বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

অভিষেকের শ্যামনগরের জনসভায় বড়
ধসের ইঙ্গিত বিজেপিতে, তৈরি তালিকা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আরও বড় ধসের অপেক্ষায় বিজেপি। আগামী সোমবার শ্যামনগরে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা। সেখানেই বিজেপি ত্যাগ করে ঘাসফুলের পতাকা কাঁধে তুলে নেবেন এক ঝাঁক নেতা-কর্মী। বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগদানের লম্বা তালিকা তৈরি করে ফেলেছেন সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া অর্জুন সিং। ইতিমধ্যেই সেই তালিকা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে পৌঁছেছে। সোমবার অর্জুন জানিয়েছেন, আগামী লোকসভা নির্বাচনই এখন পাখির চোখ। রাজ্যের ৪২টি আসনেই জিতবে তৃণমূল। শূন্যতে নামবে বিজেপি।
তৃণমূলের নজরে এখন বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্র। জেলার চারটি লোকসভা কেন্দ্র দমদম, বারাসত, বারাকপুর ও বসিরহাট তৃণমূলের হাতে থাকলেও বনগাঁ রয়েছে বিজেপির হাতে। লোকসভা ভোটে ওই কেন্দ্রে জোড়াফুল ফোটানোই এখন লক্ষ্য তৃণমূলের। তাই এদিন উত্তর ২৪ পরগনার নেতারা বৈঠকে বসে ঠিক করেন, বনগাঁ কেন্দ্রে দলের অন্য নেতাদের সঙ্গে দায়িত্বে থাকবেন অর্জুন সিংও।
আগামী ৩০ মে শ্যামনগরের অন্নপূর্ণা জুটমিলে জনসভা করবেন অভিষেক। সেই সভায় ভাটপাড়ার বিধায়ক পবন সিং বিজেপি ছেড়ে যোগ দিতে পারেন তৃণমূল শিবিরে, এমনটাই খবর। এদিন প্রস্তুতি বৈঠক করে তৃণমূলের দমদম-বারাকপুর সাংগঠনিক জেলা। টিটাগড়ে দলীয় অফিসে এই বৈঠকে হাজির ছিলেন সৌগত রায়, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, পার্থ ভৌমিক, তাপস রায়, মদন মিত্র, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, সুজিত বসু, ব্রাত্য বসু, শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, অর্জুন সিং সহ একাধিক নেতা-মন্ত্রী। অর্জুন দলে ফেরায় বারাকপুর শিল্পাঞ্চলে তৃণমূল আরও শক্তিশালী হল বলে দাবি নেতৃত্বের। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসভায় রেকর্ড জমায়েতের লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। সেকারণে নেতা-কর্মীদের এখন থেকেই ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। বিধায়ক মদন মিত্র বলেন, অর্জুনের সঙ্গে আমার কোনও বিরোধ নেই। আমরা সবাই এখন এক পরিবারের সদস্য। অর্জুনের বক্তব্য, বিজেপিতে সংগঠন বলে কিছু নেই। গত বিধানসভা ভোটে বিজেপি সরকার গঠন করবে বলে মিডিয়া প্রচার করেছিল। কিন্তু দিল্লির নেতারা জানতেন যে, বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় আসতে পারবে না। সংগঠন না থাকায় পঞ্চায়েত ভোটেও ওরা ধরাশায়ী হবে। বিজেপির সংগঠন খুবই দুর্বল। আরও দুর্বল হতে শুরু করেছে। 
অন্যদিকে, এদিন তৃণমূলের বহু কর্মী-সমর্থক মজদুর ভবনে এসে সাংসদকে সংবর্ধনা জানান। অর্জুন বলেন, তৃণমূল ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে যাওয়ার পর বিজেপির নেতারা আমাদের দিকে সন্দেহের চোখে দেখতেন। এভাবে রাজনীতি করা যায় না। তাই, ফের তৃণমূলে ফিরলাম। তৃণমূলে ফিরে তোলাবাজি বরদাস্ত করব না। আমার কাছে এমন বেশ কিছু অভিযোগ এসেছে। দলের স্বার্থেই এই বিষয়ে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সৌগত রায় বলেন, অর্জুন তৃণমূলের সম্পদ। দল আরও শক্তিশালী হবে। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে সিদ্ধান্ত নেবেন, তা আমাদের মেনে চলতে হবে।

24th     May,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ