বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

বিদ্যুতের ঝলকানি। বুধবার বারাসতে কুমার বসুর তোলা ছবি।

ঘোজাডাঙায় ৭৬ জন লরিচালকের
কাছে মিলল জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স
পাচার রুখতে অভিযান বিএসএফের

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাকপুর: ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে আন্তর্জাতিক পাচারের সঙ্গে যুক্ত জাল লাইসেন্সধারী একাধিক লরিচালক। কিছুদিন আগেই পেট্রাপোলের আইসিপি’তে (ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট) অভিযান চালিয়ে ৯০ জনের কাছ থেকে জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স উদ্ধার করেছে বিএসএফ। এবার ঘোজাডাঙা বাণিজ্যিক সীমান্তেও জাল লাইসেন্স নিয়ে অভিযান শুরু করেছে বিএসএফ। ইতিমধ্যেই এই সীমান্তে ৭৬ জন লরিচালকের কাছ থেকে জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া গিয়েছে। বিএসএফের দাবি, পেট্রাপোল, ঘোজাডাঙার পাশাপাশি, মালদহের মোহাদিপুর এলসিএস তথা ল্যান্ড কাস্টম স্টেশনেও অভিযান শুরু হয়েছে। সেখানে একজনের থেকে জাল লাইসেন্স মিলেছে।
বিএসএফ জানিয়েছে, পেট্রাপোলের আইসিপি’তে পরপর বেশ কয়েকটি পাচারের ঘটনা সামনে এসেছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, পণ্য নিয়ে বাংলাদেশে যাওয়া লরির চালকরাই যুক্ত। যেমন, গত ১৯ জুলাই বাংলাদেশ থেকে আসা এক ভারতীয় চালকের কাছ থেকে ১ কোটি ৭১ লক্ষ ৮০ হাজার ৪২০ টাকার সোনা উদ্ধার হয়। তারপর ২১শে আগস্ট পণ্য খালাস করে বাংলাদেশ থেকে ফেরা একটি ভারতীয় ট্রাক থেকে ১ কোটি ৬৮ লক্ষ ৩৮ হাজার ৫০০ টাকার বৈদেশিক মুদ্রা (সৌদি রিয়াল) উদ্ধার হয়। এ মাসের ৪ তারিখ বিএসএফ একজন পরিবহণকারীর কাছ থেকে ১ কোটি ৪৪ লক্ষ ২২ হাজার ৩৫৬ টাকার সোনা উদ্ধার করেছিল। বাংলাদেশ থেকে আসা একটি ট্রাকের ভিতরে লুকিয়ে রেখে সে ভারতে তা পাচার করছিল। এভাবে পরপর পাচার সামনে আসায় অভিযান শুরু করে বিএসএফ। পেট্রাপোল আইসিপি থেকেই অভিযান শুরু হয়। গত ১৬ এবং ১৭ জানুয়ারি বিএসএফ জওয়ানরা ৯০ জন চালকের কাছ থেকে জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স পান। তারপর ১৯ জানুয়ারি অভিযান চলে ঘোজাডাঙায়। সেখানে আমদানি-রপ্তানিতে যুক্ত ৩৯০ জন লরিচালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স আচমকা পরীক্ষা করা হয়। সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টে পর্যন্ত চেকিং চলে। সেখানে ৭৬ জন লরিচালকের থেকে জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া গিয়েছে। বিএসএফ জানিয়েছে, চালকদের সঙ্গে কিছু শ্রমিক, খালাসিও পাচারের কাজে সাহায্য করে।
বিএসএফের সাউথ বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ারের সিনিয়র মুখপাত্র তথা ডিআইজি সুরজিৎ সিং গুলেরিয়া বলেন, জাল ড্রাইভিং লাইসেন্সধারী কোনও চালককে বাংলাদেশে যেতে দেওয়া যাবে না। কারণ এই ধরনের চালকরা জাল ড্রাইভিং লাইসেন্সের ভিত্তিতে কাস্টমস বিভাগ থেকে অফিসিয়াল পাশ পায়। যার ভিত্তিতে বিএসএফ ট্রাক নিয়ে বাংলাদেশে যাওয়ার অনুমতি দেয়। তিনি বলেন, আমাদের এলাকায় কোনও ধরনের চোরাচালান আমরা হতে দেব না।

22nd     January,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ