বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

৬ জন আর নেই, মানতেই
পারছে না সুলতানপুর গ্রাম

সংবাদদাতা, উলুবেড়িয়া: মঙ্গলবার রাতে কেউ পরিচিতদের কাছ থেকে জেনেছিলেন, সবে খাওয়া-দাওয়া শেষ করে সকলে বাসে উঠেছেন। আবার কেউ জেনেছিলেন, সকলেই খুব ভালোভাবে দারিংবাড়ি ঘুরেছেন। তাঁরা বেশ খুশিই ছিলেন। আবার কেউ কেউ বলছেন, সন্ধ্যা থেকে যেন মনে কু ডাকছিল। যেমন নিহত রিমার বউদি রানু দেড়ে। জানালেন, অনেকক্ষণ ধরেই মনে কু ডাকছিল। রাত দেড়টা নাগাদ ফোনটা বেজে উঠতেই ধড়ফড় করে উঠে পড়েছিলেন তিনি। ফোনের ওপার থেকে তখন শুধুই কান্নার আওয়াজ। মাঝে একটাই কথা শুনতে পেয়েছিলেন তিনি, রিমার আর বিয়ে হবে না। ও আমাদের ছেড়ে চলে গিয়েছে। তারপর থেকে নিজেই অনবরত কেঁদে চলেছেন রানু।
বুধবার ভোর থেকেই গ্রামের একটির পর একটি বাড়ি থেকে কান্নার রোল ভেসে আসতে থাকে। গ্রাম থেকে বেড়াতে যাওয়া হাসিখুশি মানুষগুলো যে দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে, এবং তাতে ছ’জনের মৃত্যুও হয়েছে, এটা যেন কেউ মেনে নিতে পারছেন না। সকল থেকেই গোটা পাড়ার আকাশ বাতাস কান্নার আওয়াজে ভারী হয়ে আছে। আর কে, কাকে সান্ত্বনা দেবেন। কারণ যাঁদের মৃত্যু হয়েছে, তাঁরা সকলেই একে অপরের আত্মীয়। কেউ বলছেন, তাঁদের আত্মীয় হাসপাতালে ভর্তি। আবার কেউ বলছেন, তাঁদের আত্মীয়দের প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার পর থেকে কোনও বাড়িতে হাঁড়ি চড়েনি। কেউ খাবার মুখে তুলতে পারেননি। সকাল থেকেই পাড়ার মোড়ে মোড়ে জটলা। ফোনের অপেক্ষায় পাড়ার যুবকরা। বাজলেই সকলে তড়িঘড়ি ফোন ধরছেন। কারণ কারও না কারও আত্মীয় হাসপাতালে ভর্তি। তবে কে, কাকে, কী খবর দেবেন, সেটা ভেবেই অনেকে কুল কিনারা করতে পারছেন না।
প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে মৃতদেহগুলি গ্রামে পৌঁছবে। পাশাপাশি আহতরাও গ্রামে পৌঁছবেন। দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার পরেই ভোরে গ্রামে পৌঁছে যান উদয়নারায়ণপুরের বিধায়ক সমীর পাঁজা। তিনি দুর্ঘটনার কবলে পড়া মানুষদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও ফোনে কথা বলেন। বিধায়ক বলেন, মুখ্যমন্ত্রী আমাকে এলাকায় থাকতে বলেছেন। আমরা পরিবারগুলির পাশে আছি। উদয়নারায়ণপুরের বিডিও প্রবীরকুমার শিট বলেন, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে চারজন আধিকারিককে দুঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তাঁদের মধ্যে আছেন বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের প্রধান সচিব সুমন্ত নারিয়াল, হাওড়া জেলার বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের আধিকারিক দেবাশিস বৈদ্য, উলুবেড়িয়া মহকুমা বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের আধিকারিক লক্ষ্মীকান্ত দে এবং হাওড়া গ্রামীণ জেলা পুলিসের ডিএসপি সুব্রত ভৌমিক। -নিজস্ব চিত্র

26th     May,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ