বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

ওয়াটগঞ্জে ধৃত অাগ্নেয়াস্ত্র ব্যবসায়ী
প্রভাতই ছিল হাওড়ার শুটআউটে
জেরায় সাফল্য পেল কলকাতা গোয়েন্দা পুলিস

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্রের কারবারে যুক্ত থাকার অভিযোগে ওয়াটগঞ্জের মুন্সিগঞ্জ এলাকা থেকে সোমবার রাতে প্রভাত দাস নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছিল কলকাতা পুলিসের গুন্ডা দমন শাখা। তাকে জেরা করেই গোয়েন্দারা জানতে পারেন, শুধু অস্ত্রের কারবারে নয়, খুনের ঘটনাতেও সে অভিযুক্ত। দশ দিন আগে হাওড়ার ডোমজুড়ের শুটআউট কাণ্ডে নিজের গ্যাংয়ের এক দোসরকে খুন করে প্রভাত। তারপর পালিয়ে মেটিয়াবুরুজ এলাকায় গা ঢাকা দিয়ে আগ্নেয়াস্ত্রের কারবারে মগ্ন ছিল সে। এটি জেনে রীতিমতো অবাক গোয়েন্দারা। প্রভাতের কাছ থেকে মিলেছে তিনটি আগ্নেয়াস্ত্র ও কার্তুজ। তার ধরা পড়ার খবর হাওড়া সিটি পুলিসকেও জানানো হয়েছে।
মে মাসের ১৪  তারিখ হাওড়ার ডোমজুড়ে খুন হন তাপস দলুই। তাঁকে খুব কাছ থেকে গুলি করা হয় বলে অভিযোগ। সিসিটিভি ও অন্য তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে পুলিস জানতে পারে ঘটনায় জড়িত রয়েছে তার শাগরেদ প্রভাত।  হাওড়ার বাকসাড়ার প্রভাতের বাড়িতে পুলিস হানাও দেয়। কিন্তু অভিযুক্তকে পাওয়া যায়নি। মোবাইল বন্ধ থাকায় তার লোকশেন পাওয়া পায়নি হাওড়ার পুলিস।
এর মাঝে কলকাতা পুলিসের গোয়েন্দা বিভাগের অফিসাররা জানতে পারেন, প্রভাত নামে এক ব্যক্তি কলকাতায় আগ্নেয়াস্ত্র কেনাবেচা করতে আসছে। মূলত বন্দর এলাকায় তার যাতায়াত। এখানেই বেআইনি অস্ত্রের ডিল হচ্ছে। তার গতিবিধি জানার চেষ্টা হয়। সোর্স লাগিয়ে গোয়েন্দারা জানতে পারেন, সোমবার সে অস্ত্র বিক্রি করতে আসবে ওয়াটগঞ্জের মুন্সিগঞ্জ এলাকায়। সেইমতো সেখানে পৌঁছে যায় গোয়েন্দা বিভাগের টিম। সাদা পোশাকে পুলিস কর্মীরা এলাকায় নজর রাখছিলেন। হঠাৎ তাঁরা খেয়াল করেন এক যুবক ওই এলাকায় ঢুকছে। সোর্স জানিয়ে দেয়, এই ব্যক্তিই হল প্রভাত। সঙ্গে সঙ্গে তাকে পাকড়াও করা হয়। তার কাছ থেকে উদ্ধার হয় একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও কার্তুজ। এরপরই গ্রেপ্তার হয় অভিযুক্ত। তাকে জেরা করে জানা যায় মেটিয়াবুরুজে ডেরা রয়েছে।  সেখানে হানা দিয়ে আরও গোটা তিনেক বেআইনি আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি মেলে। 
ধৃতকে লাগাতার জেরা করে গোয়েন্দাদের হাতে চাঞ্চল্যকর তথ্য আসে। জানা যায়, ১৪ তারিখ তাপস দলুইকে খুনের পর গঙ্গা পেরিয়ে বিচালিঘাটে আসে প্রভাত। সেখান থেকে মেটিয়াবুরুজে এক পরিচিতের বাড়িতে এসে ওঠে। তাদের জানায় কলকাতায় একটি কাজ রয়েছে। কয়েকদিন কাটিয়ে চলে যাবে হাওড়ার বাড়িতে। এর আগেও একাধিকবার সেখানে থেকে যাওয়ায় তাকে সন্দেহ করেননি কেউ। প্রভাত যে খুনের ঘটনায় জড়িত তা তাঁরা জানতেন না। সেখানে দু-তিনদিন কাটিয়ে গার্ডেনরিচে অন্য এক পরিচিতের বাড়িতে গা ঢাকা দিয়েছিল। অন্যের ফোন ব্যবহার করে যোগাযোগ রাখছিল বিভিন্ন ব্যক্তির সঙ্গে। পালিয়ে থাকার সময়েও সে আগ্নেয়াস্ত্র কেনাবেচার কারবার চালাচ্ছিল সেখানে বসেই।

25th     May,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ