁচাত্তর জন পড়ুয়ার সারা বছরের পড়াশোনার খরচ দেবে তারা। স্কুলের বেতন থেকে শুরু করে বইপত্রের খরচ সহ সবকিছুই পুজো কমিটি দেবে। এছাড়াও সমাজসেবামূলক কাজের একাধিক পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানায় কমিটি। সোমেন মিত্র এই পুজোর সভাপতি ছিলেন দীর্ঘদিন। এবছর পুজোর সভাপতি তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। এছাড়া আরও অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তি এই পুজোর সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। রবিবার পুজো কমিটির বৈঠক বসেছিল। হীরকবর্ষকে স্মরণীয় করে রাখতে আরও অনেক চমক হাজির করার পরিকল্পনা নিয়েছেন উদ্যোক্তারা।

1st     July,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ